Logo
শিরোনাম

গোশত ও রক্ত নয়, আল্লাহভীতিই পৌঁছে

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

মুফতী গাজী মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম

আল্লাহ তায়ালার অপার অনুগ্রহে দুটি আজীমুশ্বান এবাদত অর্থাৎ রমজানের রোজা পালন ও হজ্জ সম্পাদন যখন হয়ে যায়, তখন একজন মুসলমান হিসেবে জরুরি হয়ে পড়ে কৃতজ্ঞতা স্বরূপ তাঁর দরবারে কিছু নজরানা পেশ করার, যেই নজরানার নাম কোরবানি। সুতরাং আল্লাহ তাআলার কৃতজ্ঞতা প্রকাশার্থে জিলহজের ১০, ১১ ও ১২ তারিখের ভেতরে তার দরবারে নজরানা পেশ করাই হলো কোরবানি। এ তো রব্বুল আলামীনেরই মেহেরবানী যে, তিনি দু’দুটি আজীমুশ্বান এবাদত করার তৌফিক দিয়েছেন। লক্ষ্য করুন, মাহে রমজান পরিসমাপ্তির পর আসে ঈদুল ফিতর, আর হজ সম্পন্ন করার পরে আগমন ঘটে ঈদুল আজহার। ঈদুল ফিতরের আনন্দের বহিঃপ্রকাশ করতে হয় সদকায়ে ফেতরের মাধ্যমে, আর ঈদুল আজহার আনন্দ উদযাপন করতে হয় কোরবানির মাধ্যমে।

কোরবানি শব্দটি আরবি। এর সমর্থক শব্দ উদ্হিয়্যাহ্। আভিধানিক অর্থ—ত্যাগ, উৎসর্গ ইত্যাদি। শরীয়তের পরিভাষায়, জিলহজ মাসের ১০ তারিখ সকাল থেকে ১২ তারিখ সন্ধ্যা পর্যন্ত আল্লাহর নৈকট্যলাভের জন্য যে পশু জবেহ করা হয়, তাকে কোরবানি বলে।

স্বাধীন, বালেগ, বিত্তবান তথা মালেকে নেসাব, মুকীম, মুসলমানের পক্ষে তার নিজের কোরবানি করা ওয়াজিব। (হেদায়া) সুতরাং কোরবানির নেসাব যাকাতের নেসাবের মতো নয় বরং সদকায়ে ফেতরার নেসাবের সাথে সামঞ্জস্যশীল অর্থাৎ যাকাতের ক্ষেত্রে নেসাব-পরিমাণ মাল মালিকের কাছে একবছর থাকা শর্ত কিন্তু কোরবানির ক্ষেত্রে নেসাব পরিমাণ মাল মালিকের কাছে একবছর থাকা শর্ত নয় বরং সদকায়ে ফেতরের মতো নেছাব পরিমাণ মাল জিলহজ মাসের ১০, ১১ ও ১২ তারিখের যে কোনোদিন মালিক হলে তার ওপর কোরবানি ওয়াজিব হবে। (শামী-পৃ. ১৯৮)

কোরবানির মহত্ব, গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে বিভিন্ন তাফসির ও হাদিস-গ্রন্থে বিস্তারিত আলাচনা করা হয়েছে। কোরবানির মহত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালা এরশাদ ফরমান:

لَنْ يَّنَالَ اللهَ لُحُومُهَا وَلَا دِمَآؤُهَا وَلَٰكِنْ يَّنَالُهُ التَّقْوٰى مِنكُمْ كَذٰلِكَ سَخَّرَهَا لَكُمْ لِتُكَبِّرُوا اللهَ عَلٰى مَا هَدىٰكُمْ وَبَشِّرِ الْمُحْسِنِينَ ـ

অর্থাৎ ‘কোরবানির গোশত ও রক্ত আল্লাহর কাছে পৌঁছে না বরং কোরবানির মধ্য দিয়ে তোমাদের তাকওয়া-পরহেজগারী বা আল্লাহভীতিই তাঁর কাছে পৌঁছে। এমনিভাবে তিনি এগুলোকে তোমাদের বশ করে দিয়েছেন—যাতে তোমরা আল্লাহর মহত্ব ঘোষণা কর। এ কারণে যে, তিনি তোমাদের পথ প্রদর্শন করেছেন। সুতরাং সৎকর্মশীলদের সুসংবাদ শুনিয়ে দাও।’ (সুরা হজ: ৩৯)

তারই আলোকে সংক্ষেপে কিছু ফজিলত ও গুরুত্বের কথা তুলে ধরছি। ইবনে মাজাহ, আহমদ ও মেশকাত শরীফে বর্ণিত আছে—

عَنْ زَيْدِ بْنِ اَرْقَمَ  قَالَ قَالَ اَصْحَابُ رَسُوْلِ اللهِ ﷺ مَا هٰذِهِ الْاَضَاحِىُّ يَا رَسُوْلَ اللهِ قَالَ سُنَّةُ اَبِيْكُمْ اِبْرَاهِيْمَ قَالُوْا فَمَالَنَا فِيْهَا يَارَسُوْلَ اللهِ قَالَ لِكُلِّ شَعْرَةٍ حَسَنَةٌـ قَالُوْا فَالصُّوْفُ يَا رَسُوْلَ اللهِ قَالَ بِكُلِّ شَعْرَةٍ مِّنَ الصُّوْفِ حَسَنَةٌـ

অর্থাৎ ‘হজরত যায়েদ ইবনে আরকাম থেকে বর্ণিত; তিনি বলেন, কতিপয় সাহাবি প্রশ্ন করলেন, ইয়া রাসুলাল্লাহ! এই কোরবানি কি?’ তদুত্তরে হুজুর বললেন, ‘তোমাদের (জাতির) পিতা হজরত ইব্রাহীম (আ.)-এর সুন্নত।’ পুনরায় সাহাবায়ে কেরাম প্রশ্ন করলেন, ‘ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমাদের জন্য কোরবানির মধ্যে কী রয়েছে?’ হুজুর এরশাদ করেছেন, ‘কোরবানির পশুর প্রতি পশমে এক-একটি নেকি মিলবে।’ তখন সাহাবায়ে কেরাম আবার জিজ্ঞেস করলেন, ‘তাহলে কি দুম্বা এবং ভেড়ার প্রতি-পশমের বিনিময়ে ছওয়াব মিলবে?’ হুজুর এরশাদ করলেন, ‘দুম্বা ও ভেড়ার প্রতিটি পশমের বিনিময়েও ছওয়াব মিলবে।’

তিরমিজি ও ইবনে মাজাহ শরীফে বর্ণিত হয়েছে—

عَنْ عَآئِشَةَ رَضِىْ اللهُ عَنْهَا قَالَتْ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ ﷺ مَاعَمِلَ ابْنُ اَدَمَ مِنْ عَمَلِ يَوْمِ النَّحَرِ اَحَبُّ اِلىَ اللهِ عَزَّ وَجَلَّ مِنْ اِهْرَاقِ الدَّمِ واِنَّهُ لَيَاْتِىْ يَوْمَ الْقَيَامَةِ بِقُرُوْنِهَا وَاَشْعَارِهَا وَاَظْلَافِهَا وَاِنَّ الدَّمَ لَيَقَعُ مِنْ اللهِ بِمَكَانٍ قَبْلَ اَنْ يَقَعَ بِالْاَرْضِ فَطِيْبُوْا بِهَا نَفْسًا (روه ابن ماجه)

অর্থাৎ ‘হজরত আয়েশা থেকে বর্ণিত, হজরত রাসুলে করীম (সা.) বলেছেন, আদম সন্তান কোরবানির দিন যেসব নেকির কাজ করে থাকেন তার মধ্যে আল্লাহ পাকের কাছে সবচেয়ে পছন্দনীয় আমল হলো কোরবানি করা। কাল কেয়ামতে কোরবানির পশু তার শিং, পশম ও খুরসহ উপস্থিত হবে (যা কোরবানিদাতার পাল্লায় দেওয়া হবে যাতে নেকির পাল্লা ভারী হয়ে যায়)। কোরবানির পশুর রক্ত জমিনে পরার আগেই তা আল্লাহ পাকের কাছে কবুল হয়ে যায়। অতএব তোমরা এই পুরস্কারে আন্তরিকভাবে খুশি হও।

উল্লেখিত হাদিস দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, কোরবানি একটি গুরুত্বপূর্ণ এবাদত এবং ইসলাম ধর্মের একটি বড় নিদর্শন। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে আল্লাহর প্রিয় নবী হজরত ইব্রাহীমের স্মৃতি রক্ষা করা এবং আল্লাহ পাকের রেযামন্দি লাভ করা।

একদিকে যেমন কোরবানিদাতার জন্য রয়েছে বহু প্রতিদান ও খোশখবরি, অপরদিকে সক্ষম ব্যক্তির পক্ষে কোরবানি না-করা বা অবহেলা করার জন্যও রয়েছে সতর্কবাণী। যেমন- ইবনে মাজাহ শরীফে বর্ণিত হয়েছে:

عَنْ اَبِىْ هُرَيْرَةَ  اَنَّ رَسُوْلَ اللهِ ﷺ قَالَ مَنْ كَانَ لَهٗ سَعَة ٌوَلَمْ يُضَحِّ فَلَا يَقْرُبَنَّ مُصَلَّانَاـ

অর্থাৎ ‘হজরত আবু হুরায়রা থেকে বর্ণিত, হজরত রাসুলে করীম (সা.) এরশাদ করেন, যার কোরবানি করার ক্ষমতা আছে অথচ সে কোরবানি করলো না, সে যেন আমাদের ঈদগাহে না আসে।’

পরিশেষে মহান আল্লাহ পাকের কাছে ফরিয়াদ, কোরআন পাকের ঘোষণা অনুযায়ী আমরা যেন কোরবানির ফজিলত ও গুরুত্ব অনুধাবন পূর্বক আমল করতে পারি এবং ত্যাগের মহিমায় আমাদের জীবন রঙিন করতে পারি। আল্লাহ আমাদের তৌফিক দান করুন। আমীন!

লেখক: অধ্যক্ষ, ঝালকাঠি এন এস কামিল মাদ্রাসা ও খতিব, ঝালকাঠি কেন্দ্রীয় ঈদগাহ জামে মসজিদ।


আরও খবর

আল্লাহকে স্মরণ করার উপকারিতা

শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২




চবিতে ৩৮২ কোটি ৪১ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৩৮২ কোটি ৪১ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাপ্তি ৩৭৮ কোটি ৪৮ লাখ এবং ঘাটতি দেখানো হয়েছে তিন কোটি ৯৩ লাখ টাকা।

শনিবার (২৩ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে অনুষ্ঠিত ৩৪তম বার্ষিক সিনেট সভায় এ বাজেট ঘোষণা করেন ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান।

বাজেটে এবারও সর্বোচ্চ বরাদ্দ রাখা হয়েছে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন-ভাতা খাতে। এ খাতে বরাদ্দ হয়েছে ২৪৬ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। এবার বেড়েছে গবেষণায় বরাদ্দের পরিমাণ। এ খাতে বরাদ্দ হয়েছে ছয় কোটি ৫৫ লাখ টাকা। যা মোট বাজেটের এক দশমিক ৭১ শতাংশ। গত অর্থবছরে গবেষণা খাতে ছিল পাঁচ কোটি ৫৫ লাখ টাকা।

এবারের বাজেটে শিক্ষা ও গবেষণা খাতকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। সভায় সংসদ সদস্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য, সিন্ডিকেট সদস্য, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ঢাকার মঞ্চে বাংলা বলে মুগ্ধ করলেন শিল্পা শেঠি

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
Image

 

ঢাকা মাতালেন জনপ্রিয় বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি। শনিবার (৩০ জুলাই) রাতে রাজধানীর হোটেল শেরাটনে হাজির হয়ে দর্শক মাতিয়ে গেলেন এ সুন্দরী। মঞ্চে ওঠেই শিল্পা বলেন ‘কেমন আছেন সবাই?’ শুধু এইটুকুই বাংলা জানি!

মিরর ম্যাগাজিন ম্যাক্স শপার্স প্রেজেন্স আয়োজিত বায়োজিন কসমেসিউটিক্যালস বিজনেস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০২২ দেওয়ার অনুষ্ঠােনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিতে গিয়ে বাংলায় কথা বলেন তিনি।

শিল্পা শেঠি বলেন, সবার পুরস্কার পেতে ভালো লাগে। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় অংশগ্রহণ করাটাও পুরস্কারের চেয়ে কম কিছু নয়। সফলতার চেয়ে আত্মতৃপ্তি গুরুত্বপূর্ণ।

ঢাকার আসার ব্যাপারে শিল্পা বলেন, ঢাকায় এটা আমার দ্বিতীয়বারের মতো আশা। পাঁচ বছর আগে আরেকটি ইভেন্টে এসেছিলাম। আপনারা আমাকে বেশিদিন ভুলে থাকতে দেননি। আমাকে আবারও ডাকা হয় চলে আসবো।

এরপর তিনি ২০ জন সেরা লিডারের হাতে অ্যাওয়ার্ড তুলে তুলে দেন। এসময় মঞ্চে অভিনেতা নিরব, অভিনেত্রী ভাবনা, পূজা চেরি, শবনব বুবলি উপস্থিত ছিলেন। অভিনেত্রী ভাবনা, পূজা চেরি, শবনব বুবলি অনুষ্ঠানে পারফর্ম করেন। এছাড়া অনুষ্ঠানে গান পরিবেশ করেন সঙ্গীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খান।

আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, শিল্পা শেঠি শনিবার রাতেই একটি বিশেষ ফ্লাইটে ঢাকা ত্যাগ করবেন। এর আগে ২০১৬ সালে ঢাকায় এসেছিলেন শিল্পা শেঠি। সে সময় ‘প্যাশন ফর ফ্যাশন’ নামের ফ্যাশন শোতে অংশ নিয়েছিলেন তিনি।


আরও খবর

ক্যারিয়ার নিয়ে যা বললেন মিম

রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২




‘কনভিন্স’ হয়ে ‘ধন্যবাদ’ দিয়ে চলে গেলেন মানবাধিকার হাইকমিশনার

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ১৩জন দেখেছেন
Image

দেশে ‘গুম’ হওয়া ৭৬ জনের তালিকা তুলে ধরলেও বাংলাদেশ সফররত জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেটকে এ বিষয়ে তিনটি কারণ জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ব্যাখ্যায় ‘কনভিন্স’ হয়ে কমিশনার ‘ধন্যবাদ’ দিয়ে চলে গেছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

রোববার (১৪ আগস্ট) সচিবালয়ে মিশেল ব্যাচেলেটের সঙ্গে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, তিনি (মিশেল) আগেই আমাদের কিছু লিখিত প্রশ্ন দিয়ে দিয়েছিলেন। যেগুলো নিয়ে তিনি আলাপ করতে চেয়েছিলেন। সেগুলো সবকিছু তাকে... আমাদের ভূমিকা, আমাদের কীভাবে চলছে, আমাদের সরকারিভাবে একটি মানবাধিকার কমিশন রয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসা ছিল অনেকে মিসিং হয়ে যায়, আমাদের ধর্মীয় সম্প্রীতি নিয়ে জিজ্ঞাসা করেছেন। অনেক নৃসংশতা বাংলাদেশে হয়েছে, সেগুলো নিয়ে আমরা কী করেছি?’

তিনি বলেন, ‘আমরা বলেছি আমাদের এখানে এক হাজার ২৬৫টি স্বীকৃতি দৈনিক সংবাদপত্র। সব মিলিয়ে সংবাদপত্র আছে ৩ হাজার ১৫৪টি। মোট টিভি চ্যানেল আছে ৫০টি।’

বিস্তারিত আসছে...


আরও খবর



‘পরীমনি বাচ্চার মুখ না দেখানোর ঢংটা করেননি বলে ভালো লাগল’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

পরীমনি বাচ্চার মুখ না দেখানোর ঢংটা করেননি। কেউ কেউ লাভ চিহ্ন দিয়ে সন্তানের মুখ ঢেকে দেয়। সহজ সরল ওই নায়িকার বিষয়টি বেশ ভালো লেগেছে বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনের। তবে রাজ-পরীর সন্তানের নাম পছন্দ হয়নি তসলিমার।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সকালে তসলিমা নাসরিন তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে শরিফুল রাজ ও চিত্রনায়িকা পরীমনির সন্তানের নাম নিয়ে একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন।

সিনেমার নায়িকারা আজকাল একটা ঢং করে। বাচ্চার মুখ দেখাবে না, পেছন থেকে বাচ্চাকে দেখাবে। অথবা মুখটা একটা লাভ সাইন দিয়ে ঢেকে দেবে। যখন বাচ্চার মুখ দেখার জন্য লোকে অধীর আগ্রহে বসে থাকবে না, তখন, হয়তো সেটা কয়েক বছর পর, দেখাবে।

পরীমনি বাংলাদেশের সিনেমার নায়িকা। তিনি অন্য নায়িকাদের মতো বাচ্চার মুখ না দেখানোর ঢংটা করেননি বলে ভালো লাগলো। প্রথম দিনই বাচ্চার চেহারা দেখিয়ে দিয়েছেন জনগণকে। তবে স্বামীর নামের সঙ্গে মিলিয়ে বাচ্চার নাম রাখাটা বিশেষ পছন্দ হয়নি।

স্বামীট্বামীরা আজ আছে, কাল নেই। সন্তান তো চিরদিনের। পরীমনি তার নামের সঙ্গে মিলিয়ে সুন্দর একটি বাংলা নাম রাখতে পারতেন। পরী মনির জায়গায় আমি হলে ‘রাজ্য’ নয়, ডাকনাম রাখতাম ‘পরমানন্দ’। ভালো নাম ‘শাহীম মুহাম্মদ’ নয়, রাখতাম ‘পরমানন্দ প্রাণ’।

বুধবার (১০ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর একটি হাসপাতালে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন নায়িকা পরীমনি। সন্তান ও মা উভয়ে সুস্থ আছেন বলে জানান পরীর স্বামী অভিনেতা শরিফুল রাজ। বৃহস্পতিবার সকালে ছেলের ছবি প্রথম প্রকাশ্যে আনেন পরীমনি। জানান নামও-শাহীম মুহাম্মদ রাজ্য।

এদিকে তসলিমার ওই পোস্টে পূরবী পারমিতা বোস নামে একজন মন্তব্য করেছেন, ‘বুবু পরীর সঙ্গে নামটা যায় তো পরী রাজ্য। ছোটবেলায় পরীরাজ্যের কথা ঠাকুরমার ঝুলির গল্পে পড়েছি।’

শুকন্তা চট্টপাধ্যয় লিখেছেন, ‘পরীমনির স্বামীটি হয়তো ভালো মানুষ তাই বাচ্চার নাম তার সঙ্গে মিলিয়ে রেখেছে। সব স্বামী কি আসামি? স্বামী আজ আছে কাল নেই কথাটা কিন্তু পুরোপুরি বাতিল করতে পারছি না।’

মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ লিখেছেন, ‘অধিকাংশ সময়ে হয় কি, মা-বাবার দেওয়া নামগুলো বাচ্চারা বড় হয়ে পরিবর্তন করে নিজের খুশিমত নিজের নাম দিয়ে নিজের আলাদা একটা পরিচয় বহন করে।’

‘বাচ্চারা বড় হয়ে মা বাবার দেওয়া নাম যদি পরিবর্তন করতে পারে তবে সময়ের সাথে সাথে মা বাবার ভালোবাসা, স্নেহকে ভুলেও নিজের মতাদর্শে বড় হয়। মা বাবার চাপিয়ে দেওয়া আদর্শ বহন করে না।’

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের নায়িকারা তাদের সন্তানদের নাম খাঁটি বাংলায় না লিখলেও এদেশের কিছু ডাক্তার ও অসাম্প্রদায়িক মানুষ তাদের সন্তানদের সুন্দর বাংলা নাম রাখেন। যেমন আমার এক ফুফার সন্তানের নাম সৃজনী। সৃজনীর আবার সন্তান হয়েছে। সেই সন্তানের নাম রেখেছে সংকল্প।’


আরও খবর



সংক্ষিপ্ত বিশ্ব সংবাদ: ২৫ জুলাই ২০২২

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

আমাদের চারপাশে অসংখ্য ঘটনা ঘটছে প্রতিদিনই। এর মধ্যে হয়তো আলোচনায় আসে হাতেগোনা কিছু। তবে সময় ও পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে বেশকিছু বিষয়। এগুলো জানা না থাকলে অনেক ক্ষেত্রেই পিছিয়ে পড়তে হয়। এ কারণে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা থেকে সংক্ষেপে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সংবাদ থাকছে জাগো নিউজের পাঠকদের জন্য-

ভারতের রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নিলেন দ্রৌপদী মুর্মু
ভারতের প্রথম ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী থেকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়া দ্রৌপদী মুর্মু শপথগ্রহণ করলেন সোমবার (২৫ জুলাই)। দেশটির সংসদ ভবনের সেন্ট্রাল হলে সকাল ১০টার দিকে তার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। ভারতের ১৫তম রাষ্ট্রপতি হলেন তিনি। এরপর সংসদের সেন্ট্রাল হলে রাষ্ট্রপতি হিসেবে প্রথম ভাষণ দেন দ্রৌপদী মুর্মু। দেশের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে নির্বাচিত হওয়া দ্রৌপদী ভারতের সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতি। দ্রৌপদী বলেন, ‘সকলের আশীর্বাদে আমি দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছি। আমি প্রগতিশীল একটি দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছি। নিজেকে খুব সৌভাগ্যবতী মনে হচ্ছে।’

ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার কত সৈন্য নিহত, কার কথা বিশ্বাসযোগ্য?
১৮১৬ সাল থেকে গড়পড়তা প্রতিটি যুদ্ধে দৈনিক প্রায় ৫০ জন সৈন্যের মৃত্যু হয়েছিল। তবে সাম্প্রতিক রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ তার চেয়েও অনেক বেশি প্রাণঘাতী। সিআইএ’র পরিচালক বিল বার্নস, এমআইসিক্স-এর প্রধান রিচার্ড মুর এবং এস্তোনিয়ার বৈদেশিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান মিক মারান বলেছেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১৫ হাজার রুশ সৈন্য মারা গেছে, অর্থাৎ গড়ে দৈনিক মৃত্যু ১০০ জনেরও বেশি।

মাঙ্কিপক্স মোকাবিলায় গুটিবসন্তের টিকা ব্যবহারের অনুমোদন ইইউর
স্মলপক্স বা গুটিবসন্ত প্রতিরোধে বহু বছর ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে ‘ইমভানেক্স’ নামে একটি টিকা। এখন থেকে সেটি মাঙ্কিপক্সের জন্যেও ব্যবহার করা যাবে বলে জানিয়েছে ইউরোপীয় কমিশন। সোমবার (২৪ জুলাই) ওষুধ কোম্পানি বাভারিয়ান নরডিক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ইইউর ওষুধ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থার সুপারিশক্রমে মাঙ্কিপক্স থেকে সুরক্ষায় গুটিবসন্তের টিকা ইমভানেক্সের বিপণন স্বীকৃতি বাড়িয়েছে ইউরোপীয় কমিশন। এই অনুমোদন ইউরোপীয় ইউনিয়নের সব সদস্য দেশের পাশাপাশি আইসল্যান্ড, লিচেনস্টাইন এবং নরওয়ের জন্যেও প্রযোজ্য।

বাহামা উপকূলে নৌকাডুবি, ১৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু
বাহামা উপকূলে নৌকাডুবে অন্তত ১৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা সবাই হাইতির নাগরিক। বাহামা সরকারের পক্ষ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। বাহামার প্রধানমন্ত্রী ফিলিপ ডেভিস জানিয়েছেন, নৌকায় থাকা ব্যক্তিরা হাইতি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মিয়ামিতে যাচ্ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বাহামার পুলিশ বলছে, নিউ প্রভিডেন্স দ্বীপ থেকে ১১ কিলোমিটারের (৬.৮ মাইল) বেশি দূরে নৌকাটি ডুবে যায়।

চার গণতন্ত্রপন্থি কর্মীর ফাঁসি কার্যকর করলো মিয়ানমার জান্তা
মিয়ানমারে চার গণতন্ত্রপন্থি কর্মীকে ফাঁসি দিয়েছে দেশটির সামরিক বাহিনী। ধারণা করা হচ্ছে, কয়েক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ সাজা হিসেবে মৃত্যুদণ্ডের প্রথম ব্যবহার হলো দেশটিতে। সাবেক আইন প্রণেতা ফিও জেয়া থাও, লেখক ও কর্মী কো জিমি, হ্লা মায়ো অং এবং অং থুরা জাওকে ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের’ জন্য অভিযুক্ত করা হয়েছিল। গত জুন মাসে দেশটির সামরিক বাহিনী প্রথম ঘোষণা করে তাদের মৃত্যুদণ্ড। এ নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে ব্যাপক নিন্দা ও সমালোচনার মুখে পড়ে মিয়ানমার জান্তা সরকার।

প্রেসিডেন্ট ভবন থেকে জিনিস চুরির অভিযোগে শ্রীলঙ্কায় আটক ৩
শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের ভবন থেকে মালপত্র চুরির অভিযোগে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। আটক তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা গোল্ড-প্লেটের সকেটসহ বেশ কিছু জিনিস চুরি করেন। এরপর সেগুলো বিক্রি করতে গেলে পুলিশের সন্দেহ হয় এবং তাদের আটক করা হয়। দেশটিতে অর্থনৈতিক সংকটের জেরে গত ৯ জুলাই হাজার হাজার বিক্ষোভকারী প্রেসিডেন্টের প্রাসাদে প্রবেশ করেন। বিক্ষোভের মুখে প্রাসাদ ছেড়ে পালাতে বাধ্য হন সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। এরপর বিক্ষোভকারীরা টানা কয়েকদিন ধরে সেখানেই অবস্থান করেন। এরই মধ্যে চুরির ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ক্যালিফোর্নিয়ায় ছড়াচ্ছে দাবানল, সরানো হলো ৬ হাজার বাসিন্দাকে
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। কয়েক হাজার একর বনভূমি পুড়ে গেছে এরইমধ্যে। অঙ্গরাজ্যটির একাংশে জারি রয়েছে জরুরি অবস্থা। রোববার (২৪ জুলাই) ওই অঞ্চল থেকে ছয় হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে অন্যত্র। ক্যালিফোর্নিয়ার ডিপার্টমেন্ট অব ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ফায়ার প্রোটেকশন (সিএএল ফায়ার) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় গত শুক্রবার থেকে ক্যালিফোর্নিয়ার ইয়োসেমিটি ন্যাশনাল পার্কের কাছে দাবানলের সৃষ্টি হয় এবং তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। দুই হাজারের বেশি ফায়ার সার্ভিস কর্মী কাজ করছেন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে। ১৭টি হেলিকপ্টার যুক্ত করা হয়েছে উদ্ধার কাজে।

লস অ্যাঞ্জেলস পার্কে গুলিতে নিহত ২
যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসের একটি পার্কে দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে ২ জন নিহত ও আরও পাঁচজন আহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় রোববার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। নিউইয়র্ক পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, বিকাল ৪টার দিকে একটি গাড়ির শো চলাকালীন সান পেদ্রোর পেক পার্কের ভেতরে গুলি চালানো শুরু হয়। এতেই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

উত্তরপ্রদেশে দুটি বাসের সংঘর্ষে নিহত ৮
ভারতের উত্তরপ্রদেশে দুটি বাসের সংঘর্ষে আটজন নিহত ও অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (২৫ জুলাই) এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। তাদেরকে লখনৌর একটি ট্রমা সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, দুটি বাসই বিহার থেকে দিল্লি যাচ্ছিল।

বন্ধুর সংসার ‘ভেঙেছেন’ ইলন মাস্ক!
টেসলার মালিক ইলন মাস্কের বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না। বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গেই না কি ‘প্রেম’ এই ধনকুবেরের। তাও আবার গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা সের্গেই ব্রিনের স্ত্রী নিকোল শানহানের সঙ্গে। দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে এমনটাই দাবি করা হয়েছে। যদিও সেই খবর সাফ প্রত্যাখ্যান করেছেন ইলন মাস্ক। টুইট করে ওই প্রতিবেদনের খবর ‘ভিত্তিহীন’ বলে দাবি করেছেন তিনি। টুইটারে ইলন মাস্ক লিখেছেন, ‘গত তিন বছরে নিকোলকে মাত্র দু’বার দেখেছি। আমাদের যখন দেখা হয়েছিল, তখন আশেপাশে আরও অনেকেই ছিলেন। রোমান্টিক ব্যাপার নয়’।


আরও খবর