Logo
শিরোনাম

বিপৎসীমার ৫ সেন্টিমিটার ওপরে যমুনার পানি, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ৬২জন দেখেছেন
Image

টাঙ্গাইলে যমুনা নদীতে হু হু করে বাড়ছে পানি। শনিবার (১৮ জুন) সন্ধ্যায় পানি বিপৎসীমার ৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে জেলার ১২ উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে।

পানির তীব্র স্রোতে ভাঙছে আঞ্চলিক ছোটবড় রাস্তাঘাট। আতঙ্কে রয়েছেন নিম্নাঞ্চলের মানুষ। বাড়ছে অন্য নদীর পানিও।

টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সিরাজুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শনিবার সন্ধ্যায় যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার ৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বিপৎসীমা অতিক্রম করায় বন্যা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাচ্ছে।


আরও খবর



বুয়েটে ভর্তির সুযোগ পেলেন সৈয়দপুর বিজ্ঞান কলেজের ১৬ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ২২জন দেখেছেন
Image

চলতি বছর মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের ৩৯ জন্য শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। এবার বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ২০২১-২২ সেশনের প্রথম বর্ষের ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন ওই কলেজের ১৬ শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে মেধা তালিকায় একজন পঞ্চম স্থান অধিকার করেছেন। এছাড়া অপেক্ষমাণ তালিকায় রয়েছেন আরও অনেক শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) রাতে বুয়েটের ২০২১-২২ ব্যাচের স্নাতক ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর বিষয়টি জানা গেছে।

কলেজ সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর ২৬৮ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ২৪৯ জন জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে মেডিকেলে ৩৯ জন ও বুয়েটে ১৬ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন।

পঞ্চম অধিকার স্থান করে বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন নাহিদ হোসেন রিদম। এছাড়া সঞ্জয় কুমার ১৬১তম, ইমন ৪৪৪তম, রোমান ৫২৬তম, আবু সায়েম ৫৩০তম, আরিফ শাহরিয়ার সজীব ৫৭০তম, তাহমিদ তনয় ৬৩৯তম, মাহমুদুল ৬৪০তম, মাহবুব ৭৬২তম, গোলাম আজম ৭৬৬তম, নবদ্বীপ রায় ৮০৮তম, সিয়াম মাহিম ৯৫০তম, সুদীপ্ত রায় কেলভিন ৯৮৯তম, এম এ এইচ কে লাবিব ১০৮৬তম, জাকিয়া সুলতানা জীম ১২০৩তম এবং সাফিন ১১১৬তম হয়ে ভর্তির সুযোগ পান।

মেধা তালিকায় পঞ্চম স্থান অধিকারী রিদম বলেন, ‘এ সাফল্যে মা-বাবার অবদান সব থেকে বেশি। ভালো কিছু করার বাসনা থেকেই এতদূর আসতে পেরেছি। তবে পরীক্ষা আশানুরূপ না হওয়ায় কিছুটা ভয় ছিল। তবে উত্তরগুলো সঠিক হওয়ায় আমার এ ফলাফল হয়েছে।’

৭৬২তম মেধাতালিকায় নাম থাকা মাহবুব ইসলাম বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই আমার সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ার ইচ্ছে ছিল। পরীক্ষা কিছুটা খারাপ হওয়ায় ভেঙে পড়েছিলাম। তবে আল্লাহর ইচ্ছায় আমার মনের আশা পূরণ হয়েছে।’

সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. দেলোয়ার হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, প্রতি বছরই এ কলেজের শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল করে থাকে। যখন কোনো শিক্ষার্থী ভালো ফলাফল করে তখন নিজেকে খুব গর্বিত মনে হয়। এ কলেজে মেধাবী শিক্ষার্থীরাই ভর্তির সুযোগ পেয়ে থাকে।

কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক এরশাদ মন্ডল বলেন, করোনার সময় ক্লাস বন্ধ থাকলেও অনলাইনের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত তাদের ক্লাস নিয়েছি। তবে গতবারের চেয়ে এবার কিছুটা ভালো রেজাল্ট করেছে শিক্ষার্থীরা।

গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক আনসারুল ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীদের এমন সাফল্য আমাদের গর্বিত করে তুলে।

সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম আহমেদ ফারুক জাগো নিউজকে বলেন,বরাবরেই এ কলেজের শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল করে আসছে। তারা বুয়েট, মেডিকেলসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে মেধার স্বাক্ষর রাখেন। গত বছর এখান থেকে ১১ জন বুয়েটে সুযোগ পেয়েছিল। এবার ১৬ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। এছাড়া এবার মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে ৩৯ জন।


আরও খবর



নিলয়-হিমির ‘মোবারক ’

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

ছোট পর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনয়শিল্পী নিলয় আলমগীর ও জান্নাতুল সুমাইয়া হিমি। ইদানীং তাদের নাটকে জুটি হিসেবে বেশি দেখা যায়। সম্প্রতি তারা জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন ‘মোবারক ’ নাটকে। আসাজ যূবায়ের কাহিনি ও চিত্রনাট্যে নাটকটি পরিচালনা করেছেন মাহফুজ ইসলাম।

বাংলাভিশনে প্রচারের পর বুধবার (২৯ জুন) তিনটায় নিলয়-হিমি জুটির ‘মোবারক ’ নাটকটি দেশের অন্যতম শীর্ষ অডিও-ভিডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জি-সিরিজের বাংলা নাটক ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পেয়েছে।

নাটকটি প্রসঙ্গে হিমি বলেন, ‘একটা জুটি যখন দর্শক পছন্দ করতে থাকেন, তখন আমরা সহশিল্পীরাই নিজে থেকে চেষ্টা করি একসঙ্গে কাজ করার। দর্শকের আগ্রহ দেখেছি, তারা আমাদের একসঙ্গে দেখতে চান। সে কারণে আমরাও চেষ্টা করেছি নিজেদের মতো করে শিডিউল মিলিয়ে কাজ করার। এই নাটকের গল্পটি দারুণ। আশা করি, নিলয় ভাইয়ের সঙ্গে নাটকটি দর্শকদের ভালো লাগবে।’

‘মোবারক ’ নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে আরো অভিনয় করেছেন আব্দুল্লাহ রানা, শেলী আহসান, সায়কা আহমেদ, সীমান্ত আহমেদ, সেলজুক তারিক, আশরাফ টলু, কাকন চৌধুরী, মিঃ আক্কেল সাদিকা মালিহা শখ প্রমুখ।

নাটকের লিংক:


আরও খবর



জামালপুরে ৬ কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে পথ লাইব্রেরির উদ্বোধন

প্রকাশিত:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

‘পথে পথে লাইব্রেরি’ শ্লোগানে জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ছয় কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে পথ লাইব্রেরির উদ্বোধন করা হয়েছে।

শনিবার (২ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত গ্রো ইউর রিডার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে জামালপুর-তারাকান্দি সড়কের হাসড়া, মাজালিয়া, দোলভিটি এবং চাপারকোনার ছয় কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে এ পথ লাইব্রেরি বসানো হয়। এসময় শিশুদের বই পড়ার আগ্রহ বাড়াতে স্বেচ্ছাসেবীরা পুরো গ্রামকে রং-তুলিতে রাঙিয়ে দেন।

জামালপুরে ৬ কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে পথ লাইব্রেরির উদ্বোধন

গ্রো ইউর রিডার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সাদিয়া জাফরিন জানান, বুক গ্যারেজ প্রজেক্টর গ্রো ইউর রিডারের সঙ্গে যুক্ত সুপারভিশন পার্টনার মিলন স্মৃতি পাঠাগার। এছাড়া পুরো ইভেন্টজুড়ে স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার হিসেবে ছিল কমিউনিকেশন এজেন্সি বুলস’ আই। প্রজেক্টের অর্থায়ন করেছে গ্লোবাল ইউথ মোবিলাইজেশন, ওয়ার্ল্ড হেলথ অরগানাইজেশন এবং ইউনাইটেড ন্যাশন ফাউন্ডেশন।

তিনি বলেন, যে স্বপ্ন আমরা লালন করি তা বাস্তবায়নের পথেই এগিয়ে যাচ্ছি বুক গ্যারেজ প্রজেক্টের মাধ্যমে। সারাদেশে আমাদের মোট ১৯টি পথ লাইব্রেরি আছে। ঢাকা, টাঙ্গাইল, চট্টগ্রাম এবং জামালপুরে আমাদের এই পথ লাইব্রেরিতে প্রায় ১ হাজার ৫০০ বই আছে এবং এ বই পড়ার মাধ্যমে আমরা মানুষের ভেতরে লুকিয়ে থাকা পড়ুয়া মনকে জাগিয়ে তুলতে চাই।

জামালপুরে ৬ কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে পথ লাইব্রেরির উদ্বোধন

স্বেচ্ছাসেবী ও মিলন স্মৃতি পাঠাগারের উদ্যোক্তা আতিফ আসাদ বলেন, গ্রো ইউর রিডার ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের প্রতিটি রাস্তায় এমন একটি করে পথ লাইব্রেরি করার স্বপ্ন দেখে। এসব লাইব্রেরি থেকে যেন বই নিয়ে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাই পড়ে নিজেকে জ্ঞানের আলোয় আলোকিত করতে পারে সেটিই আমাদের উদ্দেশ্য।

তিনি আরও বলেন, এ প্রজেক্টের মূল লক্ষ্য হচ্ছে, আপনার পুরোনো বইটি রেখে যেতে পারেন, যাতে যাদের বই নেই তারা পড়তে পারেন।


আরও খবর



১৬ বছরের ভাগনার সঙ্গে মামির পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় ছয় বছরের শিশু সন্তান রেখে ভাগনার সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে সেলিনা আকতার (২৫) নামের এক গৃহবধূর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।

হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শুক্রবার (২৪জুন) বিকেলে হাতীবান্ধা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্বামী আবদুল্লাহ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালে সেলিনা আকতারের সঙ্গে বিয়ে হয় আবদুল্লাহর। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সকাল ১০ টার দিকে মেয়ের স্কুলড্রেস কেনার কথা বলে বাড়ি থেকে উধাও হন সেলিনা আকতার। এরপর আত্মীয়-স্বজন ও বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করে না পেয়ে থানায় অভিযোগ করেন স্বামী আবদুল্লাহ। তার অভিযোগ, পরকীয়া করে ভাগনার (আব্দুল্লাহর চাচাতো বোনের ছেলে) সঙ্গে পালিয়ে গেছেন সেলিনা।

সেলিনা আকতার হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের একাব্বর আলীর মেয়ে। ওই কিশোর (১৬) এসএসসি পরীক্ষার্থী।

আবদুল্লাহর দুলাভাই আনছার আলী বলেন, ‘দুই বছর ধরে ওই কিশোরের সঙ্গে সেলিনার পরকীয়া সম্পর্ক চলছে। এনিয়ে অনেকবার স্থানীয়ভাবে সালিশ হয়েছে। এমনকী একমাস আগেও সালিশ হয়েছে। কিন্তু কোনোভাবেই তাদের ভালোবাসার সম্পর্ক ছিন্ন করা গেলো না।’

সেলিনার স্বামী আবদুল্লাহ বলেন, ‘৬ বছরের একটি মেয়েকে রেখে ভাগনার হাত ধরে সেলিনা কীভাবে পালালো? যাওয়ার সময় সে আমার টাকা-পয়সা সব নিয়ে গেছে। এখন আমি অসহায়। আমি কীভাবে মানুষকে মুখ দেখাবো?’ একথা বলে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম জাগো নিউজকে বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন সেলিনার স্বামী আবদুল্লাহ। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



রক্ত মেখে বাসি মাংস টাটকা বলে বিক্রি

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর রামপুরায় জবাইকৃত পশু থেকে সংগ্রহ করা রক্ত বাসি মাংসে মেখে টাটকা বলে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে ইনসাফ মাংস বিতান নামে এক দোকানের বিরুদ্ধে। বুধবার (১৫ জুন) বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের এক অভিযানে এমন প্রতারণা ধরা পড়ে।

অভিযানে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর, মৎস্য অধিদপ্তর, কৃষি বিপণন অধিদপ্তর, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও ফুড প্ল্যানিং অ্যান্ড মনিটরিং ইউনিটের (এফপিএমইউ) প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত একটি দল অংশ নেন। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য ও যুগ্নসচিব শাহনওয়াজ দিলরুবা খান অভিযানের নেতৃত্ব দেন।

অভিযানের শুরুতেই মাংসের দোকানের মালিক আজিজুল চুন্নু পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক বা জরিমানা করা সম্ভব হয়নি। তবে বোতলে রাখা রক্ত নষ্ট করে দেয় আভিযানিক দলটি।

দোকানটির কর্মচারী ইয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা কয়েকদিন ধরে রক্ত সংরক্ষণ করে রাখি। ওই রক্ত পশুর কলিজা ও মগজে মাখিয়ে রাখি। দেখতে টাটকা লাগলে ক্রেতারা সহজেই মাংস কিনতে আকৃষ্ট হন।’

jagonews24

তিনি আরও বলেন, ‘মালিবাগ রেলগেট সংলগ্ন ছোট ছোট মাংসের দোকানগুলোতে এভাবেই বোতলে ভরে রাখা রক্ত মাংসের গায়ে লাগিয়ে রাখা হয়। এতে মাংসের রঙ ভালো দেখায়।’

এ বিষয়ে অভিযানে নেতৃত্বে দেওয়া শাহনওয়াজ দিলরুবা খান বলেন, ‘মাংসের দোকানে অভিযান চালানোর সময় আমরা বোতলে পুরে রাখা রক্ত দেখতে পাই। ওই রক্ত তারা কলিজা ও মাংসে লাগিয়ে রাখতেন। আমরা সব রক্ত নষ্ট করে দিয়েছি।’

একই এলাকার আল-কাদেরিয়া রেস্টুরেন্টে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে নানা অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ায় এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি অন্য কোনো সময় অনিয়ম পেলে রেস্টুরেন্টটি সিলগালা করে দেওয়া হবে বলে সতর্ক করা হয়।

এদিন একই সঙ্গে রামপুরার মায়ের দোয়া নামের একটি দধির দোকানে অভিযান চালানো হয়। ওই দোকানে একই ফ্রিজে শুঁটকি মাছ ও দধি রেখে বিক্রি করার দায়ে দোকানটির সব পণ্য নষ্ট করা হয়। এছাড়া আরও কয়েকটি দোকানে অভিযান চালিয়ে সেগুলোর মালিক ও কর্মচারীদের প্রাথমিকভাবে সতর্ক করা হয়। এরপর দোকানগুলোতে অনিয়ম পেলে সিলগালা অথবা মোটা অংকের জরিমানা করা হবে বলে জানান শাহনওয়াজ দিলরুবা খান।


আরও খবর