Logo
শিরোনাম

চন্দ্রিমা ও নিউমার্কেট ফিরে পেতে চান শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২১ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ১৩১জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট ও নিউ সুপার মার্কেটে ঢাকা কলেজের সম্পদ, লিজ বাতিল করে কলেজ কর্তৃপক্ষকে এই দুটি মার্কেটে ফিরিয়ে দেওয়াসহ ১০ দফা দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (২০ এপ্রিল) রাতে নিউমার্কেট এলাকার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় ডাকা সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। ঢাকা কলেজের শহীদ আ. ন. ম. নজিব উদ্দিন খান খুররম অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন কথা বলেন, ঢাকা কলেজের স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থী সুজয় বালা ও মাসুম বিল্লাহ।

শিক্ষার্থীরা বলেন, চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট ও নিউ সুপার মার্কেট ঢাকা কলেজের সম্পত্তি। স্বৈরাচারী সরকারের সময় দেওয়া লিজ বাতিল করে আমাদের সম্পত্তি আমাদের ফিরিয়ে দিতে হবে।

এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীরা ১০ দফা দাবি তুলে ধরেন। সেগুলো হলো-

১. এই ন্যক্কারজনক হামলার উস্কানিদাতা, ইন্ধনদাতা ও হামলাকারীদের তদন্ত সাপেক্ষে চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার সব দায়ভার নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিতে হবে।

৩. হকারদের হামলায় নিহত পথচারী নাহিদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

৪. রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সের ওপর হামলাকারীদের ভিডিও ফুটেজ দেখে শনাক্ত করতে হবে। একইসঙ্গে তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে।

৫. দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ডিসি, এডিসি ও নিউ মার্কেট থানার ওসিকে প্রত্যাহার করতে হবে ও পুলিশ প্রশাসনকে কলেজ প্রশাসনের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।

৬. প্রতিটি মার্কেট ও দোকানে সিসিটিভি স্থাপন করতে হবে।

৭. প্রতিটি মার্কেটে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য আচরণ বিধি প্রণয়ন ও তার সুষ্ঠু বাস্তবায়ন।

৮. ফুটপাত দখলমুক্ত, অবৈধ কার পার্কিং উচ্ছেদ ও চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে।

৯. ক্রেতা হয়রানি, নারীদের যৌন হয়রানি বন্ধে একটি বিশেষ মনিটরিং সেল গঠন করে ক্রেতাদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

১০. চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট ও নিউ সুপার মার্কেটে ঢাকা কলেজের সম্পদ লিজ বাতিল করে ফিরিয়ে দিতে হবে।

এছাড়াও এই হামলার প্রধান ইন্ধনদাতা ও পরিকল্পনাকারী অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন, ফরমান মোল্যা, জাহাঙ্গির হোসেন, আমির হোসেন আলমগীর, মিজান, টিপুসহ অন্যান্যদের গ্রেফতারের দাবিও জানান তারা।


আরও খবর



শরৎচন্দ্র পণ্ডিতের মজার ঘটনা: ট্যাক্সি ভাড়া

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

দাদাঠাকুর শরৎচন্দ্ৰ পণ্ডিতের ভক্তের অভাব ছিল না। কলকাতা হাইকোর্টের অ্যাটর্নি নির্মলচন্দ্র তার খুব বড় ভক্ত ছিলেন। দাদাঠাকুর ঘুরে ঘুরে পত্রিকা বিক্রি করেন দেখে নির্মলচন্দ্র একদিন তাকে বলেন, ‘আপনি বিদূষক বিক্রি করার পর প্রতিদিন বিকেল পাঁচটার সময় আমার বাড়িতে বৈকালিক জলযোগ সারবেন।’

কথামত দাদাঠাকুর বিকাল পাঁচটায় জলযোগ সেরে আবার পত্রিকা বিক্রি করতে বের হতেন। একদিন নির্মলচন্দ্রের বাড়িতে দাদাঠাকুরের নৈশভোজনের নিমন্ত্রণ হলো। নির্মলচন্দ্রের মা একটি ব্ৰত পালন করছিলেন। সেই উপলক্ষে এই নিমন্ত্রণ।

নির্মলচন্দ্র দাদাঠাকুরকে তৃপ্তি করে খাওয়ালেন। খাওয়ার শেষে হাত মুখ ধুয়ে দাদাঠাকুর নির্মলচন্দ্রের মা-কে বললেন, ‘বেশ খেলাম, এবার আসি, অনেক রাত হলো, আমাকে অনেকটা পথ যেতে হবে।’

নির্মলচন্দ্রের মা তখন নির্মলচন্দ্ৰকে বললেন, ‘বাবা নির্মল, দেখিস, পণ্ডিতমশাই যেন পায়ে হেঁটে বাড়ি না যান, উনাকে পাথেয় দিস।’

মায়ের নির্দেশমত নির্মলচন্দ্ৰ দাদাঠাকুরকে ওয়েলিংটন থেকে বাগমারি পর্যন্ত তিন টাকা ট্যাক্সিভাড়া দিয়ে বললেন, ‘পণ্ডিতমশাই, এত রাতে আপনাকে আর পায়ে হেঁটে যেতে হবে না, একটা ট্যাক্সি নিয়ে নেবেন।’

দাদাঠাকুর টাকাটা নিয়ে ট্যাঁকে গুঁজে রেখে প্রতিদিনের অভ্যাসমত পায়ে হেঁটেই ফিরলেন। পরের দিন আড্ডার আসরে এলে নির্মলচন্দ্রের সামনেই দাদাঠাকুর রসিকতা করে গতরাতের উপরি উপার্জনের কথা সকলের সামনে বললেন। নির্মলচন্দ্র অবশ্য সে দিন কিছু বললেন না।

এর কিছুদিন পর নির্মলচন্দ্রের বাড়িতে আবার নৈশভোজের নিমন্ত্রণ হলো দাদাঠাকুরের। খাওয়া দাওয়া শেষে বাড়ি ফেরার সময় আগের দিনের মতো নির্মলচন্দ্ৰ দাদাঠাকুরকে আবার তিন টাকা দিলেন এবং চাকরকে ডেকে বললেন, ‘ওরে, দাদাঠাকুরের জন্য একটা ট্যাক্সি ডেকে দে তো, উনি বাড়ি ফিরবেন।’

কথামত চাকর ট্যাক্সি ডেকে দিলেন। একপ্রকার বাধ্য হয়েই হাসতে হাসতে দাদাঠাকুর ট্যাক্সিতে চলেন। পরের দিন খাওয়া দাওয়া শেষে বাড়ি ফেরার সময় নির্মলচন্দ্র সবার সামনে হাসতে হাসতে দাদাঠাকুরকে জব্দ করার কথা বললেন। দাদাঠাকুর সব শুনে মুচকি হেসে বললেন, ‘আপনি ভাবছেন গতরাতে আমাকে জব্দ করেছেন! ভাবছেন আমাকে ট্যাক্সিতে পুরে দিয়ে বাড়ি পাঠিয়েছেন!

মোটেই না। কারণ আমি বাড়ি পর্যন্ত পুরো পথ ট্যাক্সিতে যাইনি। মেডিকেল কলেজের সামনে নেমে আটআনা ভাড়া দিয়ে ট্যাক্সিওলাকে বিদায় করেছি। এবার অঙ্ক কষে দেখুন। আপনি কত পারসেন্ট আমাকে ঠকিয়েছেন আর কত পারসেন্ট নিজে ঠকেছেন!’

লেখা: সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত

প্রিয় পাঠক, আপনিও অংশ নিতে পারেন আমাদের এ আয়োজনে। আপনার মজার (রম্য) গল্পটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়। লেখা মনোনীত হলেই যে কোনো শুক্রবার প্রকাশিত হবে।


আরও খবর



টবে পেয়ারা চাষের সহজ পদ্ধতি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

এখন বাসার ছাদে অনেকেই পেয়ারা গাছ লাগানোর জন্য বেশ আগ্রহী। টবে পেয়ারা চাষ পদ্ধতি স্বাভাবিকভাবেই জমিতে চাষ পদ্ধতির চেয়ে আলাদা। এ পদ্ধতিতে পেয়ারা চাষ করতে হলে বেশ কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

সাধারণত শহর অঞ্চলে বাড়ির ছাদে টবে অনেকেই পেয়ারা চাষ করেন। টবে পেয়ারা চাষ পদ্ধতি জনপ্রিয় হওয়ার কারণ হলো সহজে পরিচর্যা করা যায় এবং এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় সহজে সরানো যায়।

টবে পেয়ারা চাষ করতে হলে সর্বপ্রথম যে বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে তা হলো সর্বনিম্ন টবের আকার ১৮ থেকে ২০ ইঞ্চি হতে হবে। এছাড়া ড্রাম বা টবের আকার যত বড় হবে ততই ভালো।

পেয়ারা গাছের জন্য টবের মাটি তৈরি করতে হলে খেয়াল রাখতে হবে এর প্রয়োজন মতো সবগুলো পুষ্টি উপাদান যেন মাটির মধ্যে থাকে। এখানে ১৮ ইঞ্চির একটি টবের জন্য সারের মাত্রা উল্লেখ করা হলো।

মাটি তৈরি করার জন্য প্রথমে দুই ভাগ মাটি ও এক ভাগ গোবর সঠিকভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর এই মিশ্রণের সঙ্গে ১৩০ গ্রাম টিএসপি ও ৭০ গ্ৰাম এমপি সার মিশিয়ে নিতে হবে। এছাড়া টবের গোড়ায় ফুটো থাকা আবশ্যক।

পেয়ারা গাছ রোপণ করলে সঠিকভাবে এর সেচের ব্যবস্থা করতে হবে। অতিরিক্ত পানি পেয়ারা গাছের জন্য ক্ষতিকর। এজন্য পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়া পরিচর্চার অন্যান্য কাজের মধ্যে অপ্রয়োজনীয় ডালপালা ছাঁটাই করা একটি প্রধান কাজ। সাধারণত পেয়ারা গাছের পুরোনো ডালে কোনো ফল আসে না। অপেক্ষাকৃত নতুন ডালে ভালো ফল হয়।

পেয়ারা গাছে সাধারণত বছরে তিনবার ফুল আসতে দেখা যায়। এ কারণে ফাল্গুন-আষাঢ় ও কার্তিক মাসে কাছে আলাদা কিছু সার প্রয়োগ করতে হয় । ১ গোবর ৫ কেজি, ২ ইউরিয়া ৮০ গ্ৰাম, ৩ ফসফরাস ১৫০ গ্ৰাম এবং ৪ পটাশ ১০০ গ্ৰাম পেয়ারা গাছের গোড়া থেকে যথেষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে মাটিতে মিশিয়ে দিতে হবে।

পেয়ারা গাছের রোগবালাই দমন পদ্ধতি অন্যান্য গাছের থেকে একটু ভিন্ন। পেয়ারা গাছের পাতা নতুন হলে অনেক সময় দেখা যায় পোকা এগুলোকে ফুটো করে ফেলে। যার ফলে ফলন ব্যাঘাত ঘটে এই সমস্যা থেকে মুক্তির জন্য প্রতি ১০ লিটার পানিতে ১০ গ্রাম পরিমাণ ডেরিস বা ২০ গ্ৰাম ডারবাসন ব্যবহার করতে হবে।

এই সমস্যা সাধারণত ছত্রাকের কারণে হয়। প্রতিকার হিসেবে ব্যভিসটিন ঔষধ এক লিটার পানিতে এক গ্ৰাম পরিমাণে মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে। পেয়ারা গাছে ফুল আসার আগে রিপকরড অথবা ভেজিম্যাক্স সঠিক মাত্রায় ব্যবহার করতে হবে।

এছাড়া গাছকে সব সময় সুস্থ-সবল ও সবুজ রাখতে সবুজ সার ব্যবহার করতে হবে। এই সার বিভিন্ন সবজির পচা অংশ, গোবর অথবা সরিষার খৈল পানিতে ভিজিয়ে নিজেই তৈরি করা যায়।


আরও খবর



চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ মঙ্গলবার

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৯৫জন দেখেছেন
Image

রোববার সন্ধ্যায় দেশের আকাশে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। মঙ্গলবার (৩ মে) মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।

রোববার (১ মে) সন্ধ্যায় রাজধানীর বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দীনি দাওয়াত ও সংস্কৃতি বিভাগে ফোন করে ৬৪ জেলা থেকে ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালকরা চাঁদ দেখা যায়নি বলে জানিয়েছেন।

কিছুক্ষণের মধ্যে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি চাঁদ দেখা না যাওয়ায় মঙ্গলবার ঈদুল ফিতর উদযাপনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে।

বিস্তারিত আসছে...


আরও খবর



সংক্ষিপ্ত বিশ্ব সংবাদ: ১২ মে ২০২২

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

আমাদের চারপাশে অসংখ্য ঘটনা ঘটছে প্রতিদিনই। এর মধ্যে হয়তো আলোচনায় আসে হাতেগোনা কিছু। তবে সময় ও পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে বেশকিছু বিষয়। এগুলো জানা না থাকলে অনেক ক্ষেত্রেই পিছিয়ে পড়তে হয়। এ কারণে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা থেকে সংক্ষেপে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সংবাদ থাকছে জাগো নিউজের পাঠকদের জন্য-

শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন রনিল বিক্রমাসিংহে
সংকটকালে শ্রীলঙ্কার নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন রনিল বিক্রমাসিংহে। বৃহস্পতিবার (১২ মে) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে শপথবাক্য পাঠ করান লঙ্কান প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। ৭৩ বছর বয়সী অভিজ্ঞ এ রাজনীতিবিদ শ্রীলঙ্কার ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টির (ইউএনপি) নেতা। লঙ্কান সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর জানিয়েছে, প্রেসিডেন্টের সরকারি বাসভবনে শপথ নেন বিক্রমাসিংহে এবং তারপর আশীর্বাদ নিতে ওয়ালুকারমা মন্দিরে যান।

মাহিন্দা রাজাপাকসে ও তার মিত্রদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
শ্রীলঙ্কায় সদ্য পদত্যাগকারী প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে ও তার মিত্রদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ মে) মাহিন্দা, তার রাজনীতিবিদ পুত্র নামাল ও আরও ১৫ মিত্রকে দেশত্যাগ করতে নিষেধ করেছেন স্থানীয় একটি আদালত। সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ওপর সহিংসতার অভিযোগে তাদের ওপর এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

সাংবাদিক হত্যা: ইসরায়েলের বিরুদ্ধে দেশে দেশে কড়া প্রতিক্রিয়া
ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি অভিযানের খবর সংগ্রহের সময় কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার সাংবাদিক শিরীন আবু আকলেহকে গুলি করে হত্যা করেছে দখলদার বাহিনী। এ ঘটনার পর কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বিশ্ব। যারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের শাস্তির আওতায় আনারও দাবি জানানো হয়েছে।

পাম অয়েল রপ্তানি নিষিদ্ধ করে বিপাকে ইন্দোনেশিয়া
বৈশ্বিক ভোজ্যতেলের বাজারে দীর্ঘদিন ধরে রাজত্ব করে আসছে ইন্দোনেশিয়া। বৈশ্বিক চাহিদার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ ভোজ্যতেল সরবরাহ করে দেশটি। তবে তাদের ‘অননুমেয়’ রপ্তানি নীতির কারণে প্রায়ই সমস্যায় পড়তে হয় আমদানিকারকদের। এর সবশেষ উদাহরণ, হুট করে পাম অয়েল রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়া। ইন্দোনেশীয় সরকারের এমন একক সিদ্ধান্তের প্রভাবে এরই মধ্যে বিশ্বব্যাপী বেড়ে গেছে ভোজ্যতেলের দাম, চাহিদা মেটাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানের মতো দেশগুলোকে। তবে পাম অয়েল রপ্তানি নিষিদ্ধ করে খুব একটা স্বস্তিতে নেই ইন্দোনেশিয়াও।

মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দিলে কঠোর শাস্তি
রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিষয়ে মালয়েশিয়া কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে। এরই মধ্যে স্থানীয়দের সতর্ক করা হয়েছে। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় কিংবা তথ্য গোপন রাখলে কঠোর শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক খাইরু দাজায়মি দাউদ। বৃহস্পতিবার (১২ মে) এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দিলেঅভিবাসন আইনের ৫৬ ধারায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দোষী প্রমাণিত হলে পাঁচ হাজার রিঙ্গিত জরিমানা ও এক থেকে পাঁচ বছরের বেশি জেল হতে পারে।

অন্ধ্র প্রদেশে আঘাত হেনেছে ‘অশনি’
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’ শক্তি হারিয়ে বুধবার (১১মে) রাতে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ উপকূলে আঘাত হেনেছে। উপকূলীয় জেলাগুলোতে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। সেখানে ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইছে বলে জানিয়েছে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ।

উত্তর কোরিয়ায় ‘প্রথমবার’ করোনা শনাক্ত, লকডাউনে পুরো দেশ
উত্তর কোরিয়ায় করোনা সংক্রমণের কথা শুরু থেকেই অস্বীকার করে আসছিলেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। অবশেষে সেখানে মহামারি ছড়িয়ে পড়ার কথা স্বীকার করেছে কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুরো দেশে লকডাউন জারি করা হয়েছে।

চীনে রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে প্লেনে আগুন
রানওয়েতে ছিটকে পড়ে চীনে একটি প্লেনে আগুন ধরে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (১২ মে) দেশটির চংকিং বিমানবন্দরে এ ঘটনা ঘটে। তবে তিব্বত এয়ারলাইনসের প্লেনটির সব যাত্রী নিরাপদে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। জানা গেছে, ১১৩ জন যাত্রী ও নয়জন ক্রু নিয়ে প্লেনটি দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর চংকিং থেকে তিব্বতের নাইংচির দিকে যাচ্ছিল। কিন্তু একজন ক্রু অস্বাভাবিক কিছু লক্ষ্য করার পর প্লেনটির উড্ডয়ন বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপরই প্লেনটিতে আগুন ধরে যায়।


আরও খবর



দুই টপারের প্লে-অফে ওঠার লড়াইয়ে ব্যাটিংয়ে গুজরাট

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৪২জন দেখেছেন
Image

 

দুই দলই জিতেছে সমান আটটি করে ম্যাচ, হেরেছে সমান তিনটি করে ম্যাচ। নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় এক নম্বরে রয়েছে লখনৌ সুপার জায়ান্টস, তাদের নিচেই অবস্থান গুজরাট টাইটান্সের। আজ মুখোমুখি এ দুই দল।

পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে আজকের ম্যাচটি যারা জিতবে, তারাই প্রথম দল হিসেবে পেয়ে যাবে প্লে-অফের টিকিট। এমন সমীকরণের ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাটিং নিয়েছেন গুজরাটের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া।

সবশেষ দুই ম্যাচ হেরে যাওয়া গুজরাট নিজেদের একাদশে এনেছে তিন পরিবর্তন। বাদ দেওয়া হয়েছে লকি ফার্গুসন, সাঁই সুদর্শন ও প্রদীপ সাংওয়ানকে। দলে এসেছেন ম্যাথু ওয়েড, সাঁই কিশোর ও ইয়াশ দয়াল। লখনৌ একাদশে রবি বিষ্ণুইর জায়গায় এসেছেন কারান শর্মা।

গুজরাট টাইটান্স একাদশ: ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটরক্ষক), শুভমান গিল, ম্যাথু ওয়েড, হার্দিক পান্ডিয়া (উইকেটরক্ষক), ডেভিড মিলার, রাহুল তেয়াতিয়া, রশিদ খান, সাঁই কিশোর, আলজারি জোসেফ, ইয়াশ দয়াল ও মোহাম্মদ শামি।

লখনৌ সুপার জায়ান্টস একাদশ: কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), লোকেশ রাহুল (অধিনায়ক), দীপক হুদা, ক্রুনাল পান্ডিয়া, আয়ুশ বাদোনি, মার্কাস স্টয়নিস, জেসন হোল্ডার, কারান শর্মা, দুশমন্থ চামিরা, আভেশ খান ও মহসিন খান।


আরও খবর