Logo
শিরোনাম

ধর্ষণচেষ্টার শিকার হয়ে বিষ পান করা তরুণীর মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ১১৫জন দেখেছেন
Image

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় বখাটেদের ধর্ষণচেষ্টার শিকার হয়ে বিষ পান করা লিপি খাতুন (১৮) রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। তিনি এ বছর উপজেলার জালশুকা হাবিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজ থেকে জিপিএ ৫ পেয়ে এইচএসসি পাস করেছিলেন। লিপি উপজেলার চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের কৈগাতী গ্রামের কৃষক ফজলুল হকের মেয়ে। এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার সকালে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

গত ১২ এপ্রিল সকালে ওই ধর্ষণচেষ্টার পরই ছাত্রীর বাবা ফজলুল হক বাদী হয়ে পাশের রুদ্রবাড়িয়া গ্রামের বাবুল, রফিকুলসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। কিন্তু অভিযোগটি আমলে নেয়নি পুলিশ। তবে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে ওই ছাত্রীর মৃত্যুর খবর পেয়ে ফজলুল হকের অভিযোগটি থানায় মামলা হিসেবে রেকর্ড করেছে পুলিশ।     

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লিপি খাতুনকে প্রায় দুই বছর ধরে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন দুই সন্তানের জনক বাবুল মিয়া (৪০)। কিন্তু বাবুলের কুপ্রস্তাবে সাড়া দেননি লিপি। তাঁর বাবা অতিষ্ঠ হয়ে গ্রামের মাতবরদের কাছে এর বিচার চান। কিন্তু মাতবররাও এ ঘটনার কোনো সুরাহা করতে পারেননি। বিচার চাওয়ার পর থকে আরো ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন বাবুল মিয়া।

গত ১২ এপ্রিল সকাল ৯টার দিকে ফজলুল হকের বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে বাবুল ও তাঁর সঙ্গী রফিকুল (৪২) লিপির ঘরে প্রবেশ করেন। এরপর অস্ত্রের মুখে তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান বাবুল। নিজেকে রক্ষা করতে লিপি চিৎকার করলে আশপাশের বাড়ির লোকজন ছুটে এলে বাবুল ও রফিকুল সটকে পড়েন।

এ ঘটনায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত লিপি সকাল ১০টার দিকে ঘরে থাকা আগাছা দমনের বিষ পান করেন। স্বজনরা তাঁকে প্রথমে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে ওই দিনই বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এবং পরের দিন রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে লিপি মারা যান।

লিপির বাবা ফজলুল হক বলেন, ‘মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার বিচার গ্রামের মাতবরদের কাছে চেয়েও পাইনি। থানায় অভিযোগ দিলেও পুলিশ খোঁজখবর নেয়নি। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই। আমার মেয়ের মতো যেন আর কারো মেয়েকে এভাবে জীবন দিতে না হয়। ’

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, অভিযোগটি তদন্ত সাপেক্ষে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



নৌবিহারে গিয়ে জামিন বাতিল হওয়া শাল্লার সেই মনিরের ফের জামিন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৩০জন দেখেছেন
Image

একাত্তরে সংঘটিত হত্যা-গণহত্যাসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামিনের শর্ত ভঙ্গ করে নৌবিহারে গিয়ে জামিন বাতিল হওয়া জোবায়ের মনিরের (৬২) ফের জামিন মঞ্জুর করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

এবার অসুস্থতার কারণে ঢাকায় থেকে চিকিৎসা করানোসহ বেশ কয়েকটি শর্তে তাকে জামিন দেওয়া হয়েছে। একই মামলার অপর এক আসামিকেও জামিন দেওয়া হয়েছে বলে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট রেজিয়া সুলতানা চমন।

বৃহস্পতিবার (১২মে) চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এই আদেশ দেন। ট্রাইব্যুনালের অপর সদস্যরা হলেন বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার এবং বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলম।

আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে আইনজীবী ছিলেন প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমন। অন্যদিকে আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. মুজাহিদুল ইসলাম শাহীন।

এ বিষয়ে প্রসিকিউটর বলেন, শর্ত সাপেক্ষে ২০২০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি তাকে জামিন দিয়েছিলেন ট্রাইব্যুনাল। কিন্তু জামিনের শর্ত না মেনে তিনি সুনামগঞ্জে গিয়েছিলেন। সেখানে দলবল নিয়ে নৌবিহার করেন। এসব কারণে ২০২০ সালের ৯ আগস্ট তার জামিন বাতিল করেন ট্রাইব্যুনাল।

ওই মামলায় আজ তিনি ফের জামিন পেয়েছেন। তার সঙ্গে আরও একজন আসামিকে জামিন দেওয়া হয়েছে।

এদিকে মোহাম্মদ জুবায়ের হোসেন মনিরসহ ১১ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন হয়েছে। আগামী ২২ জুন এই মামলায় ওপেনিং স্টেটমেন্ট ও রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ঠিক করেছেন আদালত।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ জোবায়ের মনিরসহ অপরাধে সম্পৃক্তদের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ জমা দেওয়া হয়।


আরও খবর



প্রথম টেস্টে খেলবেন সাকিব: মুমিনুল

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৩৫জন দেখেছেন
Image

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রামে আগামীকাল থেকে শুরু হতে যাওয়া প্রথম টেস্টে খেলবেন সাকিব। আজ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কারণে সাকিব আল হাসান শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু টেস্ট শুরুর দু’দিন আগে করোনামুক্ত হয়ে যান সাকিব এবং শুক্রবার বিকেলেই তিনি চট্টগ্রাম পৌঁছে যান, উদ্দেশ্য প্রথম টেস্টে খেলা।

কিন্তু সমস্যা দেখা দেয়, প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর বক্তব্য। তিনি জানিয়ে দেন, ৫০ কিংবা ৬০ ভাগ ফিট সাকিবকে চাই না। ম্যাচ খেলার জন্য পুরোপুরি ফিট হতে হবে।

আজ শনিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সকাল থেকে কঠোর অনুশীলন করে যাচ্ছিলেন সাকিব। ১৫ মে থেকে শুরু হতে যাওয়া টেস্টে খেলার জন্য তার মধ্যে দেখা যাচ্ছিল মরিয়া প্রচেষ্টা।

এরপরই সংবাদ সম্মেলনে এসে প্রথমেই সাকিবের খেলা না খেলা বিষয়ক প্রশ্নের সম্মুখিন হন মুমিনুল হক। সেখানেই তিনি বলেন, ‘(অনুশীলনে) দেখে তো ভালোই মনে হলো। ভালো অনুশীলন করলেন। খেলবেন ইনশাআল্লাহ।'

বিস্তারিত আসছে


আরও খবর



প্রথম প্রান্তিকে এনআরবিসি ব্যাংকের ইপিএস দ্বিগুণ

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
Image

পুঁজিবাজারে নিবন্ধিত বেসরকারিখাতের এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংকের প্রথম প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ও মোট সম্পদ (এনএভি) বেড়েছে। ২০২২ সালের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে সমন্বিতভাবে ব্যাংকের ইপিএস ১১২ শতাংশ বা দ্বিগুণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৯ পয়সায়। গত বছরের জানুয়ারি-মার্চে যা ছিল ৪২ পয়সা। আলোচ্য সময়ে এককভাবে ইপিএস ৩৯ পয়সা থেকে বেড়ে হয়েছে ৭৬ পয়সা।

ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ১৪০তম সভায় চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ) অনুমোদিত অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের মার্চ শেষে সমন্বিত হিসাবে ব্যাংকটির ব্যালান্সশিটের আকার দাঁড়িয়েছে ২৫ হাজার ৭৬০ কোটি ৫২ লাখ ৮৭ হাজার ২২৮ টাকা। গত বছরের মার্চে যা ছিল ১৬ হাজার ২৫১ কোটি ৭৪ লাখ ৫ হাজার ৭০১ টাকা।

এছাড়া সমন্বিতভাবে চলতি বছরের মার্চে ব্যাংকটির মোট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৬৩ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। গত বছরের ডিসেম্বরে যা ছিল ১ হাজার ১৯৮ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। এককভাবে এনএভি হয়েছে ১ হাজার ২৩৭ কোটি ৩০ লাখ টাকা। গত বছরের ডিসেম্বরে যা ছিল ১ হাজার ১৮০ কোটি ৮৬ লাখ টাকা।

এছাড়া সমন্বিতভাবে ২০২২ সালের মার্চে শেয়ার প্রতি এনএভি দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ১৪ পয়সায়। গত বছরের ডিসেম্বরে যা ছিল ১৬ টাকা ২৫ পয়সা। আর এককভাবে শেয়ারপ্রতি এনএভি দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৭৭ পয়সা, গত ডিসেম্বরে যা ছিল ১৬ টাকা ১ পয়সা।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান এসএম পারভেজ তমালের সভাপতিত্বে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে এই পর্ষদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



স্কুল ছুটি দিয়ে শ্রেণিকক্ষেই কোচিং বাণিজ্য

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ২৮জন দেখেছেন
Image

ফরিদপুরের নগরকান্দায় নির্ধারিত সময়ের আগেই স্কুল ছুটি দিয়ে শ্রেণিকক্ষে কোচিং বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার ১৯নং শাকরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘটনাটি ঘটেছে।

উপজেলার লস্করদিয়া ইউনিয়নে বিদ্যালয়টি অবস্থিত। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নির্ধারিত সময় বিকেল ৪টার আগেই স্কুল ছুটি দিয়ে দেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কাজী মাহবুবুর রহমান।

বুধবার (১৮ মে) বিকেল ৩টার দিকে বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, নির্দিষ্ট সময়ের আগেই স্কুল ছুটি দেওয়া হয়েছে। আর মাত্র দুজন শিক্ষক বাদে সবাই স্কুল থেকে চলে গেছেন। এসময় শ্রেণিকক্ষেই কোচিং চালিয়ে যাচ্ছেন ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুজন কুমার রাহা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন অভিভাবক জাগো নিউজকে বলেন, শিক্ষকদের কাছে আমরা একধরনের জিম্মি হয়ে পড়েছি। পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য বাধ্য হয়েই আলাদা প্রাইভেটে দিতে হচ্ছে।

নির্ধারিত সময়ের আগে ছুটি পেয়ে বাড়ি ফেরা শিক্ষার্থীরা জানান, কোচিংয়ের শিক্ষার্থীদের রেখে শিক্ষক মাহবুব তাদের বাড়ি চলে যেতে বলেছেন।

এ বিষয়ে শিক্ষক কাজী মাহবুবুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, আবহাওয়া প্রচণ্ড গরম তাই বাচ্চারা যার যার মতো করে চলে গেছে।

শ্রেণিকক্ষে কোচিং চালানো শিক্ষক সুজন কুমার রাহা জাগো নিউজকে বলেন, আমার ভুল হয়ে গেছে। এরপর থেকে আর শ্রেণিকক্ষে প্রাইভেট পড়াবো না।

এসময় প্রধান শিক্ষককে স্কুলে পাওয়া যায়নি। বক্তব্যের জন্য মোবাইল ফোনে কয়েকদফায় যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার আইরিন খানম জাগো নিউজকে বলেন, নির্দিষ্ট সময়ের আগে বিদ্যালয় ছুটি দেওয়া অন্যায়। আর শ্রেণিকক্ষে কোনোভাবেই কোচিং করানো যাবে না। আমি এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে দেখবো।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কাজী রাশেদ মামুন জাগো নিউজকে বলেন, শ্রেণিকক্ষে কোচিং নিষিদ্ধ। তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



বাড়িতে ঢুকে ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলেকে হত্যা, স্ত্রী সংকটাপন্ন

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার ঢেউখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মিজান বয়াতির বাড়িতে ঢুকে ১০ বছরের ছেলে রাফসানকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ হামলায় তার স্ত্রী দিলজান বেগম ওরফে রত্না গুরুতর আহত হয়েছেন। তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানা গেছে।

বুধবার (১৮ মে) বিকেল ৪টার দিকে চেয়ারম্যানের উপজেলা সদরের বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভাঙ্গা সার্কেল) ফাহিমা কাদের চৌধুরী বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ঢেউখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. শহীদ সরদার জাগো নিউজকে বলেন, চেয়ারম্যানের গ্রামের বাড়ি চর ডুবাল গ্রামে। তিনি পরিবার নিয়ে সদরপুর উপজেলা সদরের বাসায় থাকেন। যতটুকু জেনেছি পূর্বশত্রুতার জেরে ঢেউখালী গ্রামের মো. ছানু মোল্লার ছেলে এরশাদ মোল্লা (৩৫) এ ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনার পর ক্ষোভে উত্তেজিত জনতা ছানু মোল্লার বাড়িতে আগুন দেয়। ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।


আরও খবর