ঝালকাঠিতে যৌতুকের মামলায় কলেজশিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

Sunday, September 13th, 2020
ঝালকাঠি প্রতিনিধি:  ঝালকাঠিতে ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবির অভিযোগে করা মামলায় মো. আল-আমিন মাঝি নামে সরকারি কলেজের গণিতের শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। রোববার দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এইচ এম ইমরানুর রহমান এ আদেশ দেন।
যৌতুক দাবির অভিযোগে এক তরুণীর মা রোববার দুপুরে ঝালকাঠির আদালতে হাজির হয়ে মামলা করেন। আদালত ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
শিক্ষক আল-অমিনের বাড়ি নলছিটি উপজেলার রানাপাশা গ্রামে। ৪ বছর আগে তিনি ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজে প্রভাষক পদে যোগ দেন।
যৌতুক দাবির অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি আদালতে আত্মসমর্পণ করে এ মামলায় লড়াই করব।  মামলার বিবরণে জানা যায়, ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজ থেকে ২০১৮ সালে এইচএসসি পাস করা তরুণীকে বিয়ে করেন আল আমিন। বিয়ের কয়েক মাস যেতে না যেতেই শ্বশুরবাড়ির কাছে ৫ লাখ টাকা যৌতুক চান তিনি। টাকা না দিলে স্ত্রীকে আর নিজের কাছে নেবেন না বলেও হুমকি দেন প্রভাষক আল আমিন।
বাদীর আইনজীবী আক্কাস সিকদার বলেন, আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। মামলা দায়েরের সময় ওই তরুণী আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
অভিযোগের বিষয়ে আল আমিন মাঝির ভাষ্য, ‘যৌতুক দাবির অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি আদালতে আত্মসমর্পণ করে এ মামলায় লড়াই করব।’