অপো রেনো ৪ এখন বাজারে

Thursday, August 13th, 2020

[ঢাকা, আগস্ট ১৩, ২০২০] ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন রেনো ৪ বাংলাদেশের বাজারে বিক্রি শুরু করেছে অপো। আজ থেকে স্মার্টফোনটি দেশের সকল অপো আউটলেট, শপিং মল এবং ই-কমার্স সাইটে পাওয়া যাচ্ছে। এর আগে ৮ আগস্ট, ২০২০ তারিখে একটি অনলাইন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ফোনটি দেশের বাজারে উন্মোচন করা হয়।
ক্যামেরায় রেনো ৪-এর উদ্ভাবনী সব ফিচারে পোর্ট্রেট শুটিং এবং ভিডিওগ্রাফিতে মিলবে অনন্য এক অভিজ্ঞতা। এ ফোনের পেছনের ক্যামেরায় ৩+১ চার শট ম্যাট্রিক্স পোর্ট্রেট ফটোগ্রাফিতে এক অভূতপূর্ব উদ্ভাবন। এতে আছে ৪৮ মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরা এবং ২ মেগাপিক্সেলের মনো ক্যামেরা। ৩২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা চমৎকার সেলফি ধারণ করে। তাছাড়া পছন্দের সব মুহূর্তগুলো ছবি বা ভিডিওতে নিমেষেই ধরে রাখতে সাহায্য করবে এআই কালার পোর্ট্রেট, নাইট ফ্লেয়ার পোর্ট্রেট, সেকেন্ডে ৯৬০ ফ্রেমের স্মার্ট স্লো-মোশন, আল্ট্রা স্টেডি ভিডিও ৩.০।
পছন্দের কন্টেন্ট দেখা বা ফিচারগুলো অনায়াসে ব্যবহারের জন্য রেনো ৪-এ আছে ৯০.৭ শতাংশ আসপেক্ট রেশিওর ৬.৪৩ ইঞ্চি ২৪০০ পিক্সেল বাই ১০৮০ পিক্সেল এফএইচডি+ অ্যামোলেড ৬.৪৩ ইঞ্চির ৬০ হার্টজের রিফ্রেশ রেট ডিসপ্লে; এঅন (এআই এনহ্যান্সড স্মার্ট সেন্সর) এবং এয়ারকন্ট্রোল যার মাধ্যমে ফোন স্পর্শ করা ছাড়াই শুধুমাত্র হাতের ইশারায় ফোনের বিভিন্ন ফিচার নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। তাছাড়া স্মার্ট স্পাইং প্রিভেনশনের ফলে ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা নিশ্চিত হবে।
উন্নত ব্যাটারি ব্যাকআপ ছাড়া স্মার্টফোন ব্যবহারের অভিজ্ঞতা পূর্ণতা পায় না। এ জন্য রেনো ৪-এ আছে ৩০ ওয়াটের সুপারফাস্ট ভোক ফ্ল্যাশ চার্জ ৪.০ প্রযুক্তি যা দিয়ে মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যে এর ৪,০১৫ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের বড় ব্যাটারির ৫০ শতাংশ চার্জ করা যাবে। এর সুপার পাওয়ার সেভিং মোডে মাত্র ৫ শতাংশ ব্যাটারি ব্যাকআপে হোয়াটসঅ্যাপে দেড় ঘন্টা চ্যাট করা যাবে। রেনো ৪-এ ব্যবহার হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১০ ভিত্তিক কালারওএস ৭.২। শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি প্রসেসর, অ্যাড্রিনো ৬১৮ জিপিইউ এবং ৮ গিগাবাইট র‌্যাম ও ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজে কাজ বা গেমিংয়ে মিলবে অসাধারণ পারফরমেন্স।
রেনো ৪ স্পেস ব্ল্যাক ও গ্যালাকটিক ব্লু- এ দুটি চোখ ধাঁধানো রঙে বাজারে পাওয়া যাবে ৩৪,৯৯০ টাকায়।

অপো:
বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারণ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার, ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভূমিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র‌্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো। ২০১৮ সালে ‘ফাইন্ড এক্স’ নিয়ে আসার মাধ্যমে অপো প্রবর্তন করে আজ অবধি বাজারে থাকা স্মার্টফোনগুলোর মাঝে সর্বোচ্চ ৯৩.৮% স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাতের প্যানারমিক আর্ক ডিজাইনের ডিসপ্লে। এছাড়াও সম্প্রতি ‘আর১৭’ এর মাধ্যমে অপো নিয়ে এসেছে সুপার-ভোক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি