Logo
শিরোনাম

চন্দ্রিমা ও নিউমার্কেট ফিরে পেতে চান শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২১ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ৩৪৭জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট ও নিউ সুপার মার্কেটে ঢাকা কলেজের সম্পদ, লিজ বাতিল করে কলেজ কর্তৃপক্ষকে এই দুটি মার্কেটে ফিরিয়ে দেওয়াসহ ১০ দফা দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (২০ এপ্রিল) রাতে নিউমার্কেট এলাকার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় ডাকা সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। ঢাকা কলেজের শহীদ আ. ন. ম. নজিব উদ্দিন খান খুররম অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন কথা বলেন, ঢাকা কলেজের স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থী সুজয় বালা ও মাসুম বিল্লাহ।

শিক্ষার্থীরা বলেন, চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট ও নিউ সুপার মার্কেট ঢাকা কলেজের সম্পত্তি। স্বৈরাচারী সরকারের সময় দেওয়া লিজ বাতিল করে আমাদের সম্পত্তি আমাদের ফিরিয়ে দিতে হবে।

এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীরা ১০ দফা দাবি তুলে ধরেন। সেগুলো হলো-

১. এই ন্যক্কারজনক হামলার উস্কানিদাতা, ইন্ধনদাতা ও হামলাকারীদের তদন্ত সাপেক্ষে চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার সব দায়ভার নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিতে হবে।

৩. হকারদের হামলায় নিহত পথচারী নাহিদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

৪. রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সের ওপর হামলাকারীদের ভিডিও ফুটেজ দেখে শনাক্ত করতে হবে। একইসঙ্গে তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে।

৫. দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ডিসি, এডিসি ও নিউ মার্কেট থানার ওসিকে প্রত্যাহার করতে হবে ও পুলিশ প্রশাসনকে কলেজ প্রশাসনের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।

৬. প্রতিটি মার্কেট ও দোকানে সিসিটিভি স্থাপন করতে হবে।

৭. প্রতিটি মার্কেটে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য আচরণ বিধি প্রণয়ন ও তার সুষ্ঠু বাস্তবায়ন।

৮. ফুটপাত দখলমুক্ত, অবৈধ কার পার্কিং উচ্ছেদ ও চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে।

৯. ক্রেতা হয়রানি, নারীদের যৌন হয়রানি বন্ধে একটি বিশেষ মনিটরিং সেল গঠন করে ক্রেতাদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

১০. চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট ও নিউ সুপার মার্কেটে ঢাকা কলেজের সম্পদ লিজ বাতিল করে ফিরিয়ে দিতে হবে।

এছাড়াও এই হামলার প্রধান ইন্ধনদাতা ও পরিকল্পনাকারী অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন, ফরমান মোল্যা, জাহাঙ্গির হোসেন, আমির হোসেন আলমগীর, মিজান, টিপুসহ অন্যান্যদের গ্রেফতারের দাবিও জানান তারা।


আরও খবর



‘ভারত সফরে প্রধানমন্ত্রী সবসময় দিয়ে এসেছেন, কিছু আনেননি’

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2 | ৪৮জন দেখেছেন
Image

ভারত সফরে গেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় দিয়ে এসেছেন, কিছুই আনতে পারেননি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি। সাইফুর রহমান স্মৃতি পাঠাগার এই স্মরণসভার আয়োজন করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে কিছু বলতে চাই না। কারণ আমাদের অভিজ্ঞতা এত তিক্ত, হতাশ হওয়ার মতো। প্রত্যেকবার দেখেছি অত্যন্ত হতাশার সঙ্গে, নিরাশার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ভারতকে দিয়ে এসেছেন কিন্তু নিয়ে আসেননি।

‘আমরা প্রত্যেকবার আশা করেছি যে এবার হয়তো প্রধানমন্ত্রী আমাদের জন্য কিছু নিয়ে আসবেন। দেখেছি তিনি প্রতিবার দিয়ে আসেন কিছু আনেন না। সুতরাং আগে ঘুরে আসুক, কী আনেন দেখি তারপর মন্তব্য করবো।,

মির্জা ফখরুল বলেন, ৭৫ সালে যে রাজনৈতিক পট পরিবর্তন হয়েছিল তার পূর্বে আপনাদের লক্ষ্য রাখতে হবে সেটা ছিল সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতি। যারা (আওয়ামী লীগ) সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতিতে বিশ্বাস করত না তারা বললেন আমরা সমাজতন্ত্রী অর্থনীতি প্রতিষ্ঠা করব। তারপরে সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতির কোনো কাঠামোই তৈরি হলো না। যেটা তৈরি হলো সেটা হলো লুটপাটের অর্থনীতি। ৭২-৭৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ছিল সম্পূর্ণ লুটপাটের অর্থনীতি।

‘এখনো একই অবস্থা চলছে প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে। রাস্তা নির্মাণ হচ্ছে, সেতু নির্মাণ হচ্ছে। যে সেতুটা এক বছরে নির্মাণ করা সম্ভব সেটা করছে ১০-১৫ বছরে। ঢাকা থেকে টঙ্গীর যে রাস্তা সেটা আজ ১০ বছর ধরে হচ্ছে।’

সাইফুর রহমানের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, সাইফুর রহমান পড়াশোনা করেছিলেন হিসাববিজ্ঞানের ওপর। সে কারণেই কোনটা করলে লাভ হবে আর কোনটা করলে লাভ হবে না, আর কোনটা করলে ঋণগ্রস্ত হবো আর কোনটা করলে অনেক বেশি লাভবান হব সেটা তিনি খুব ভালো করে জানতেন। সেই কারণে তিনি অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়েছিলেন। যে কাজটা দেশের জন্য ভালো মনে করতেন তিনি সেটাই করতেন। আর সেই কাজটা করার জন্য যা যা করা দরকার ছিল তিনি তাই করতেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা আজকে অত্যন্ত কঠিন একটি সময় অতিক্রম করছি। এ সময় সাইফুর রহমান থাকলে আমাদের রাজনৈতিকভাবে সহযোগিতা করতেন। এই সরকারের যে মূল চেহারা সেটা উন্মোচনেও তিনি সক্ষম হতেন।

রিজার্ভ-জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিসহ অন্যান্য সংকটের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপির এই নেতা বলেন, যে কাজটা দশ হাজার টাকায় হবে সেটা তারা পঞ্চাশ হাজার টাকা খরচ করছে। বাকি চল্লিশ হাজার টাকা তারা (সরকার) নিজেরা ভাগ করে চুরি করে খাচ্ছে।

সভাপতির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সাইফুর রহমান শুধু রাজনীতিবিদই ছিলেন না, তিনি ছিলেন একজন দেশপ্রেমিক। আজকে যারা গায়ের জোরে ক্ষমতায় রয়েছে তারা ইভিএমের মাধ্যমে আবার ক্ষমতায় যাওয়ার চেষ্টা করছে। তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে নেতাদের লুট করা আর লুট করে দেওয়ার সুযোগ তৈরি করা, ধনী হওয়ার সুযোগ তৈরি করে দেওয়া। সাইফুর রহমান ইচ্ছে করলে এই সুযোগ করে দিতে পারতেন। কিন্তু দেশের জনগণের কথা চিন্তা করে একটি লোকেরও এই সুযোগ করে দেননি তিনি।

খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় দলটির ভাইস চেয়ারম্যান ড. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানুল্লাহ আমান, বিএনপি নেতা নাজিমুদ্দিন আলম ও কামরুজ্জামান রতন বক্তব্য দেন।


আরও খবর



ম্যানেজার পদে নিয়োগ দেবে বিকাশ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

বিকাশ লিমিটেডে ‘ম্যানেজার/ডিজিএম’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: বিকাশ লিমিটেড
বিভাগের নাম: গ্রোথ, টেলিকম পেমেন্ট

পদের নাম: ম্যানেজার/ডিজিএম
পদসংখ্যা: ০১ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক
অভিজ্ঞতা: ০৪-০৫ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: যে কোনো স্থান

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



‘সাবেক এমপি নুরুলকে মারধরের ঘোষণা আগেই দিয়েছিল আওয়ামী লীগ’

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

 

বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনিকে মারধরের ঘোষণা একদিন আগেই উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা দিয়েছিল বলে দাবি করেছে বরগুনা জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা।

বরগুনার পাথরঘাটায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংঘর্ষের পর রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টায় বরগুনা জেলা বিএনপি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন জেলা বিএনপির সভাপতি মাহবুবুল আলম ফারুখ মোল্লা।

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বরগুনা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি পাথরঘাটায় যাওয়ার খবরে পাথরঘাটাবাসী ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা উৎসাহিত হয়। জনসমর্থন দেখে পাথরঘাটার আওয়ামী লীগ নেতারা মনির সব কর্মসূচিতে না যাওয়ার জন্য পাথরঘাটা বাজারের সবাইকে আগেই সবধান করে দেয় এবং ঘোষণা দেয় নুরুল ইসলাম মনি পাথরঘাটা ঢুকতে চাইলে তাকে ও তার সমর্থকদের পিটানো হবে। সেই ঘোষণা অনুযায়ী রোববার সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি পাথরঘাটায় যাওয়ার পথে তাকে ও তার সমর্থকদের মারধর করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

আরও পড়ুন>> বরগুনায় আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংঘর্ষে শতাধিক মোটরসাইকেল ভাঙচুর

এ ঘটনায় সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি, পাথরঘাটা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক চৌধুরী মোহাম্মাদ ফারুখ, সদস্যসচিব এম কামরুল ইসলামসহ ৫০ জন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়।

এর আগে রোববার বিকেলে ঢাকা-পাথরঘাটা মহাসড়কে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় শতাধিক মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।


আরও খবর



দিল্লিতে পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১৬জন দেখেছেন
Image

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতের নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় (বাংলাদেশ সময়) প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি চার্টার্ড ফ্লাইটটি নয়াদিল্লির পালাম বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান ভারতের রেল ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী দর্শনা বিক্রম এবং ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মুহাম্মদ ইমরান। বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর শেখ হাসিনাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এসময় ছয় থেকে সাত সদস্যের একটি সাংস্কৃতিক দল নৃত্য ও বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যাকে স্বাগত জানান।

প্রধানমন্ত্রী এ সফরে ব্যবসা-বাণিজ্য, জ্বালানি, অভিন্ন নদ-নদীর পানি বণ্টন ও রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সহযোগিতা আলোচ্যসূচির শীর্ষে থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শেখ হাসিনা ভারত সফরের দ্বিতীয় দিনে ৬ সেপ্টেম্বর হায়দরাবাদ হাউসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা ও একান্ত বৈঠক করার কথা রয়েছে। দ্বিপাক্ষিক আলোচনার পর দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এবং পরে একটি প্রেস বিবৃতি জারি করা হবে।

হায়দ্রাবাদ হাউসে পৌঁছালে তাকে অভ্যর্থনা জানাবেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিক গার্ড অব অনার পরিদর্শন করবেন। শেখ হাসিনা পরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক তার সম্মানে আয়োজিত মধ্যাহ্নভোজনে যোগ দেবেন।

আজ রাজঘাটে মহাত্মা গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর কথা রয়েছে শেখ হাসিনা। ৬ সেপ্টেম্বর তিনি ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট জগদীপ ধনখারের সঙ্গে পৃথক সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। একই দিনে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তার দেখা করার কথা রয়েছে।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন এবং ভারতের উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের উন্নয়ন মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি এবং নোবেল বিজয়ী কৈলাশ সত্যার্থী ৭ সেপ্টেম্বর তার সঙ্গে পৃথক সাক্ষাৎ করবেন। আদানি গ্রুপ চেয়ারম্যান গৌতম আদানিও ৫ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে বৈঠক এবং ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় শহীদ বা গুরুতর আহত ভারতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর কর্মকর্তাদের বংশধরদের ‘মুজিব বৃত্তি’ প্রদানের একটি অনুষ্ঠানে ভাষণ দেবেন বলে।

প্রধানমন্ত্রী ৮ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ফেরার আগে রাজস্থানের খাজা গরিব নওয়াজ দরগাহ শরীফ, আজমির (আজমির শরীফ দরগাহ) এবং ৫ সেপ্টেম্বর ভারত সফরের প্রথম দিনে দিল্লিতে নিজামুদ্দিন আউলিয়া দরগাহ পরিদর্শন করবেন।


আরও খবর



সহপাঠীর মৃত্যু: সড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

প্রাইভেটকারের ধাক্কায় সহপাঠী মৃত্যুর ঘটনায় রাজধানীতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে ফার্মগেটের মূলসড়ক এরপর বিজয় সরণি মোড়ে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। দুপুর ১টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে রাখে। প্রথমে সরকারি বিজ্ঞান স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়কে এলে পরে আশপাশের আরও কয়েকটি স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ অংশ নেন।

এতে করে ফার্মগেট ও বিজয় সরণীসহ আশপাশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অবরোধের কারণে স্থবির হয়ে পড়ে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক। এসময় শিক্ষার্থীরা তাদের সহপাঠীর মৃত্যুর ঘটনায় বিচার দাবি করেন।

jagonews24

বিক্ষোভের সময় শিক্ষার্থীদের শান্ত করতে কলেজগুলোর শিক্ষক ও পুলিশকে দৌড়ঝাঁপ করতে দেখা যায়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজয় সরণি মোড়ে উপস্থিত হন তেজগাঁও জোনের এডিসি রোবায়েত হাসান। তিনি ও কলেজ শিক্ষকরা বুঝিয়ে শিক্ষার্থীদের সরিয়ে ফার্মেগেটে নিয়ে যান।

শহিদুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের কলেজের স্কুলের সামনে দিয়ে যত্রতত্রভাবে গাড়ি চলাচল করে। অনেক গতিতে গাড়ি চলাচল করলেও পুলিশ কখনো ব্যবস্থা নেয়নি। আমার এক সহপাঠী খুন হলো। বিচার কখনো হয় না। তাই বিচারের দাবিতে আমরা সড়ক অবরোধ করেছি।

সরকারি বিজ্ঞান স্কুল ও কলেজের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী রনি বলেন, আমরা চাই নিরাপদ সড়ক। শুধু আমাদের সহপাঠী কেন, কোনো শিক্ষার্থীর যেন সড়কে নির্মমভাবে মৃত্যু না হয় সেটা নিশ্চিত করার দায়িত্ব পুলিশের।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে এডিসি রোবায়েত হাসান বলেন, রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকার বিজি প্রেসের সামনের রাস্তা পার হওয়ার সময় প্রাইভেটকারের ধাক্কায় আলী হোসেন নামে এক শিক্ষার্থী নিহত হয়। সে সরকারি বিজ্ঞান কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

jagonews24

ওই ঘটনায় তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় মামলা হয়েছে। ঘাতক প্রাইভেটকার ও গাড়িচালককে শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানান এডিসি।

এর আগে রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল পৌনে ৭টার দিকে একটি প্রাইভেটকারের ধাক্কায় আহত হন আলী হোসেন। তিনি সরকারি বিজ্ঞান কলেজের ছাত্র।

আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


আরও খবর