এ বার টেনিসে করোনার থাবা, আক্রান্ত দিমিত্রভেরা, কাঠগড়ায় জোকোভিচ

Tuesday, June 23rd, 2020

নিজের দেশ সার্বিয়ার বেলগ্রেডে নোভাক জোকোভিচের আয়োজিত প্রদর্শনী টুর্নামেন্ট নিয়ে তোলরা় টেনিস বিশ্ব। কারণ, সেখানে খেলতে আসা খেলোয়াড় এবং কোচিং সদস্যরা একের পরে এক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তা নিয়ে রীতিমতো কাঠগড়ায় বিশ্বের অন্যতম সেরা টেনিস তারকা জোকোভিচ।

শুধু তাই নয়, তিনি নিজেও করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন কি না, সেই আশঙ্কাও দেখা দিয়েছে। বিশ্বের এক নম্বর জোকোভিচ সম্প্রতি বেলগ্রেডে এই প্রদর্শনী প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিলেন। যাঁর প্রথম পর্ব শেষ হয়ে গিয়েছে। এবং শেষ হওয়ার পরে রবিবার রাতে প্রথম আক্রান্তের খবর আসে। বুলগেরিয়ার তারকা গ্রিগর দিমিত্রভ— যাঁকে টেনিস দুনিয়া ডাকে ‘বেবি ফেডেরার’ বলে, ঘোষণা করেন তিনি করোনায় আক্রান্ত। এর পরেই আর এক খেলোয়াড় বোর্না চোরিচ জানান তিনিও করোনায় আক্রান্ত। সোমবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বিশ্বের ৩৩ নম্বর চোরিচ লিখেছেন, ‘‘সবাইকে জানিয়ে দিতে চাই, পরীক্ষা করে জানা গিয়েছে কোভিড-১৯-এ আমি আক্রান্ত। গত কয়েক দিন যাঁরা আমার সংস্পর্শে এসেছেন, সবাই যেন নিশ্চিত ভাবে পরীক্ষা করেন। কারও কোনও ভাবে ক্ষতি করে থাকলে আমি দুঃখিত। আমি ভালই আছি। করোনার কোনও লক্ষণ এখনও পর্যন্ত আমার শরীরে নেই। সবাই সুস্থ ও নিরাপদে থাকুন।’’

এই দুই টেনিস তারকার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর জানাজানি হওয়ার কিছুক্ষণ পরে জোকোভিচের ফিটনেস কোচ মার্কো পানিচিরও পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভ’ এসেছে। সার্বিয়ার মিডিয়ায় তেমনই খবর। দিমিত্রভের কোচও আক্রান্তদের তালিকায় আছেন বলে শোনা যাচ্ছে। আশঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে যে, বেলগ্রেড না টেনিস খেলোয়াড়দের মধ্যে করোনা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে দিয়ে থাকে!

এ ভাবে ঝুঁকি নিয়ে প্রদর্শনী প্রতিযোগিতা আয়োজনের পরে অনেকেই জোকোভিচের সমালোচনা করেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার টেনিস তারকা নিক কিরিয়স লিখেছেন, ‘‘এ ভাবে প্রদর্শনী প্রতিযোগিতা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া একেবারেই উচিত হয়নি। আক্রান্তদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। সঙ্গে এটাও বলতে চাই, যখন সুরক্ষাব্যবস্থা না-মানা হয়, তার ফল এ রকমই হয়।’’

জোকোভিচের এই প্রদর্শনী প্রতিযোগিতায় বেশ বড় সংখ্যায়  দর্শকরা হাজির হয়েছিলেন। অনেককেই মুখাবরণ ছাড়া দেখা গিয়েছিল। জোকোভিচ এর আগে এ ভাবে প্রদর্শনী ম্যাচ আয়োজনের সমালোচনা উড়িয়ে দিয়ে বলেছিলেন, ‘‘জানি, কয়েক জন এই প্রদর্শনী ম্যাচ আয়োজনের সমালোচনা করছেন। কেন দর্শকদের উপস্থিত থাকার অনুমতি দেওয়া হল? কেন সামাজিক দূরত্ববিধি মানা হল না? এ রকম প্রশ্ন অনেকে করছেন। কিন্তু একটা ব্যাপার বুঝতে হবে, যুক্তরাষ্ট্র বা ইংল্যান্ডের থেকে সার্বিয়া বা তার আশপাশের দেশে পরিস্থিতি অন্য রকম।’’

এই প্রদর্শনী প্রতিযোগিতায় শুধু দর্শকদের স্টেডিয়ামে হাজির থাকার অনুমতি দেওয়া নিয়েই সমালোচনা হয়নি। খেলোয়াড়দের ম্যাচের মধ্যে আলিঙ্গন করতে, হাত মেলাতে দেখা গিয়েছে। নাইট ক্লাবে পার্টিও করেছেন তাঁরা। এখন দিমিত্রভের আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই জোকোভিচের কোচ গোরান ইভানিসেভিচ জানিয়েছেন, এই প্রদর্শনী প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব বাতিল করা হচ্ছে। যা হওয়ার কথা ছিল  ক্রোয়েশিয়ায়। বেলগ্রেডে খেলতে নামার জন্য জোকোভিচের পাশাপাশি দমিনিক থিম, আলেকজান্ডার জেরেভদেরও করোনা পরীক্ষা করা হবে।

এ দিকে, সার্বিয়ার ফুটবল ক্লাব রেড স্টার বেলগ্রেডের পাঁচ ফুটবলারের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। ১২ দিন আগে এই ক্লাবের ফুটবলারেরা বেলগ্রেডে একটি ম্যাচ খেলেছিলেন। যেখানে ১৬ হাজার দর্শক উপস্থিত ছিল স্টেডিয়ামে। করোনাভাইরাস অতিমারির রূপ নেওয়ার পরে এত বড় মাপের জমায়েত ইউরোপে কোনও ম্যাচে দেখা যায়নি। চলতি মাসের গোড়া থেকে সার্বিয়া সরকার লকডাউন শিথিল করার সিদ্ধান্ত নেয়। খোলা জায়গায় জমায়েতের উপরেও নিষেধাজ্ঞা উঠে যায় সেখানে। অভিযোগ উঠেছে, এই ম্যাচে সুরক্ষাবিধি যথাযথ ভাবে মানা হয়নি। শনিবার মরসুমের শেষ ম্যাচ খেলার পরে রেডস্টার বেলগ্রেড ক্লাব ১০ হাজার সমর্থকের সঙ্গে ঘরোয়া লিগ জয়ের উৎসবে মেতেছিল।- আনন্দ বাজার পত্রিকা