রোহিত-ওয়ার্নাররাও পিছিয়ে মুশফিকের চেয়ে

Tuesday, May 19th, 2020

মুশফিক এগিয়ে আছেন বাকিদের চেয়ে। ফাইল ছবিমুশফিক এগিয়ে আছেন বাকিদের চেয়ে। ফাইল ছবিক্রিকেটে সবচেয়ে সুন্দর শট কোনটি?

 

ডেস্ক নিউজঃ কভার ড্রাইভ অনেকের কাছে লোভনীয়। স্ট্রেট ড্রাইভও কম যায় না। কিংবা বল বাতাসে ভাসিয়ে সীমানা পার করা স্কয়ার কাট। তবে বিশেষজ্ঞ থেকে ভক্তরা কিন্তু একটি একটু আলাদা চোখে দেখেন। সবাই খেলতে পারে না। ভালো চোখ, হাতের সমন্বয়, শরীরের চকিত নড়াচড়া আর বলে শেষ পর্যন্ত চোখ রাখতে হয়। পুল বা হুক!

অনেকের কাছেই এটি ক্রিকেটের সবচেয়ে সুন্দর শট। বোলারকে মিড উইকেট থেকে ডিপ ফাইন লেগে অঞ্চলের মধ্য দিয়ে ভয়ংকর সুন্দর পুলে সীমানাছাড়া করার মধ্যে একটা রাজকীয় ব্যাপার আছে। সাকিব আল হাসান এই কেরদানি দেখানোয় শিখর ধাওয়ান, এমনকি রোহিত শর্মার চেয়েও এগিয়ে। আর সাকিব, রোহিত, ডেভিড ওয়ার্নার, ধাওয়ানদের টেক্কা দিয়েছেন মুশফিক।

যেকোনো কন্ডিশনে, যেকোনো উইকেটে স্বচ্ছন্দে পুল-হুক করায় রোহিতের জুড়ি মেলা ভার। সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীদের সবাই এ ধারণাটা পোষণ করেন। তাদের ভুল ভাঙাল ইএসপিএনক্রিকইনফো। করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে খেলা বন্ধ থাকায় মানুষের একঘেঁয়েমি কাটাতে প্রতিদিন মজার সব পরিসংখ্যান, ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাগ করে নিচ্ছে ক্রিকইনফো। সে ধারাবাহিকতায় আজ পুল-হুক খেলায় ভালো ব্যাটসম্যানদের নিয়ে টুইট করেছে তারা।

২০১৪ সালের এপ্রিলে থেকে ওয়ানডের হিসেব কষেছে ক্রিকইনফো। এ সময়ে পেসার ও মিডিয়াম পেসারের বিপক্ষে তারা কী পরিমাণ পুল-হুক খেলেছেন। এতে ন্যূনতম ২০০ রান করেছেন এ সময়ের মধ্যে, এ শর্তে জায়গা করে নিতে পেরেছেন ৪২জন ব্যাটসম্যান। ৩৮২ রান ও সর্বোচ্চ ১২৭ গড় নিয়ে এ তালিকায় শীর্ষে শ্রীলঙ্কার সাবেক ওপেনার তিলকারত্মে দিলশান। এই সময়ে দিলশান পেসার ও মিডিয়াম পেসারদের কাছে যত রান করছেন তার ২৩ শতাংশ এসেছে পুল-হুক থেকে।

এই তালিকায় ১০০-র বেশি গড়ের ব্যাটসম্যান আছেন আর একজন। রস টেলর। ১১১ গড়ে ৩৩৩ রান করেছেন এ কিউই। আউট হয়েছেন ৩বার, স্ট্রাইক রেট ১৫৫.৬। ৭৮.৩৩ গড়ে ২৩৫ গড়ে এ দুজনের পরই আছেন মুশফিকুর রহিম। এই ৬ বছরে পুল-হুক খেলতে গিয়ে তিনবার আউট হয়েছেন মুশফিক। স্ট্রাইক রেট ১৪৬।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ৮বার আউট হয়ে তুলেছেন ৫৮৬ রান। ব্যাটিং গড়ে তিনি মুশফিকের পেছনে (৭৩.২৫)। এরপরই আছেন সাকিব আল হাসান। সাকিব এই ৬ বছরে পুল-হুক খেলতে গিয়ে আউট হয়েছেন ৫বার। ৩৪৩ রান তুলেছেন ৬৮.৬০গড়ে। স্ট্রাইক রেট ১৬১.৮। রোহিত শর্মা ৬৪.০৬ ব্যাটিং গড় নিয়ে সাকিবের পেছনে।

পুল-হুক করে সবচেয়ে বেশি রান রোহিতেরই। ৯৬১ রান তুলেছেন যা এ সময়ে তাঁর তোলা মোট রানের ২৪.৬ শতাংশ। বোঝাই যাচ্ছে, এই শট খেলার লোভ খুব কমই সামলাতে পারেন তিনি। কিন্তু তা করতে গিয়ে যে ১৫বার আউটও হয়েছেন রোহিত!