দেশ পরিচালনায় আওয়ামী লীগের বিকল্প নাই -ফারুক চৌধুরী এমপি

Monday, July 20th, 2020

আলিফ হোসেন,তানোর: রাজশাহী-১ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ, আর্দশিক নেতৃত্ব ও বর্ষীয়ান রাজনৈতিক নেতা আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দলের নেতাকর্মীদের  উদ্দেশ্যে কঠোর বার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, দলীয়পদ-তদ্বির বাণিজ্যে ও অনিয়ম-দূর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের দিন শেষ হয়েছে অনেক আগেই, তবে এখানো একশ্রেণীর বিপদগামী ও নব্য কোটিপতিরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, দলের আদর্শ-নীতিনৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে আওয়ামী লীগে থেকেও অবৈধ অর্থের মোহে দলের সঙ্গে বেঈমানী বিশ্বাসঘাতকতা করে গোপণে  আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে দলীয়কোন্দল সৃস্টি,  দল ভাঙ্গার ষড়যন্ত্র, বিভিন্ন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের পরাজয় এবং বিরোধী প্রার্থীর বিজয় ঘটাতে আর্থিক সুবিধার বিনিময়ে জামায়াত- বিএনপির এজেন্ডা হয়ে কাজ করেছে ও করছে তাদের শিগগির বিচারের কাঁঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে, আওয়ামী লীগে থেকে  অাওয়ামী লীগের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে পার পাবার কোনো সুযোগ নাই।

এদিকে হঠাৎ করেই ফুঁলেফেঁপে উঠা নব্য কোটিপতি বিশেষ করে ২০০০ সালেও যারা বাই সাইকেল-মোটর সাইকেল নিয়ে রাজনীতি করেছেন, অথচ ২০২০ সালে এসে তারা কোটি কোটি টাকার সম্পদ, প্লট, ফ্ল্যাট-একাধিক গাড়ী- বাড়ী, মাছের ঘের, পুকুর, মাল্টা বাগানসহ  অঢেল বিত্তবৈভবের  মালিক হয়ে রাজকীয় জীবনযাপন করছেন, তারা কেউই ছিলনা শিল্পপতি, বড় ব্যবসায়ী, আমলা, বা উচ্চ বিত্তশিল পরিবারের সন্তান, তাহলে এতো অল্প সময়ে এরা এতো বিপুল বিত্ত-বৈভব ও সম্পদের মালিক হলেন কিভাবে এদের আয়ের উৎস্য কি এরা সরকারকে কত টাকা ট্যাক্স দেন  ইত্যাদি এসবেরও অনুসন্ধান শুরু হয়েছে আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে অনিয়ম-দূর্নীতি করে পার পাবার কোনো সুযোগ নাই। তিনি বলেন, দাদা- বাবা করেছেন আওয়ামী লীগ তাই আমিও আওয়ামী লীগ এই মানসিকতা পরিহার করে বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু এবং তার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শ বুকে ধারণ দেশ ও সাধারন মানুষের কল্যান করে আওয়ামী লীগ পরিচয় দিতে হবে, আওয়ামী লীগে বেঈমান-বিশ্বাসঘাতক,মতলববাজ ও সুযোগ সন্ধানীদের কোনো স্থান নেই হবেও না।

এমপি ফারুক চৌধুরী বলেন, সুখি সমৃদ্ধিশালী উন্নত দেশ গড়তে আওয়ামী লীগ সরকারের অবদান অপরিসীম আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নাই। তিনি বলেন, এক সময় আওয়ামী লীগের দলীয় কর্মসুচি পালন করা হতো না, অনেক মানুষকে ঘর থেকে বের করা যেত না। অথচ এখন আওয়ামী লীগের দলীয় কর্মসুচিতে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের স্বঃত্বস্ফুর্ত অংশগ্রহণে জনস্রোত নামলেও সেই মতলববাজ নেতারা এখানো বাইরে থাকে আবার নিজেদের শতবর্ষী-অস্টবর্ষী  রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান ও আদর্শিক বলে দাবি করে। কিন্ত্ত আওয়ামী লীগে থেকেও এরা অতীতে প্রকাশ্যে-অপ্রকাশ্যে

আওযামী লীগের বিরোধীতা করেছে এখানো বিরোধীতা করছে। অাবার এরা নিজেদের যেই নৌকার লোক বলে দাবি করেন সেই নৌকায় উঠতে বার বার ব্যর্থ হয়ে নৌকা ডুবানোর ষড়যন্ত্র করে। তিনি বলেন, মানুষ এখন ভাল-মন্দ বুঝে- শুনে দেখে ভোট দেন, তাই সাধারণ মানুষের কোন নেতা কতটুকু উপকার করেন, তাদের বিপদ- আপদে কারা ছুটে যায় সেটা তারা বোঝেন ভাওতাবাজির দিন শেষ, যখন সাধারন মানুষের বিপদ-আপদে একজন তার কর্মী বাহিনী নিয়ে প্রতিনিয়ত  দিনের পর দিন এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রাম, ছুটে চলেছেন।

তখন নৌকার পুরাতন মাঝির দাবিদারগণ ১০ বছরে কয়টি গ্রামে গিয়েছে ? কয়টি দলীয় কর্মসুচি  করেছে ? তারা কোন নির্বাচনে নৌকার বিরোধীতা করেনি ?  এখন তারা কোন মুখে নৌকার কান্ডারী হতে চাই ? তারা সাধারণ মানুষের কোনো উপকার করেছেন এই রকম একটা উদাহারণও দেখাতে পারবেন না তারাই নাকি আসল আওয়ামী লীগ।তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস সংকটে আওয়ামী লীগ সরকারের ভূমিকা অতুলনীয়, দেশের সুষম উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে উন্নয়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আওয়ামী লীগকেই বার বার রাস্ট্রিয় ক্ষমতায় রাখতে হবে দেশ পরিচালনায় আওয়ামী লীগ সরকারের কোনো বিকল্প নাই, তিনি বলেন, তৃণমুল নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ তারা কখানোই কোনো লোভলালসার মোহে দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে না তাই তৃণমুলের সকল নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের ঐক্যবদ্ধহয়ে সংগঠনের স্বার্থে কাজ করতে হবে। এমপি ফারুক চৌধুরী আরো বলেন, সরকার সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছে, গ্রামের মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সরকার সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে। সরকার গ্রামের জনগণের জন্য আধুনিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার মাধ্যমে গ্রামকে শহরে পরিণত করার কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। যাতে মানুষ সকল আধুনিক নাগরিক সুযোগ সুবিধা গ্রামে বসেই পেতে পারে। তিনি বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালে বিশ্বে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে, তাই আসুন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগেৱ সভাপতি ও দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের স্বার্থে সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করি।#

তানোর প্রতিনিধি