Logo
শিরোনাম

পাসপোর্টে ঠিকানা বিভ্রান্তি: মালয়েশিয়ায় হিমঘরে বাংলাদেশির মরদেহ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৪২জন দেখেছেন
Image

মালয়েশিয়ায় হাসপাতালের হিমঘরে এক বাংলাদেশি শ্রমিকের মরদেহ পড়ে আছে। পাসপোর্ট কিংবা বৈধ কাগজপত্র না থাকায় মরদেহের পরিচয় শনাক্ত করতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। পাসপোর্টে ঠিকানা বিভ্রান্তে হিমঘরেই ১ মাস ধরে পড়ে আছে মরদেহটি।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র বলছে, গত ১৫ এপ্রিল এই বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে মারা যান। ওই সময় থেকেই তার মরদেহ কুয়ালালামপুর হাসপাতালের হিমঘরে। পরিবারের সম্মতি পেলে মরদেহ এদেশে দাফন করা হবে। পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় মরদেহর সুরাহা করতে পারছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, মরদেহের সঙ্গে যে পাসপোর্টটি পাওয়া গেছে সেটি মালয়েশিয়ায় কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের সার্ভারে চেক করা হয়েছে। পাসপোর্টটি ভুয়া। কারণ পাসপোর্টে লেখা আছে হারুনর রশীদ, বাড়ি বরিশাল। কিন্তু সার্ভারের রেকর্ডে আছে ইব্রাহিম নামে। ঠিকানা অন্য এলাকার। মরদেহের সঙ্গে পাওয়া কাগজপত্র ভুয়া। স্থায়ী ঠিকানা কোনো কাগজে সিরাজগঞ্জ আবার কোনোটায় নরসিংদী পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে প্রবাসী বাংলাদেশি নাসির মিয়া বলেন, তার বাড়ি নরসিংদী জেলায় হতে পারে। তাকে আজ থেকে ৩ বছর আগে জেল থেকে বের করা হয়েছিল। কিন্তু নাসির মিয়ার এই তথ্যের সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। পরিচয় শনাক্ত জটিল হয়ে পড়ছে।

‘কারণ ওই মরদেহের সঙ্গে যে দু’জন বাংলাদেশি ছিলেন তারা বিভিন্ন জায়গায় দৌড়-ঝাপ করতে হবে তাই তারা আত্মগোপনে চলে গেছেন। কারণ একটি লাশ দাফন করা অথবা দেশে পাঠাতে হলে বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ করে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়।’

মালয়েশিয়ায় কেউ আহত-নিহত হলে পুলিশ রিপোর্ট হয়। হাসপাতালে ডাটা সংগ্রহ করা হয়। পুলিশ প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে গত ১৫ এপ্রিল কুয়ালালামপুরের একটি এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মালয়েশিয়ায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে সে যে কোনো দেশের নাগরিক হোক না কেন তাকে মালয়েশিয়ায় দাফন করা হয়।

তবে এখানে দাফনের আগে মরদেহের পরিবারের সম্মতি নেওয়ার প্রয়োজন হয়। যদি তার পরিবারের সন্ধান না পাওয়া যায় তাহলে একটা নির্দিষ্ট সময় পর বেওয়ারিশ হিসেবে মরদেহ দাফন করতে বাংলাদেশ দূতাবাসের অনুমতি চাওয়া হয়।

মালয়েশিয়া বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতা মো. জহিরুল ইসলাম জহির বলেন, আমাকে পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থেকে জানানো হয়েছে অজ্ঞাতনামা এক বাংলাদেশির মরদেহ পড়ে আছে।

পরে খোঁজখবর নিতে গিয়ে জানতে পারি তার সঙ্গে যে পাসপোর্টটি রয়েছে সেটি নকল। ওই পাসপোর্ট নিয়ে দূতাবাসে যাওয়ার পর কর্মকর্তারা পরীক্ষা করে দেখেছেন এর ছবির সঙ্গে মরদেহের ছবির কোনো মিল নেই।

এ ব্যাপারে কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের মিনিস্টার (শ্রম) মো. নাজমুল সাদাত সেলিম বলেন, পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে অবশ্যই সরেজমিনে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্যাতনের ঘটনা মাকে বলায় ছাত্রকে পেটালেন অধ্যক্ষ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ১৫জন দেখেছেন
Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় ছাত্রাবাসে নির্যাতনের ঘটনা মায়ের কাছে বলায় এক ছাত্রকে মেঝেতে ফেলে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুপুরে ভুক্তভোগী ছাত্রের মা সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

মারধরের শিকার ওই ছাত্র কসবা উপজেলার এক দুবাই প্রবাসীর ছেলে। সে উইজডম স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্র বিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসে থেকে পড়াশোনা করে। ছাত্রাবাসের নবম শ্রেণির অন্য তিন ছাত্র মেয়ে সুলভ আচরণ করে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। নির্যাতনের মাত্রা বাড়তে থাকে। এতে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে সে।

১৬ মে ওই ছাত্রের মা বিদ্যালয়ে ছেলের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় ছেলের চেহারা ও নাক-মুখ ফোলা দেখে তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। ছেলে নির্যাতন ও উত্ত্যক্তের ঘটনা মায়ের কাছে খুলে বলে। ওই রাতেই তার মা ছাত্রাবাসের তত্ত্বাবধায়ক ও প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ আবদুল মোনায়েমের স্ত্রীর নাজমা আক্তারকে বিষয়টি মোবাইল ফোনে জানান।

বুধবার সকালে ছেলেকে বিদ্যালয়ে দিয়ে শহরে যান ছেলেটির মা। সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১০ টার দিকে বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ আবদুল মোনায়েম নির্যাতনের শিকার ও অভিযুক্ত ছাত্রদের নিজ কক্ষে ডেকে নিয়ে যান। সেখানে নির্যাতনকারী তিন শিক্ষার্থীকে তিনি দুটি করে বেত্রাঘাত করেন এবং নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থীকে বুকে ধাক্কা দিয়ে মেঝেতে ফেলে দিয়ে বেত্রাঘাত করেন। বিকেলে বিদ্যালয়ে গেলে মাকে ঘটনা খুলে বলে ওই ছাত্র। পরে তিনি বিষয়টি পুলিশকে জানান।

ভুক্তভোগী ছাত্রের মা বলেন, ‘হোস্টেলে আমার ছেলেকে অন্য তিন ছাত্র বেশ কয়েকদিন ধরে নির্যাতন করে আসছিল। তার সঙ্গে মেয়ে সুলভ আচরণ করে। বিষয়টি বাড়িতে এসে ছেলে আমাকে বলে। নির্যাতনের বিষয়টি আমার কাছে বলায় প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ আমার ছেলেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়েছে। ছেলের বাম হাতের কনিষ্ঠ আঙ্গুল কালো হয়ে আছে।’

এ নারী আরও বলেন, ‘পুলিশকে জানানোয় হোস্টেল সুপার আমার সঙ্গে খুবই অশোভন ও খারাপ আচরণ করেছেন। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছেন, যা ভাষায় বর্ণনা করা যাবে না। ছেলে তার সমস্যার কথা মাকে বলবে না তো কাকে বলবে।’

এ বিষয়ে ছাত্রাবাসের তত্ত্বাবধায়ক নাজমা আক্তার জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি তো বকাবকি জানিই না। করবো কীভাবে। ওই শিক্ষার্থীর মা বিষয়টি আমাকে জানিয়েছে। কিন্তু তিনি অপেক্ষা করেননি। আর আমরা একটা বাচ্চাকে তো আর বের করে দিতে পারি না।’

নির্যাতনের শিকার ছাত্রকে মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ওই শিক্ষার্থী আমাদের না জানিয়ে বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি পরিবারকে জানিয়েছে। তাই অধ্যক্ষ তাকে একটু বেত দিয়ে বাড়ি দিয়েছে।’

উইজডম স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল মোনায়েম জাগো নিউজকে বলেন, ‘তিন শিক্ষার্থীকে ডেকে শাসন করেছি। আমাদের না জানিয়ে ঘটনার বিষয়ে ওই শিক্ষার্থী আগে তার অভিভাবককে জানিয়েছে। তাই তিন শিক্ষার্থীর সঙ্গে তাকেও হালকা একটু শাসন করেছি।’

অধ্যক্ষ আরও বলেন, ‘ওই শিক্ষার্থীর অভিভাবক বিদ্যালয়ে ডিবি পুলিশ নিয়ে আসে। আমরা পুলিশের সঙ্গেও কথা বলেছি।’

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘এক শিক্ষার্থীর মা একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ পাওয়ার পর স্কুলে পুলিশ পাঠানো হয়। বিষয়টি আমরা গুরুত্ব সহকারে দেখছি।’


আরও খবর



সব ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীলতা এগিয়ে যাওয়ার পথে গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের জনগণকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস।

তিনি বলেছেন, বাংলাদেশে পবিত্র রমজানের অনুষ্ঠানগুলোতে সব ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীলতার বিষয়টি গুরুত্ব পেয়েছে, যা এগিয়ে যাওয়ার পথে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এক ভিডিও বার্তায় সবাইকে সালাম ও ঈদ মোবারক জানিয়ে পিটার হাস বলেন, আমি জানি, নতুন চাঁদ দেখার সঙ্গে অধীর আনন্দ জড়িয়ে আছে, যা আমিও আপনাদের সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই। আর পবিত্র রমজানের গত এক মাসে বাংলাদেশে অত্যন্ত চমৎকার অভিজ্ঞতা হয়েছে আমার। এ সময়ের মধ্যে আমি সম্ভবত ১০টা ইফতারে যোগ দিয়েছি।

তিনি বলেন, অসাধারণ বিষয়টি হলো, আমি বাংলাদেশি সমাজের বিভিন্ন দিকের সঙ্গে পরিচিত হয়েছি এবং এ দেশের রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী নেতা, সুশীল সমাজ ও যুবসমাজের সঙ্গে আমার সাক্ষাৎ ঘটেছে। এসব মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং আপনাদের কাছ থেকে রমজানের গুরুত্ব শোনার বিষয়টি আমার জন্য অসাধারণ এক অভিজ্ঞতা। ত্যাগ, আত্মনিবেদন এবং বন্ধু-বান্ধব, পরিবার-পরিজনের পাশাপাশি ভাগ্যবিড়ম্বিতদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগির অনুভূতিগুলো আমার জন্য সত্যিই অসাধারণ অভিজ্ঞতা।

এ ধরনের প্রত্যেকটি অনুষ্ঠানে রমজানের গুরুত্ব বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি বাংলাদেশে ধর্মীয় বৈচিত্র্যের গুরুত্বের কথা বিশেষভাবে উঠে এসেছে জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, এসব আয়োজনে সব ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীলতার বিষয়টি গুরুত্ব পেয়েছে। তাই আমি এ বিষয়টিকে আমাদের এগিয়ে যাওয়ার পথে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বার্তা বলে মনে করি।


আরও খবর



ঝিনাইদহে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা, আহত ২

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ২৪জন দেখেছেন
Image

ঝিনাইদহে পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলার অভিযোগ উঠেছে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ সময় দুজন আহত হয়েছেন।

রোববার (১৫ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে শহরের পোস্ট অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় নৌকার সমর্থনে একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে আসলে কিছু লোক সম্ভাব্য স্বতন্ত্রপ্রার্থী কাইয়ুম শাহরিয়ার জাহেদী হিজলের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। এ সময় দোকানের সামনে থাকা একটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। এর আগে শহরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে থেকে মনিরুজ্জামান আসলাম ও মাহাফুজুর রহমান ইপিআর নামের দুজনকে পিটিয়ে আহত করা হয়।

ক্ষতিগ্রস্ত কিংশুক বিপণির কর্মচারী খালেক রহমান জানান, আমরা দোকানে কেনাবেচা করছিলাম। হঠাৎ একটি মিছিল থেকে কিছু লোক অতর্কিত এসে দোকানে ভাঙচুর করে। সে সময় আমরা নিজেদের রক্ষার জন্য ছোটাছুটি করতে থাকি।

jagonews24

সম্ভাব্য স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কাইয়ুম শাহরিয়ার জাহেদী হিজল জানান, নৌকার শ্লোগান দিয়ে মিছিল থেকে আমার দোকানে হামলা চালানো হয়। এসময় সড়কে থাকা একটি মিনিট্রাক ভাঙচুর করা হয়।

এ ব্যাপারে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল খালেকের ব্যক্তিগত নম্বরে ফোন দিলে ভাগনে পরিচয়ে একজন রিসিভ করে জানান, তিনি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে মিটিংয়ে রয়েছেন।

ঝিনাইদহ সদর থানার উপ-পরিদর্শক কাজী মো. সাহিদুজ্জামান জানান, পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আগামী ১৫ জুন ঝিনাইদহ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে ৮১ হাজার ৮৪২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।


আরও খবর



ওয়েস্ট ইন্ডিজের নতুন অধিনায়ক নিকোলাস পুরান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
Image

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নতুন অধিনায়ক নিকোলাস পুরান। মঙ্গলবার এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দিয়েছে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ (সিডব্লিউআই)। কাইরন পোলার্ডের আকস্মিক অবসরের কারণে বাধ্য হয়েই নতুন অধিনায়ক বেছে নিতে হলো ক্যারিবীয়দের।

গত বছর থেকেই পোলার্ডের সহ-অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন বাঁহাতি উইকেটরক্ষক ব্যাটার পুরান। এবার চলতি বছরের আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ মেয়াদে দুই ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব পেলেন ২৬ বছর বয়সী এ তারকা।

পুরানকে দায়িত্ব দিয়ে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিচালক জিমি অ্যাডামস বলেছেন, ‘আমাদের বিশ্বাস সাদা বলের ক্রিকেটে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত পুরান। নির্বাচক প্যানেল মনে করে খেলোয়াড় হিসেবে যথেষ্ট পরিপক্ব হয়েছে সে। এছাড়া তার অভিজ্ঞতা, পারফরম্যান্স এবং দলের সবার শ্রদ্ধাও এক্ষেত্রে বড় নিয়ামক।’

অবশ্য পোলার্ডের অনুপস্থিতিতে এরই মধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়কত্ব করার অভিজ্ঞতা হয়েছে পুরানের। ২০২১ সালে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে অধিনায়ক ছিলেন তিনি। এবার পূর্ণাঙ্গ মেয়াদে অধিনায়ক হওয়ার পর ওয়ানডেতে ডেপুটি হিসেবে শাই হোপকে পাচ্ছেন পুরান।

ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত আট ফিফটি ও এক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন পুরান। কুড়ি ওভারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও তার নামের পাশে রয়েছে আটটি হাফসেঞ্চুরি। ২০১৪ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ছয় ম্যাচে ৩০৩ রান করে সর্বপ্রথম নিজের আগমনী বার্তা দিয়েছিলেন এ মারকুটে ব্যাটার।


আরও খবর



ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র প্রভাবে হাতিয়ায় নৌ-চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৩৫জন দেখেছেন
Image

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র প্রভাবে বৈরী আবহাওয়ায় নদী উত্তাল থাকায় নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সঙ্গে সব ধরনের নৌ যোগাযোগ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সোমবার (৯ মে) সকাল ৯টা থেকে বৃষ্টির সঙ্গে দমকা হাওয়ার পর উপজেলা প্রশাসন পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ ঘোষণা জারি করেছে।

হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সেলিম হোসেন বলেন, বর্তমানে ২ নম্বর সংকেত চলছে। ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায়  ইতোমধ্যে কিছু প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। উপকূলের প্রতিটি স্থানে জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে সর্তকতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে। প্রস্তুত করা হচ্ছে সাইক্লোন সেল্টারসহ আশ্রয়ণ কেন্দ্রগুলো।

এদিকে হাতিয়ার নলচিরা-চেয়ারম্যানঘাটসহ সব ঘাটে নৌযান চলাচল বন্ধ রাখতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সব নৌ-যানকে উপকূলের কাছাকাছি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মাছ ধরার ট্রলারগুলোকেও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র প্রভাবে উত্তাল রয়েছে মেঘনা। সকাল থেকে উপজেলায় বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়া জেলায় হালকা ও মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছে। একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে ধমকা হাওয়ার কারণে নদী পারাপারে ঝুঁকি রয়েছে। তাই সকাল থেকে সাময়িকভাবে নৌ-চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

নলচিরা ঘাটের ইজারাধার প্রতিনিধি ফাহিম উদ্দিন জানান, প্রশাসনের নির্দেশে সকাল থেকে নৌ-চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


আরও খবর