Logo
শিরোনাম

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের টিভিসিতে চাকরি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ ফেব্রুয়ারী 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ১৪২জন দেখেছেন
Image

শীর্ষস্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপে ‘অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর-টিভিসি’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ

পদের নাম: অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর-টিভিসি
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক
অভিজ্ঞতা: ০২ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২


আরও খবর

চাকরির সুযোগ দিচ্ছে এসিআই

বৃহস্পতিবার ০৭ এপ্রিল ২০২২




স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হবে: আতিউর রহমান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ২৮জন দেখেছেন
Image

স্বাস্থ্য খাতে মোট বাজেটের ৫-৬ শতাংশ বরাদ্দ দেওয়ার প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

তিনি বলেছেন, প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবায় মোট স্বাস্থ্য বরাদ্দের ২৫ শতাংশের মতো বরাদ্দ দেওয়া হয়। এই অনুপাত আসন্ন অর্থবছরে ৩০ শতাংশ এবং মধ্যমেয়াদে ৩৫-৪০ শতাংশে উন্নীত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) অনলাইনে বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচ, ব্র্যাক জেমস পি গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথ, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় এবং উন্নয়ন সমন্বয়ের আয়োজনে ‘স্বাস্থ্য বাজেট বিষয়ক অনলাইন জাতীয় সংলাপ’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বিনামূল্যে ওষুধ সরবরাহের জন্য যে বরাদ্দ আছে তা তিন গুণ করা গেলে মোট স্বাস্থ্য ব্যয়ে নাগরিকদের নিজস্ব খরচ ৬৮ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫৮ শতাংশের নিচে নেওয়া সম্ভব।

অনুষ্ঠানে আলোচকরা বলেন, বর্তমানে চলমান ভূ-রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং দেশের সামষ্টিক অর্থনৈতিক বাস্তবতা ও সম্ভাবনায় আসন্ন ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট কিছুটা সঙ্কোচনমুখী হতে পারে। তবে স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দের ক্ষেত্রে কোনো কাটছাট করা একেবারেই সমীচীন হবে না। বরং এ খাতে বরাদ্দ উল্লেখযোগ্য মাত্রায় বাড়িয়ে, সেই বর্ধিত বরাদ্দের বৃহত্তম অংশটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা বাবদ বরাদ্দ করাই এখন সময়ের দাবি।

তারা আরও বলেন, সম্প্রতি প্রকাশিত বাংলাদেশ ন্যাশনাল হেলথ অ্যাকাউন্টস-এর ষষ্ঠ প্রতিবেদনে দেখা গেছে, মোট স্বাস্থ্য ব্যয়ের ৬৮ শতাংশ আসছে নাগরিকদের পকেট থেকে, আর সরকারের কাছ থেকে আসছে ২৩ শতাংশ। প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা বাবদ ব্যয় বাড়ানো গেলে নাগরিকদের ওপর স্বাস্থ্য ব্যয়ের চাপ উল্লেখযোগ্য মাত্রায় কমানো সম্ভব বলে মনে করেন আলোচকরা।

আলোচনায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, নানা প্রতিবন্ধকতা থাকার পরও অল্প সময়ের মধ্যে দেশের ৮০ শতাংশ মানুষের জন্য করোনা টিকা নিশ্চিত করার মাধ্যমে সব স্তরের মানুষের জন্য মানসম্মত স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে সরকারের সদিচ্ছা প্রতিফলিত হয়েছে। এই দক্ষতা পুরো স্বাস্থ্য খাতের অন্যান্য কার্যক্রমে বজায় রাখা সম্ভব হলে দেশের মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য মো. আব্দুল আজিজ, ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, ডা. সামিল উদ্দিন আহম্মেদ শিমুল, ডা. হাবিবে মিল্লাত, ডা. আ. ফ. ম. রুহুল হক, মো. আব্দুল আজিজ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।


আরও খবর



এশিয়ান গেমস স্থগিতের দিনেই হকির বাছাই শুরু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

সাংহাইসহ চীনের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি শহরে করোনাভাইরাস নতুন করে বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশটিতে হতে যাওয়া এশিয়ান গেম অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এশিয়ার সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা হওয়ার কথা ছিল চীনের হাংজুতে ১০ থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর।

এশিয়ান গেমস অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণার দিন শুক্রবার থাইল্যান্ডের ব্যাংককে শুরু হয়েছে গেমসের হকির বাছাই টুর্নামেন্ট। এই বাছাইয়ে খেলতে বাংলাদেশ হকি দলও এখন ব্যাংককে। শনিবার বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলবে ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে।

গেমস বাছাইয়ে বাংলাদেশ খেলছে ‘বি’ গ্রুপে। বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়া ছাড়া গ্রুপে অন্য দুই দল শ্রীলংকা ও সিঙ্গাপুর।

‘এ’ গ্রুপের দুই দল উজবেকিস্তান ও হংকংয়ের ম্যাচ দিয়ে শুক্রবার শুরু হয়েছে এশিয়ান গেমস হকির বাছাই। ম্যাচে উজবেকিস্তান ৪-২ গোলে হারিয়েছে হংকংকে। দিনের অন্য ম্যাচে মুখোমুখি হবে থাইল্যান্ড ও কাজাখস্তান।


আরও খবর



দোহার-নবাবগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদের নতুন কমিটি

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
Image

ঢাকা জেলার অন্তর্গত ‘দোহার-নবাবগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদ’ এর নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হয়েছে। নব নির্বাচিত কমিটিতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মো. সেলিম মিয়াকে সভাপতি, ৭১ টিভির হেড অব নিউজ শাকিল আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

সেভ দ্য সোসাইটি অ্যান্ড থান্ডারস্টর্ম অ্যাওয়ারনেস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার ল রিপোর্টার মো. রাশিম মোল্লাকে সাংগঠনিক সম্পাদক এবং রিপোর্টার্স ফোরাম ফর ইলেকশন অ্যান্ড ডেমোক্রেসি-আরএফইডি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার মো. হুমায়ূন কবীরকে দপ্তর সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়েছে।

রোববার (৮মে) সংগঠনের পক্ষ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

কমিটিতে সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব কৃষ্ণেন্দু সাহা, সহ-সভাপতি পদে মাগুরা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মোহাম্মদ কামরুল হাসান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. হরগোবিন্দ্র সরকার অনুপ, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আবু সাইদ ও মানিকগঞ্জ মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আনোয়ার হোসেনকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

অর্থ সম্পাদক পদে ব্যাংকার খালিদ বিন ওয়াহিদ কনক, সহ অর্থ সম্পাদক ব্যাংকার ইখতিয়ার খান পরাগ, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক পদে খালিদ হোসেন সুমন ও পদ্মা কলেজের প্রভাষক তারেক রাজিব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে ব্যাংকার রানা ভূঁইয়া, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক পদে শিক্ষানবিশ আইনজীবী মোস্তাক হোসেন ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক পদে জাফর আহমেদকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

এর আগে দোহার-নবাবগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদের বার্ষিক সাধারণ সভা ও ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়। একপর্যায়ে অনুষ্ঠান পরিণত হয় নবীন প্রবীণের মিলন মেলায়। গল্প আর আড্ডায় মেতে ওঠেন সবাই।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের উপদেষ্টা ও দৈনিক মানবজমিনের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কেএম বাবর আশরাফুল হক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কবিরুল বাশার, বিশিষ্ট ছড়াকার সাইদুজ্জামান রওশনসহ দোহার-নবাবগঞ্জের বহু গুণীজন।

২০১৮ সালের ৮ সেপ্টেম্বর দোহার-নবাবগঞ্জের সাংবাদিক, চিকিৎসক, আইনজীবী, শিক্ষক, প্রকৌশলী, সরকারি/ বেসরকারি চাকরিজীবী, ব্যাংকারের সমন্বয়ে পেশাজীবী সংগঠন দোহার-নবাবগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদের আত্মপ্রকাশ হয়। এরপর ২০১৯ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর এই সংগঠনের প্রথম কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।

শনিবার আগামী দুই বছরের জন্য দ্বিতীয় কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হয়। এ সংগঠনের উদ্দেশ্য মূলত দোহার ও নবাবগঞ্জের পেশাজীবীদের মধ্যে একতা, শৃঙ্খলা, আন্তঃসম্পর্ক বৃদ্ধি করা। একইসঙ্গে সহযোগিতামূলক পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে সংগঠনের একে অপরের নানা সমস্যায় এগিয়ে আসা।

এছাড়া এলাকার উন্নয়ন ও সমাজের নানা অসঙ্গতির বিষয়ে সচেতনা বৃদ্ধিতে স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রম, সমাজের বিভিন্ন স্তরের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নমূলক কার্যক্রম এবং সংগঠনের সদস্যদের ভালো কর্মের জন্য সম্মাননা দেওয়া।


আরও খবর



টিসিবির পণ্য বিক্রি স্থগিতের ব্যাখ্যা দিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ২৮জন দেখেছেন
Image

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) ১৬ মে থেকে খোলাবাজারে ১১০ টাকা লিটার সয়াবিন তেলসহ অন্যান্য পণ্য বিক্রি শুরু করার ঘোষণা দিয়েছিল। তবে রোববার (১৫ মে) রাতে হুট করেই সেই কার্যক্রম স্থগিত করার সিদ্ধান্ত জানায় সরকারি প্রতিষ্ঠানটি। ঠিক কি কারণে টিসিবির পণ্য বিক্রি স্থগিত করা হয়েছে তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

সোমবার (১৬ মে) সচিবালয়ের গণমাধ্যম কেন্দ্রে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) আয়োজিত ‘বিএসআরএফ সংলাপ’-এ এসে তিনি এ ব্যাখ্যা দেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা এক কোটি মানুষকে টিসিবির পণ্য দিয়েছি দু’বার। আমাদের মাথায় আছে এক কোটি মানুষকে দেওয়া রেগুলার করবো। ১৫-১৬ তারিখ থেকে যেটা দিতে চেয়েছিলাম, সেটা কিন্তু এক কোটি মানুষকে নয়, ট্রাকে করে ঢাকা-চট্টগ্রাম এমন শহরগুলোতে।

‘প্রধানমন্ত্রী আমাদের বলেছেন শহরের এই মানুষগুলোকে দেওয়া হচ্ছে, গ্রামের মানুষকে তো দেওয়া হচ্ছে না। তোমরা একটু সময় নিয়ে ঢাকাতে আমরা যে দেবো....’ বলেন টিপু মুনশি।

তিনি বলেন, এর আগে ঢাকাতে আমরা কোনো তালিকা পায়নি, যে নেটওয়ার্কে গ্রামে দেওয়া হয়েছিল। ঢাকাতে ট্রাকে করে দেওয়া হয়। এক কোটির মধ্যে ১৫ লাখ মানুষকে আমরা ট্রাকে করে দেয়। বাকি ৮৫ লাখ দরিদ্রসীমার নিচে যে কার্ড থাকে তাদের দেওয়া হয়। ইনস্ট্রাকশনটা এসেছে। আমরাও রি-অ্যারেঞ্জ করেছি।

তিনি আরও বলেন, ৮৫ লাখ মানুষকে বাদ দিয়ে ১৫-১৬ লাখ মানুষকে দেয়ার চেয়ে, একটুখানি চাপ দিয়ে এই ১৫ দিনের মধ্যে ঢাকা ও বরিশালে তালিকা আমরা করিয়ে নেবো, যাদের আমরা দেবো। তাহলে জুনের প্রথম থেকেই আমরা এক কোটি মানুষকে দেওয়া শুরু করতে পারবো। এই ১৫ দিন পিছিয়ে গেছি, আসলে আরও বেশি অ্যাডভ্যান্স হওয়ার জন্য।

এর আগে টিসিবি থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল ১৬ মে থেকে খোলাবাজারে ১১০ টাকা লিটার সয়াবিন তেলসহ অন্যান্য পণ্য বিক্রি শুরু করা হবে। তবে রোববার রাতে হুট করেই সেই কার্যক্রম স্থগিত করে বিজ্ঞপ্তি দেয় সংস্থাটি।

সংস্থাটি বলছে, রাজধানীতেও এখন শুধু ফ্যামিলি কার্ডে পণ্য দেওয়া হবে। খোলাবাজারে ট্রাকে করে আর পণ্য বিক্রি হবে না। ফ্যামিলি কার্ড কার্যক্রম বাস্তবায়নে সোমবার (১৬ মে) থেকে খোলা বাজারে পণ্য বিক্রি স্থগিত করা হয়েছে।

টিসিবির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিক্রয় কার্যক্রম সুশৃঙ্খলভাবে পরিচালনা ও প্রকৃত সুবিধাভোগীর কাছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সাশ্রয়ী মূল্যে পৌঁছানোর লক্ষ্যে সরকার নীতিগতভাবে ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে টিসিবির পণ্য (ভোজ্যতেল, মশুর ডাল, চিনি) বিক্রির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। ঢাকা (উত্তর ও দক্ষিণ) ও বরিশাল সিটি করপোরেশনে ফ্যামিলি কার্ড প্রণয়ন ও বিতরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

ফ্যামিলি কার্ড বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ার পর হতে শুধুমাত্র এই কার্ডের মাধ্যমেই টিসিবির পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সে কারণে ওই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের নিমিত্তে চলতি মাসের স্বল্প পরিসরে সাধারণ ট্রাকসেল কার্যক্রম (১৬ হতে ৩০ পর্যন্ত) স্থগিত করা হলো।

আগামী জুন মাসে ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে এক কোটি নিম্নআয়ের পরিবারের কাছে টিসিবির ভর্তুকিমূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি করা হবে বলে টিসিবি জানায়।

এতদিন রাজধানীতে খোলাবাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য সহনীয় রাখতে সারাদেশের নিম্ন আয়ের পরিবারের মাঝে সাশ্রয়ী ও ভর্তুকি মূল্যে এসব পণ্য বিক্রি করেছে সরকারি এ বিপণন সংস্থা। যা রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ট্রাকে করে ভ্রাম্যমাণে বিক্রি করা হতো। ফ্যামিলি কার্ড প্রবর্তনের কারণে এ সুযোগ এখন আর থাকছে না।


আরও খবর



রাজনীতির বাইরে গিয়ে খেললে লাভ নেই: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
Image

আইনি প্রক্রিয়ায় এবং সাংবিধানিকভাবে নির্বাচনের মাধ্যমে বিএনপিকে ক্ষমতায় আসতে হবে। রাজনীতির মাঠের বাইরে গিয়ে খেললে কোনো লাভ নেই বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

সোমবার (৯ মে) বিকেলে নগরীর ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বার মিলনায়তনে আগামী মাসের ১৫ থেকে ২১ জুন প্রথম ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনা বিষয়ক মতবিনিময় সভা এবং পাইলটিং কার্যক্রম উদ্বোধনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, জনশুমারি ও গৃহগণনা সরকার মিশন হিসেবে নিয়েছে। দেশের জনসংখ্যা সম্পর্কে বৈজ্ঞানিক ধারণা থাকলেও জাতি ও সরকারকে জানাতে বাস্তবিক গণনা দরকার। তাই এক্ষেত্রে পরিসংখ্যান কর্মকর্তাসহ সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, জনশুমারি ও গৃহগণনার ক্ষেত্রে ৪ লাখ ডিজিটাল মেশিন রয়েছে। এসব পরিচালনার জন্য বিশাল কর্মবাহিনীও প্রস্তুত। তবে মেশিন সঠিকভাবে ব্যবহার করে সংরক্ষণ করতে হবে। আমাদের কাছে এমন প্রযুক্তি রয়েছে যার মাধ্যমে মুহূর্তের মধ্যেই দেশের জনসংখ্যা কতো জানা সম্ভব। তবে এ কার্যক্রম পরবর্তীতে পরিচালনা করা হবে।

বিভাগীয় কমিশনার শফিকুর রেজা বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের এনডিসি সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন, সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামূল হক টিটু, পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, রেঞ্জ ডিআইজি হারুন অর রশিদ, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক প্রমুখ।


আরও খবর