Logo
শিরোনাম

জাহিদ নয়নের দুটি কবিতা

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
Image

ঐশ্বর্য পূজারিণী

এরপর কোনো এক বিকেলে;
অস্তমিত সূর্যের ঘ্রাণ বুকে নিয়ে
চোখ বুজেছিলে, কিছু খুঁজেছিলে
বিড়বিড় করে আওড়ালে এক মন্ত্র!
অধিবিদ্যক কোনো স্বপ্নের কথন
কাকডাকা সন্ধ্যা ছেদ করেনি ধ্যানের লগন।
নিয়তির মতো বিশ্বাসঘাতক সময়ের লাগাম
ধরতে চাইনি ব্যর্থ আপ্রাণ।

তবু সেই চোখ বুজেছিলে
কিছু খুঁজেছিলে
খুঁজে পাওনি আমায়
ধ্যানমগ্ন বিলাসী স্বপ্নে তোমার!
যে চোখ স্বপ্নজাল বোনে না
আটকা পড়ে ঐশ্বর্যের জালে।
যে চোখ সমুদ্র ধরে না
স্রোতহীন শৈবালের আধার!
ধ্যান ভেঙে যে চোখ দেখে না
অব্যর্থ নিশ্চুপ চিৎকার !

চোখ মেলে ধ্যান ভাঙো ঐশ্বর্য পূজারিণী
বেলা শেষের সূর্য যে অস্তমিত প্রায়
তবু ও কি মোহ ভাঙেনি!
তোমার নীলাভ রক্ত এখন লাল হয়েছে
আমি জানি, তুমি বোঝনি অথবা বুঝতে চাওনি,
আমার না থাকার নাম যে ভালোবাসা
তুমি জেনেছো আমি জানি,
তবু জানতে দাওনি...

**

অভিশপ্ত জাতিস্মর

এক হাতে অন্ধকার, এক হাতে পূর্ণিমা
দু’চোখে এক সহস্রাব্দের রোমন্থন
তৃষ্ণার্ত প্রাণ মৃত্যু সুধার খোঁজে;
দিগ্বিদিক ছোটে ছায়াপথ থেকে ছায়াপথ।
অভিশপ্ত এক আত্মার মতো অমর আমি
পুনর্জন্ম নিয়ে বারবার ফিরছি পৃথিবীর বুকে।
তন্দ্রার ভেতর জেগে থাকা এক অসীম সত্তা
অবিরাম বাড়তে থাকা মহাবিশ্বের মতো।

ধূসর আমার চোখে ধরা দেয় ট্রয়ের ধ্বংসলীলা,
ধরা দেয় ওয়াটারলু, পলাশীর প্রান্তর!
সাক্ষাৎ আমার চোখে বসে একাত্তর,
পঁচাত্তরের অন্ধকার, পৈশাচিক প্রলয়।
শেয়াল শকুনের যৌথ খামার বেড়ে ওঠে
অন্ধকার ভোজের মহোৎসব তুঙ্গে!

মরুভূমির মতো বিস্তীর্ণ রাত ধরা দেয় আমার চোখে
তার বুক বিদীর্ণ করি না বলেই
আমি দুঃস্বপ্নচারী নিশাচর!
রাতের বুকজুড়ে জেগে থাকা এক অতন্দ্র জাতিস্মর।

শতাব্দী থেকে শতাব্দীর বাঁকে অন্ধ রাতকে ফেরাই
নতুন অন্ধকারের টানে!
অন্ধ রাত ক্লান্তিতে ঘুমিয়ে যায়
আমি জেগে থাকি
কিছু দুর্বোধ্য অন্ধকারের অপেক্ষায়...


আরও খবর

বাঁকার বাঁকে বাঁকে

রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২

বাঁকার বাঁকে বাঁকে

রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২




আরব আমিরাত লিগে যোগ দিলেন রাসেল-মঈন-মুজিবরা

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ১৬জন দেখেছেন
Image

সংযুক্ত আরব আমিরাতে আগামী বছরের শুরুতে প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি লিগে (আইএলটি২০) নাম লেখালেন আন্দ্রে রাসেল, মঈন আলি, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, সিমরন হেটমায়ার, মুজিব-উর-রহমানের মতো তারকারা।

ছয়টি ফ্র্যাঞ্চাইজি দল নিয়ে লিগটি শুরু হবে আগামী বছরের ৬ জানুয়ারি, চলবে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এখন পর্যন্ত লিগে নাম দেওয়া হয়নি বাংলাদেশ, ভারত এবং পাকিস্তানের কোনো ক্রিকেটারের। অস্ট্রেলিয়া থেকে আছেন কেবল ক্রিস লিন।

ভারতের ক্রিকেটাররা এমনিতেও বিদেশি লিগে খেলেন না। পাকিস্তানও সম্প্রতি ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সিরিজে ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে বিদেশি লিগকে ‘না’ করে দিয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও জানিয়েছে, বিপিএল চলার সময় কোনো ক্রিকেটার বিদেশি লিগে অংশ নিতে পারবেন না। আগামী বছরের ৩ জানুয়ারি থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিপিএল চলার কথা। তাই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আরব আমিরাত লিগে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা খেলতে পারবেন না।

প্রথম সেটে আরব আমিরাত লিগের জন্য নাম নিবন্ধন করেন আন্দ্রে রাসেল, মঈন আলি, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, অ্যালেক্স হেলস, সিমরন হেটমায়ার, মুজিব-উর -রহমান, ডেভিড মালান, সুনিল নারিন, এভিন লুইস, কলিন মুনরো, ফ্যাবিয়েন অ্যালেন, স্যাম বিলিংস, টম কুরান, দুশমন্ত চামিরা, আকিল হোসেন, টম ব্যান্টন, সন্দ্বীপ লামিচানে, রভম্যান পাওয়েল এবং ভানুকা রাজাপাকসে।

এর সঙ্গে আরও ৩৩ ক্রিকেটার নাম লিখিয়েছেন। তারা হলেন- শ্রীলঙ্কার লাহিরু কুমারা, সিকুজে প্রসন্নে, চারিথ আসালাঙ্কা, ইসুরু উদানা এবং নিরোশান ডিকভেলা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের কেনার লুইস, রবি রামপল, রেইমন রেইফার, ডমিনিক ড্রেকস এবং শেরফান রাদারফোর্ড। আফগানিস্তানের হযরতউল্লাহ জাজাই, কায়েস আহমেদ, নুর আহমেদ, রহমানুল্লাহ গুরবাজ এবং নাভিন-উল-হক।

ইংল্যান্ডের ড্যান লরেন্স, জেমি ওভারটন, লিয়াম ডসন, রিচার্ড গ্লিসন, জেমস ভিন্স, সাকিব মাহমুদ, বেন ডাকেট এবং বেনি হাওয়েল। জিম্বাবুয়ের ব্লেসিং মুজারবানি এবং সিকান্দার রাজা।

নেদারল্যান্ডসের ব্রেন্ডন গ্লভার এবং ফ্রেদেরিক ক্লাসেন, নামিবিয়ার ডেভিড উইজ এবং রুবেন ট্রাম্পলম্যান, দক্ষিণ আফ্রিকার কলিন ইনগ্রাম, স্কটল্যান্ডের জর্জ মুনসে, আয়ারল্যান্ডের পল স্টারলিং এবং যুক্তরাষ্ট্রের আলি খান।


আরও খবর



শেষের ধাক্কায় পতনেই শেয়ারবাজার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার লেনদেনের শেরুতে শেয়ারবাজারে বড় ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দিলেও শেষ পর্যন্ত সবকটি মূল্যসূচকের পতন ঘটেছে। মূল্যসূচকের পতনের পাশাপাশি প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) দরপতন হয়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের। এর মাধ্যমে ঈদের পর লেনদেন হওয়া আট কার্যদিবসেই শেয়ারবাজারে দরপতন হলো।

ঈদের পর থেকেই শেয়ারবাজারে টানা দরপতন ঘটলেও সরকার বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিংয়ের সিদ্ধান্ত জানানোর পর পতনের মাত্রা বেড়ে যায়। জ্বালানি তেল ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে জ্বালানি সাশ্রয়ের লক্ষ্যে গত সোমবার সারাদেশে এলাকাভিত্তিক বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয় সরকার।

সরকারের এমন ঘোষণা আসার পর সোমবার শেয়ারবাজারে বড় দরপতন হয়। সেই সঙ্গে চরম ক্রেতা সংকটে পড়ে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট। মঙ্গলবারও এ ধারা অব্যাহত থাকে। ফলে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার মাধ্যমে মূল্যসূচকের বড় পতন হয়। পরের কার্যদিবস বুধবারও দরপতন হয় শেয়ারবাজারে।

এ পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে লেনদেন শুরুর ১৫ মিনিটের মধ্যে ডিএসইর প্রধান সূচক ৫১ পয়েন্ট বেড়ে যায়। আর দাম বাড়ার তালিকায় নাম লেখায় ৭০ শতাংশের বেশি প্রতিষ্ঠান।

লেনদেনের শুরুতে শেয়ারবাজারে এমন ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দিলেও তা শেষ পর্যন্ত অব্যাহত থাকেনি। বিনিয়োগকারীদের একটি অংশের বিক্রির চাপে প্রথম আধা ঘণ্টার লেনদেন শেষ হতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের দরপতন ঘটতে থাকে। ফলে ছোট হতে থাকে দাম বাড়ার তালিকা। বিপরীতে দাম কমার তালিকা বড় হতে থাকে।

লেনদেনের শেষ সময় পর্যন্ত অব্যাহত থাকে এ প্রবণতা। ফলে দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে ১১৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২১৯টির এবং ৪৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১২ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ১২৬ পয়েন্টে নেমে গেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ২০০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩৪৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

মূল্যসূচক কমলেও বাজারটিতে লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা বেড়েছে। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৭৬ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৬৬৫ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ১১ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে সোনালী পেপারের শেয়ার। কোম্পানিটির ৪০ কোটি ১৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা রবির ২৩ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২৩ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বেক্সিমকো।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- কেডিএস এক্সেসরিজ, তিতাস গ্যাস, আইপিডিসি ফাইন্যান্স, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম টেক্সটাইল, ওরিয়ন ইনফিউশন ও লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ।

এদিকে, সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই কমেছে ৬২ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৭ কোটি ১১ টাকা। লেনদেন অংশ নেওয়া ২৭৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭৫টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৫৯টির এবং ৪২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু টানেল ডিসেম্বরে খুলে দেওয়া হবে: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

কর্ণফুলী নদীর তলদেশে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল যান চলাচলের জন্য আগামী ডিসেম্বরে খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি বলেছেন, অক্টোবরের শেষ দিকে বা নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে টানেলের একটি টিউব এবং ডিসেম্বরে দ্বিতীয় টিউবটিও খুলে দেওয়া হবে।

শুক্রবার (২৯ জুলাই) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। চট্টগ্রাম বিভাগের সব জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধানসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি।

বিপিসির চেয়ারম্যান এবিএম আজাদও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাম্প্রতিক নানা সংকটের ব্যাপারে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, টানেলের কাজ খুব সহজেই বাস্তবায়ন করা গেছে। এত বড় একটা প্রজেক্ট, নির্ধারিত সময়ে যে বাস্তবায়ন হচ্ছে তা দেশের জন্য বড় সাফল্য। টানেলটা বাংলাদেশের জন্য মডেল হিসেবে চিহ্নিত হবে।

জ্বালানি তেলের দাম নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিশ্ববাজারে দাম কমলে ইউরোপ আমেরিকাতে দাম কমে যায়। আবার বাড়লে দাম বেড়ে যায়। কিন্তু আমাদের দেশে এই প্র্যাকটিসটা নেই। সরকার এখনো জ্বালানির দাম বাড়ার ঘোষণা দেয়নি। তবে পরিস্থিতি যদি ওই রকম হয় তখন সরকার হয়তো চিন্তা ভাবনা করবে কী করা যায়। তবে দাম এখনো বাড়ানো হয়নি।

‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবীতে এভাবে আর সাপ্লাই চ্যানেল বন্ধ হয়নি। স্বাভাবিকভাবে সবার ওপর একটা প্রভাব পড়বে। এটা আমাদের সবাইকে মিলেই মোকাবিলা করতে হবে। এসব বিষয় নিয়ে আজ আলোচনা করেছি।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ব্যাংক আর খোলা বাজারে ডলারের দামের মধ্যে সামঞ্জস্য আনতে কাজ চলছে। গ্যাসের সংকট কাটাতেও সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছে।


আরও খবর



মুন্সিগঞ্জে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে মাছ ব্যবসায়ী নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে বাসের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে উৎপল দাস নামের এক মাছ ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরেক মাছ ব্যবসায়ীসহ দুজন।

সোমবার (১৮ জুলাই) সকাল ৮টার দিকে উপজেলার নিমতলী সিংগারটেক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকালে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে মাছ নিয়ে সিরাজদিখানে আসছিল সিএনজিচালিত অটোরিকশা। পথে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকামুখী দ্রুতগতির এসএস পরিবহন নামের অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে দুমড়ে-মুচড়ে যায় অটোরিকশাটি। ঘটনাস্থলেই মারা যান মাছ ব্যবসায়ী উৎপল দাস। আহত হন আরেক মাছ ব্যবসায়ী ও অটোরিকশাচালক। তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক জাগো নিউজকে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘাতক বাসটি জব্দ করে থানায় নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



‘ভাই বলেছিলেন ভারতের বিপক্ষে গোল করতে হবে’

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

হোক যুব দলের ম্যাচ। খেলাতো বাংলাদেশ-ভারতের। তাই পুরো ম্যাচটাই ভরে থাকলো আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ ও গোল-পাল্টা গোলে। সঙ্গে চরম উত্তেজনা। বাংলাদেশ এগিয়ে গেলো। ভারত সমতায় ফিরলো। আবার বাংলাদেশ গোল করলেও সেটা হয়ে থাকলো ম্যাচের শেষ গোল।

বাংলাদেশ ২-১ গোলে জিতে গেলো ভারতের বিপক্ষে। বুধবার ভারতের ভুবনেশ্বরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে জয়টি বাংলাদেশকে অনেকটা এগিয়ে দিয়েছে সাফ অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নিপের ফাইনালেন দিকে।

স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে কয়েকজন বাংলাদেশি দর্শক লাল-সবুজ পতাকা হাতে উৎসাহ জুগিয়েছে তানভীর, পিয়াস ও রফিকদের। তবে স্থানীয় দশর্কেও তুলনায় তা ছিল নস্যি। কারণ, ভারতীয় দর্শকরা মাঠে ভুভুজেলা নিয়ে ঢুকেছিল। তারা সারাক্ষণ তা বাজিয়ে হৈ-হুল্লোড় করে নিজ দলকে সমর্থন দিয়েছে।

ভারতীয় দর্শকদের স্তব্ধ করে দিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে দিয়েছিলেন পিয়াস আহমেদ নোভা। ভারত সেই গোল ফিরিয়েও দিয়েছিল। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। পিয়াস আহমেদ নোভা বিরতির ঠিক আগে পেনাল্টি থেকে দ্বিতীয় গোল করেন।

শ্রীলংকার বিপক্ষে সুপারসাব মিরাজুল ইসলামকে এই ম্যাচেও বদলি হিসেবে নামানোর পরিকল্পনা ছিল কোচ পল স্মলির। তবে ভারত ম্যাচ ফিরতে না পারায় মিরাজকে নামানো আর প্রয়োজন মনে করেননি কোচ।

ম্যাচের শেষ দিকে মরন কামড় দিয়েছিল ভারত। বাংলাদেশ একটু ডিফেন্সিভ হওয়ার সুযোগ নিয়ে বারবার বাংলাদেশ সীমনায় ঢুকে গোলের চেষ্টা করেছে স্বাগতিক দলের খেলোয়াড়রা। তবে বাংলাদেশের জমাট ডিফেন্সে একবারও ফাটল ধরাতে পারেনি স্বাগতিকরা।

ভারত ও বাংলাদেশের ম্যাচ-উত্তেজনাতো থাকবেই। দুই দুইবার খেলোয়াড়দের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। প্রতিবারই ভারতীয় খেলোয়াড়রা বল প্রয়োগ করেছে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের ওপর। ২-১ গোলে এগিয়ে থাকাটা ধরে রেখে ম্যাচ শেষে উল্লাসে ফেটে পড়েন লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের কোচ পল স্মলি বলেছেন, ‘আমাদের লক্ষ্য ছিল না হারা। পারলে জিতবো। আমরা লক্ষ্য পূরণ করেছি। ভারত ভালো দল। আমার ছেলেরা ভালো খেলেই জিতেছে।’

জোড়া গোল করে ভারতকে হারানোর নায়ক কুষ্টিয়ার কিশোর পিয়াস আহমেদ নোভা বলেছেন, ‘আশা ছিল ভারতের বিপক্ষে গোল করবো। সেটা পেরেছি। এ জন্য আমি খুশি। ম্যাচের আগে ফোন কওে আমার ভাই বলেছিলেন, ভারত অনেক বড় দেশ। ওদের একটি প্রদেশের সমান আমরা। ভারতের বিপক্ষে তোমাকে গোল করতে হবে। আমি ভাইয়ের আশাও পূরণ করতে পেরেছি।’

এই জয়ে বাংলাদেশ ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে। তবে রাতের ম্যাচে যতি নেপাল হারিয়ে দেয় শ্রীলংকাকে হারিয়ে দেয় তাহলে বাংলাদেশ নেমে যাবে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে।


আরও খবর