করোনার এ সময় দাঁতের চিকিৎসা

Saturday, June 6th, 2020

ডেস্ক নিউজঃ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় সরকারঘোষিত ছুটি শেষে দেশে সীমিত আকারে খুলেছে সরকারি–বেসরকারি অফিস। খুলছে বেশ কিছু ডেন্টাল ক্লিনিকও। কিন্তু দাঁতের চিকিৎসায় যেহেতু চিকিৎসককে রোগীর মুখের কাছে যেতে হয়। তাই এ ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সতর্কতা দরকার:

 

■ স্বাভাবিক সময়ে প্রতি ছয় মাস অন্তর সবাইকে দাঁতের চেকআপে উৎসাহ দেওয়া হয়। তবে করোনার এ সময়ে এই ঝুঁকি নেওয়ার প্রয়োজন নেই।

■ যতটা সম্ভব টেলিমেডিসিনেই সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করুন।

■ দাঁতের জরুরি চিকিৎসার দরকার হলে, যেমন: দাঁতে অসহনীয় ব্যথা, অনিয়ন্ত্রিত রক্তপাত, আক্কেল দাঁত সম্পর্কীয় প্রদাহ, দুর্ঘটনায় দাঁত বা চোয়ালের হাড় ভাঙা, দাঁতের সংক্রমণ থেকে মুখের নিচে কিংবা চোখের নিচ পর্যন্ত ফুলে যাওয়া—ইত্যাদি সমস্যায় চিকিৎসকের সঙ্গে প্রথমে টেলিফোনে যোগাযোগ করে সময় নিন। এতে অকারণ ভিড় এড়িয়ে চলা সম্ভব হবে।

■ চিকিৎসককে দাঁতের সমস্যার পাশাপাশি করোনার কোনো উপসর্গ থাকলে সেটিও জানান। কোনোভাবেই উপসর্গ লুকাবেন না। এতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

■ এ সময় রোগীদের পরিষ্কার কাপড় পরিধান, ০.৫% পভিডন আইয়োডিন মাউথ ওয়াশ ব্যবহার, চিকিৎসার গুরুত্ব বুঝে রোগীকে একা চেম্বারে আসা, বাধ্যতামূলক মানসম্মত মাস্ক ব্যবহার, প্রয়োজনে হ্যান্ডগ্লাভস ব্যবহার ইত্যাদি নিয়মকানুন অনুসরণ করতে হবে।

■ চিকিৎসকের চেম্বারে ঢোকার ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুসরণ করুন।

রোগ প্রতিরোধে সচেতন হোন

করোনার এই মহামারি খুব শিগগির কেটে যাওয়ার আভাস এখনো পাওয়া যাচ্ছে না। কাজেই এ সময় নিজেকে সুস্থ রাখার সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে:

■ দুই বেলা ফ্লোরাইডযুক্ত ভালো মানের টুথপেস্ট ও ছোট মাথাযুক্ত নরম টুথব্রাশের সাহায্যে দুই থেকে আড়াই মিনিট দাঁত ব্রাশ করুন। সঙ্গে আঙ্গুল দিয়ে মাড়ি মেসেজ ও জিব পরিষ্কার করা জরুরি। প্রয়োজনে গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে বা চিকিৎসকের পরামর্শে মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন।

■ ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করুন।

■ মিষ্টি খাবার এড়িয়ে চলুন। এর পরিবর্তে মৌসুমি ফলমূল, শাকসবজি, দুধ, টক দই, ছোট মাছ, সামুদ্রিক মাছ, ডিম খান। ধূমপান ও পান-জর্দা পরিহার করুন।

■ বড় ফিলিং, ক্যাপবিহীন রুট ক্যানেল চিকিৎসাপ্রাপ্ত দাঁত, দুর্বল দাঁত ইত্যাদির ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন।

■ দাঁত দিয়ে অন্য কোনো কাজে যেমন: বোতলের কর্ক খোলা, ক্লিপ খোলা, কোনো কিছু টানা যাবে না।

 

দন্ত চিকিৎসক, কলাবাগান রাজ ডেন্টাল সেন্টার