Logo
শিরোনাম

১৬ বছর প্রবাসে থেকে লাশ হয়ে ফিরছেন আমির খসরু

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী মো. আমির খসরু (৪৩)। তার বাড়ি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ঘাটলা গ্রামে। টানা ১৬ বছর কাটিয়েছেন প্রবাস জীবন। এর মধ্যে একবারও বাড়ি আসেননি তিনি।

চলতি বছরের ১৪ জুলাই দেশে আসতে কেটেছিলেন উড়োজাহাজরে টিকিট। আসবেনও তবে উড়োজাহাজের সিটে নয় কফিনে। কারণ, শনিবার (২৫ জুন) স্থানীয় সময় রাত ৩টার দিকে দক্ষিণ আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ ইস্টার্ন কেপের কুইন্স টাউনে ঘুমের মধ্যে মারা যান আমির খসরু।

আমির খসরু দক্ষিণ ঘাটলা গ্রামের লতিফ মিস্ত্রির বাড়ির আবদুস সোবহানের বড় ছেলে। ছেলের মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন তিনি। আবদুস সোবহান বলেন, ‘আমার তিন ছেলে দুই মেয়ের মধ্যে আমির খসরু সবার বড়। অভাব-অনটনের সংসারের হাল ধরতে ২০০৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা যান। সংসারের কথা চিন্তা করে ছেলেটা ১৬ বছর দেশে আসেনি, বিয়েও করেনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘অনেক বলার পর ১৪ জুলাই দেশে আসার জন্য বিমানের টিকিট করে বাড়িতে ফোন দিয়েছে। তার জন্য পাত্রী দেখা হচ্ছে। দেশে আসলে বিয়ে করানোর কথা ছিল। কিন্তু রোববার (২৬ জুন) সকালে তার সঙ্গে থাকা একজন ফোন করে ঘুমের মধ্যে স্ট্রোক করে মারা যাওয়ার সংবাদ দেয়।’

কাদিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. সালাহ উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমির খসরু আমার স্কুল জীবনের বন্ধু। মাঝে মধ্যে বিদেশ থেকে ফোন দিয়ে খোঁজখবর নিতো। ১৪ জুলাই দেশে আসবে বলেছিল। তার সঙ্গে আর জীবিত দেখা হলো না। বিষয়টি ভাবতে অনেক কষ্ট লাগছে। তার মরদেহ আনতে আলোচনা চলছে।’


আরও খবর



খেলার মাঠে বজ্রপাত, প্রাণ গেলো কিশোরের

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৫ আগস্ট ২০২২ | ১৫জন দেখেছেন
Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফুটবল খেলার সময় বজ্রপাতে সাদ ইসলাম (১৪) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (৩০ জুলাই) বিকেলে সদর উপজেলার রাজারামপুর হাসিনা গার্লস স্কুল মাঠে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সাদ ইসলাম রাজরামপুরের মৌলভী পাড়া মহল্লার সেরাজুল ইসলামের ছেলে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বলেন, ফুটবল খেলার সময় বজ্রপাতে অসুস্থ হন সাদ ইসলাম। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


আরও খবর



তাহলে এশিয়া কাপে সাকিবই অধিনায়ক!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ১০জন দেখেছেন
Image

নাজমুল হাসান পাপন আজ বিকেলেই জানিয়ে দিয়েছেন লিটন দাস, নুরুল হাসান সোহান এবং ইয়াসির আলী রাব্বি- তিনজনই ইনজুরিতে। তাই তাদেরকে বাদ দিয়েই এশিয়া কাপের স্কোয়াড গঠন করতে হচ্ছে।

সন্ধ্যায় প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও একই কথা জানালেন। তার ব্যাখ্যা, ‘সোহান, লিটন এবং রাব্বির সুস্থ হয়ে উঠতে আরও অন্তত চার থেকে পাঁচ সপ্তাহ সময় লাগবে। এ কারণে তাদের এশিয়া কাপ স্কোয়াডে থাকার সম্ভাবনা শূন্যের কোঠায়।’

তাহলে এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেবেন কে? সাকিব আল হাসান নাকি অন্য কেউ? দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হলে, বিসিবি সভাপতি জানিয়ে দেন, বেটিং কোম্পানিংর সঙ্গে চুক্তি বাতিল না করলে তো সাকিবের প্রশ্নই আসে না। আর চুক্তি বাতিল করে ফিরলেও তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে কি না সে বিষয়টা স্পষ্ট করেননি পাপন।

শুধু এটুকু জানিয়েছেন, অধিনায়কত্ব নিয়ে তারা চাপে নেই। সে সঙ্গে এটাও বলেছেন, ‘সামনে বিশ্বকাপ আছে, দেখি আমাদের টিম কম্বিনেশন কি হয়! মনে করলাম একটা ছেলেকে দিব, ও যদি স্কোয়াডেই না থাকে, এটা শুধু সাকিব না..., তাহলে ওকে দিয়ে লাভ হল কি অধিনায়কত্বটা? তার তো কোনো মানে হল না। আমরা এখন টিমটা ঠিক করবো সেটার জন্য আমরা একটা দিন সময় নিচ্ছি। আজকে না করে আগামীকাল দলটা জানিয়ে দেওয়া হবে।’

তবে, বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে বাংলাদেশ ক্রিকেটে নিজেকে উজাড় করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিসিবিতে সাকিব আল হাসান চিঠি পাঠানোর পর পরিস্থিতি নিঃসন্দেহে পাল্টে গেছে। বিসিবি সভাপতিও জানিয়ে দিয়েছেন, দল ঘোষণা করা হবে শনিবার। তার আগে তিনি সাকিবের সঙ্গে কথা বলতে চান। ব্যাখ্যা জানতে চান, বেটিং প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কেন চুক্তি করেছে? সে বৈঠকে কী মিষ্টি করে শাসনও করে দেবেন না বিসিবি সভাপতি! বুঝিয়ে বলবেন না, বিশ্বকাপ পর্যন্ত ক্যাপ্টেন্সিটা চালিয়ে নিতে!

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে অধিনায়ক ছিলেন নুরুল হাসান সোহান। দুই ম্যাচে ক্যাপ্টেন্সি করার পর হাতের আঙ্গুল ফ্র্যাকশ্চার হওয়ায় সোহানের পক্ষে আর খেলা সম্ভব হয়নি। যদিও তিনি আশায় ছিলেন, এশিয়া কাপ দিয়েই ফিরবেন দলে।

কিন্তু তার সর্বশেষ ইনজুরির আপডেট হলো নেতিবাচক। তাই সোহান অধিনায়ক হচ্ছেন না অনিবার্য্যভাবেই। তার জায়গায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে দল পরিচালনা করা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত কী তাহলে এশিয়া কাপে অধিনায়কত্ব করবেন? নাকি বেটউইনার নিউজের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা সাকিবকেই দেয়া হবে অধিনায়কের গুরু দায়িত্ব? তা নিয়ে রাজ্যের জল্পনা-কল্পনা।

ভক্ত, সমর্থক ও অনুরাগীরা উন্মুখ তা জানতে। বিসিবির ভাবনা কী? ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি প্রধান জালাল ইউনুস আনুষ্ঠানিকভাবেই আজই (বৃহস্পতিবার) অধিনায়কের নাম জানাতে চান না। তার বক্তব্য, ‘অধিনায়কের নাম ঘোষণা করা হবে আগামী শনিবার। এরআগে আনুষ্ঠানিকভাবে অধিনায়কের নাম বলা সমীচিন হবে না।’

তবে জালালের কথায় কিছুটা ইঙ্গিত মিলেছে। বোঝা গেছে সাকিবকেই করা হবে অধিনায়ক। সম্ভাব্য অধিনায়ক হিসেবে যার নাম আসতো সবার আগে, সেই নুরুল হাসান সোহান যেহেতু দলেই থাকবেন না, তাই তার অধিনায়ক হবার প্রশ্নই আসেনা।

এশিয়ার কাপের মত বড় আসরে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের কাঁধে অধিনায়কের গুরু দায়িত্ব অর্পনের সম্ভাবনাও খুব কম। আর অধিনায়ক হয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে সৈকতের পারফরমেন্সও ভাল ছিল না। তাই অধিনায়কের অপশনও গেছে কমে। সে কারণেই ভাবা হচ্ছে সাকিবকেই করা হবে অধিনায়ক।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার রাতে প্রধান নির্বাচক নান্নু জাগো নিউজকে জানান, নির্বাচকরা আগামীকাল শুক্রবার এশিয়া কাপ স্কোয়াড চূড়ান্ত করতে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বৈঠকে বসবেন।

অধিনায়ক মনোনয়নও কী ওই বৈঠকেই হবে? প্রধান নির্বাচকের জবাব, ‘না, না। ক্যাপ্টেন সিলেকশন তো বোর্ড করে। আমরা শুধু ইনপুট দিই।’


আরও খবর



রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নিলেন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর দ্রৌপদী মুর্মু

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

ভারতের প্রথম ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী থেকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়া দ্রৌপদী মুর্মু শপথগ্রহণ করলেন সোমবার (২৫ জুলাই)। দেশটির সংসদ ভবনের সেন্ট্রাল হলে সকাল ১০টার দিকে তার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। ভারতের ১৫তম রাষ্ট্রপতি হলেন তিনি।

এরপর সংসদের সেন্ট্রাল হলে রাষ্ট্রপতি হিসেবে প্রথম ভাষণ দেন দ্রৌপদী মুর্মু। দেশের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে নির্বাচিত হওয়া দ্রৌপদী ভারতের সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতি।

দ্রৌপদী বলেন, ‘সকলের আশীর্বাদে আমি দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছি। আমি প্রগতিশীল একটি দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছি। নিজেকে খুব সৌভাগ্যবতী মনে হচ্ছে।’

দ্রৌপদী আরও বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছরে আমার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়েছিল। আর স্বাধীনতার ৭৫ বছরে আমি রাষ্ট্রপতি হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছি। দেশের রাষ্ট্রপতি হওয়া আমার ব্যক্তিগত প্রাপ্তি নয়। এটি ভারতের প্রতিটি দরিদ্র মানুষের প্রাপ্তি। আমার রাষ্ট্রপতি হওয়া প্রমাণ করে যে ভারতের দরিদ্র মানুষেরা শুধু স্বপ্নই দেখেন না। সেই স্বপ্ন পূরণও করতে পারেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমিই দেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়া প্রথম ব্যক্তি যে ভারতের স্বাধীনতার পরে জন্মগ্রহণ করেছে। ভারতের নাগরিকদের কাছে আমার আবেদন, স্বাধীনতা সংগ্রামীদের প্রত্যাশা পূরণ করতে আমাদের সকলকে একসঙ্গে চেষ্টা করতে হবে।’

বিজেপি মনোনীত রাষ্ট্রপতি মুর্মু সাঁওতাল সম্প্রদায়ের। এর আগে তিনি ঝাড়খন্ড রাজ্যের গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) তিন দফায় গণনা শেষে ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে ভারতের নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন দ্রৌপদী। ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বী যশবন্ত সিনহাকে বিপুল ব্যবধানে হারান তিনি। 

সূত্র: এনডিটিভি, আনন্দবাজার


আরও খবর



ইসিতে আয়-ব্যয়ের হিসাব দেয়নি ১৩ দল

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ | ১৬জন দেখেছেন
Image

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বেঁধে দেওয়া সময় শেষ হলেও কমিশনে আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়নি ১৩টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল। এর মধ্যে ১২টি দল সময় বাড়ানোর আবেদন করেছে। তবে হিসাব জমা না দিয়েও সময় আবেদন করেনি বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি। অন্যদিকে কমিশনের নিয়ম মেনে নির্ধারিত সময়ে ২৬টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দিয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব রওশন আরা জাগো নিউজকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দেশের নিবন্ধিত ৩৯টি রাজনৈতিক দলের ইসিতে আয়-ব্যয়ের হিসাব দাখিলের শেষ দিন ছিলো রোববার (৩১ জুলাই)। কোনো রাজনৈতিক দল পর পর তিন বছর কমিশনে আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা না দিলে নিবন্ধন বাতিল হওয়ার বিধান রয়েছে।

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়কালে ২০০৮ সাল থেকে রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য নিবন্ধন প্রথা চালু করে ইসি। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ মেনে প্রতিবছর ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে দলগুলোর আগের পঞ্জিকা বছরের ‘অডিট রিপোর্ট’ জমা দেওয়ার আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

রাজনৈতিক দলগুলোর কোন খাত থেকে কত টাকা আয়, কত টাকা ব্যয় হয়েছে, বিল-ভাউচারসহ তার পূর্ণাঙ্গ তথ্য কমিশনের নির্ধারিত একটি ছকে জমা দিতে হয়। যা রেজিস্টার্ড চার্টার্ড অ্যাকাউন্টিং ফার্মের মাধ্যমে নিরীক্ষা করার আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। পরপর তিন বছর কমিশনে আয়-ব্যয়ের প্রতিবেদন দাখিলে ব্যর্থ হলে কোনো রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন বাতিলের এখতিয়ার রয়েছে ইসির।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ সাংবাদিকদের বলেন, সময় বাড়ানো হবে কি না, এ বিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত দেবে। অতীতে সময় বাড়ানোর নজির আছে। সময় না বাড়ানো হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে দলগুলোর আবেদনের প্রেক্ষিতে সময় বাড়ানো হতে পারে।

রোববার সকালে ইসিতে আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয় আওয়ামী লীগ। ২০২১ সালে ক্ষমতাসীন এ দলটি আয় করেছে ২১ কোটি ২৩ লাখ ৪৬ হাজার ১০৬ টাকা। ব্যয় হয়েছে ৬ কোটি ৩০ লাখ ১৯ হাজার ৮৫২ টাকা। আয়ের বড় খাত দেখানো হয়, মনোনয়নপত্র ও প্রাথমিক সদস্য ফরম বিক্রি। আগের বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে দলটির আয় বেড়েছে ১০ কোটি ৯০ লাখ টাকা। আগের বছরের তুলনায় ব্যয় কমেছে ৩ কোটি ৬৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা। বর্তমানে ব্যাংকে আওয়ামী লীগের জমা রয়েছে ৭০ কোটি ৪৩ লাখ ৭০ হাজার ১৬৬ টাকা।

অন্যদিকে এক যুগেরও বেশি সময় ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপি গত ২৮ জুলাই ইসিতে আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়। দলটি ২০২১ সালে আয় করেছে ৮৪ লাখ ১২ হাজার ৪৪৪ টাকা। আর ব্যয় করেছে এক কোটি ৯৮ লাখ ৪৭ হাজার ১৭১ টাকা।

হিসাব বিবরণী অনুযায়ী, বিএনপির চেয়ে আয় বেশি হয়েছে জাতীয় সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির (জাপা)। ২০২১ সালে জাপা আয় করেছে দুই কোটি ৯ লাখ ৮৫ হাজার ১৫৪ টাকা। এসময়ে দলটির ব্যয় ৮৪ লাখ ৬৮ হাজার ১৩৪ টাকা। ব্যয়ের চেয়ে আয় এক কোটি ২৫ লাখ ১৭ হাজার ২০ টাকা বেশি। আগের বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে জাপার আয় ছিল এক কোটি ২৭ লাখ ৭২ হাজার ৮৭৭ টাকা ৫৪ পয়সা। ওই বছর দলের ব্যয় হয় ৭৬ লাখ চার হাজার ১২০ টাকা। ব্যয়ের চেয়ে আয় বেশি ছিল ৫১ লাখ ৬৮ হাজার ৭৫৭ টাকা ৫৪ পয়সা।


আরও খবর



যুদ্ধের পর রেকর্ড দাবদাহে জ্বালানি সংকট বাড়ছে ইউরোপে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
Image

ইউরোপের পশ্চিমাঞ্চলে গত কয়েকদিন থেকে চলছে তীব্র দাবদাহ। এই অতিউষ্ণ আবহাওয়া ‘হিট অ্যাপোক্যালিপস’-এ রূপ নিতে পারে বলে সতর্ক করেছে ফরাসি কর্তৃপক্ষ। দাবদাহের সঙ্গে দাবানল ক্রমাগত বাড়তে থাকায় ফ্রান্সে এরই মধ্যে অন্তত দেড় হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। যুক্তরাজ্যে বিমানবন্দরের রানওয়ে গলে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ, লোহার রেললাইন গলে যেতে পারে আশঙ্কায় ধীরে চালানো হচ্ছে ট্রেনগুলো। আবহাওয়াবিদরা সতর্ক করেছেন, মঙ্গলবারই (১৯ জুলাই) দেখা যেতে পারে ব্রিটিশ দ্বীপপুঞ্জের ইতিহাসে রেকর্ড সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে জানা যায়, আইবেরিয়ান দ্বীপপুঞ্জের (স্পেন-পর্তুগাল) কিছু এলাকায় তাপমাত্রা বেড়ে ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে, যার ফলে কয়েক ডজন জায়গায় দাবানল শুরু হয়েছে। গত এক সপ্তাহে স্পেন ও পর্তুগালে এক হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন দাবদাহ সম্পর্কিত কারণে। হাসপাতালগুলোতে বেড়েই চলেছে রোগীর চাপ। এমন আবহাওয়ায় বিস্তৃত খরা, পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়া এবং ক্ষতিগ্রস্ত ফসলের ভয়ংকর প্রভাব সম্পর্কে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে ইউরোপীয় সরকারগুলোকে এই মুহূর্তে আরও একটি গুরুতর চাপ সামলাতে হচ্ছে, তা হলো ক্রমবর্ধমান জ্বালানি সংকট। ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বৈশ্বিক জ্বালানি বাজারে যে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তাতে গোটা ইউরোপেই বেড়েছে বিদ্যুতের দাম। সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছে রাশিয়ার তেল-গ্যাসের ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল দেশগুলো, বিশেষ করে জার্মানি।

jagonews24

চলমান দাবদাহের কারণে ইউরোপে এয়ারকন্ডিশনারের (এসি) ব্যবহার বাড়ছে হু হু করে। স্প্যানিশ ইউটিলিটি কোম্পানি এনাগ্যাস গত সপ্তাহে এক বিবৃতিতে বলেছে, দাবদাহে রেকর্ড তাপমাত্রার কারণেই মূলত বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রাকৃতিক গ্যাসের চাহিদা ব্যাপকভাবে বেড়েছে।

আসন্ন শীতকালের জন্যেও পর্যাপ্ত গ্যাস মজুত করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে ইউরোপ। তবে মেরামতের কথা বলে এ অঞ্চলের প্রধান পাইপলাইন নর্ড স্ট্রিম ১ দিয়ে আগের চেয়ে কম গ্যাস সরবরাহ করছে রাশিয়া। আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফাতিহ বিরলের ভাষ্যমতে, আগামী কয়েক মাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইউরোপের স্টোরেজ লেভেল ৯০ শতাংশে পৌঁছানোর আগেই যদি রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়, তাহলে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ ও চ্যালেঞ্জিং হবে।

জার্মান অর্থনীতি মন্ত্রী রবার্ট হ্যাবেক এক রেডিও সাক্ষাৎকারে বলেন, যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে। হতে পারে গ্যাস আবার প্রবাহিত হবে, হয়তো আগের চেয়েও বেশি। আবার এটাও হতে পারে, কিছুই আসবে না।

jagonews24

দ্য গার্ডিয়ানের কলামিস্ট সাইমন টিসডাল লিখেছেন, ইউরোপে বিদ্যুতের ঘাটতি ও বিপর্যয়ে ভরা অশান্তির এক দীর্ঘ, ঠাণ্ডা শীতকাল আসন্ন।

কী করছে ইউরোপ
ইউক্রেন যুদ্ধের কারণ ছাড়াও রুশ জ্বালানির ওপর নির্ভরতা কমাতে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন ইউরোপীয় নেতারা। তবে এর জন্য নিকট ভবিষ্যতে বড় ঘাটতির মুখে পড়তে হতে পারে তাদের। রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়ার আশঙ্কা এরই মধ্যে ইউরোপকে সমস্যার পথে ঠেলে দিয়েছে।

ইউরোপের সবচেয়ে প্রভাবশালী সবুজ রাজনীতিবিদদের একজন হ্যাবেক। চাপের মুখে তিনিও এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন, যা ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সদস্য দেশগুলোর কার্বন নির্গমন নিরোধক প্রতিশ্রুতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তার চেয়ে বড় কথা, এই পথে তিনি একা চলছেন না।

jagonews24

জার্মান সাংবাদিক কনস্ট্যানজে স্টেলজেনমুলার দ্য ফিন্যান্সিয়াল টাইমসে লিখেছেন, জার্মানির বিকল্পগুলো সংখ্যায় কম, অসম্পূর্ণ ও অপ্রীতিকর। হ্যাবেক কয়লা প্ল্যান্টগুলোকে ফের সচল করছেন এবং লোকদের অল্প সময়ে গোসল সারতে বলছেন। তিনি তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) টার্মিনাল নির্মাণের জন্য কেনাকাটা সহজতর ও পরিবেশগত বিধিনিষেধ শিথিল করছেন; পাশাপাশি, ভাসমান টার্মিনাল ভাড়া করছেন। এছাড়া বিকল্প এলএনজি সরবরাহের সন্ধানে কর্তৃত্ববাদী উপসাগরীয় নেতাদের প্ররোচিত করছেন।

নবায়নযোগ্য জ্বালানি রূপান্তরে বিশ্বকে নেতৃত্ব দিচ্ছে ইউরোপ। তবে সেখানে উল্লেখযোগ্য হারে কার্বন নিঃসরণ বাড়তে দেখছেন বিশ্লেষকেরা। বহু ইউরোপীয় দেশ কয়লার ব্যবহার বাড়িয়েছে; পাশাপাশি, দীর্ঘমেয়াদী জীবাশ্ম জ্বালানি নিষ্কাশন ও সঞ্চয়স্থানে নতুন বিনিয়োগকে উৎসাহিত করছে।

বার্লিনভিত্তিক পরামর্শক ক্লাইমেট অ্যানালিটিক্সের বিল হেয়ার নিউইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, এটি ২০১৫ সালের প্যারিস জলবায়ু চুক্তির ইতি টানতে তেল-গ্যাস শিল্পের প্রচেষ্টা বলে মনে হচ্ছে এবং আমি খুবই চিন্তিত যে, তারা এতে সফল হতে পারে।

jagonews24

তবে এর বিপরীতে একটি ভালো দিকও রয়েছে। ইউরোপীয় সরকারগুলো ইইউর সৌরবিদ্যুৎ সক্ষমতা বাড়ানোসহ নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতে বিনিয়োগ দ্বিগুণ করছে। থিংকট্যাংক এমবার এবং সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ক্লিন এয়ারের এক বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, বর্তমান ধারা চলতে থাকলে ২০৩০ সালের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৬৩ শতাংশ বিদ্যুৎ হবে নবায়নযোগ্য।

এমবারের ইউরোপীয় কর্মসূচির প্রধান চার্লস মুর ব্লুমবার্গকে বলেন, উচ্চহারে কার্বন নিঃসরণের অনুমতি দেওয়া সবসময়ই ঝুঁকিপূর্ণ। তবে এটি যদি বায়ু ও সৌর স্থাপনার ওপর ক্ষুরধার নজরের সঙ্গে মিলিত হয়, তাহলে সম্ভবত অর্থ দাঁড়াবে- দ্রুত জ্বালানি রূপান্তর। আপনার হাতে অন্য বিকল্প থাকলে এটি ঝুঁকিপূর্ণ কৌশল হবে, কিন্তু এখন তা নেই।


আরও খবর