প্রশাসনের আশ্বাসে কর্মসূচি স্থগিত করলো হাবিপ্রবি’র ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা

Monday, November 2nd, 2020

 

আজিজুর রহমান, হাবিপ্রবি প্রতিনিধিঃপ্রশাসনের আস্বাসে স্নাতক শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত করেছেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা।
রোববার(০১ নভেম্বর) দুপুরে গণমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্নাতক শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬ সেশনের বিভিন্ন বিভাগের স্নাতক শেষ বর্ষের সকল ক্লাস শেষ করে ৮ মাস ধরে পরীক্ষার জন্য বসে আছে।আমরা চাই যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমাদের ফাইনাল পরীক্ষা গ্রহণ করা হোক।এজন্য আমরা গত মাসের ১৮ তারিখে মানববন্ধন সহ উপাচার্য ও রেজিস্ট্রার বরাবর স্মারক লিপি দেওয়া হয়েছিল এবং রেজিস্ট্রার স্যার আমাদেরকে আস্বস্ত করেছিলেন তিনি বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখবেন।
কিন্তু দু’সপ্তাহ অতিক্রম করলেও কোনপ্রকার সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এজন্যই আজ আমাদের চূড়ান্ত পরীক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছিল।
তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আগামী ০৪ নভেম্বরে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানোর আশ্বাস দেওয়ায় আপাতত আজকের সকল কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।
এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. ইমরান পারভেজ জানান,শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার পরিচালক বরাবর চিঠি দিয়েছি।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড.খালেদ হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীদের স্নাতক শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষার বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. মোঃ ফজলুল হক জানান, উপাচার্যসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন শাখা পরিচালকদের সাথে এবিষয় নিয়ে কথা হয়েছে।আগামী ৩ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যের সাথে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আলোচনা সভা রয়েছে। আমরা আশা করছি শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে আগামী ৪ই নভেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ হতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাতে পারবো।
উল্লেখ,করোনার কারণে গত ৮ মাস ধরে ঝুলে রয়েছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) ১৬ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক চূড়ান্ত পরীক্ষা। ফলে ক্রান্তিকালের মধ্যে দিন পার করছেন শিক্ষার্থীরা।এজন্য তাঁরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চূড়ান্ত পরীক্ষা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন।