Logo
শিরোনাম

প্রতিভা প্রকাশ সাহিত্য পুরস্কার পেলেন ৪ জন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

প্রতিভা প্রকাশ প্রকাশনা সংস্থার ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘এনআরবি লাইফ-প্রতিভা প্রকাশ সাহিত্য পুরস্কার-২০২২’ প্রদান করা হয়েছে।

১৭ জুন বিকেলে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার কবি ও লেখকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এবছর কবিতায় আলতাফ শাহনেওয়াজ, প্রবন্ধে মোজাফ্ফর হোসেন, শিশুসাহিত্যে ইমরুল ইউসুফ এবং কথাসাহিত্যে নাজনীন শুভ্রা এ পুরস্কার লাভ করেন।

jagonews24

শিশুসাহিত্যিক রহীম শাহের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক জাতিসত্তার কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান কবি ড. মোহাম্মদ সাদিক, এনআরবি ইসলামিক লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের সিইও মো. শাহ জামাল হাওলাদার, আগামী প্রকাশনীর প্রকাশক ওসমান গনি, শিশুসাহিত্যিক আমীরুল ইসলাম, কবি ও গবেষক মজিদ মাহমুদ, কবি ও গবেষক ড. তপন বাগচী।


আরও খবর

জাহিদ নয়নের দুটি কবিতা

সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২




বাথরুমের ওপর লুকানো ছিল দেড় মণ গাঁজা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ২৮জন দেখেছেন
Image

ফেনী শহরের একটি বাড়ির বাথরুমের ওপরে বিশেষ কৌশলে লুকানো অবস্থায় ৬৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শুক্রবার (১ জুলাই) সকালে এক নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফেনী পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের দাউদপুর ব্রিজের পশ্চিম পাশে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় সালেহ আহাম্মদ ম্যানশনের চতুর্থ তলার একটি বাথরুমের ওপর থেকে পাঁচটি বস্তায় মোড়ানো অবস্থায় ৬৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। বাসায় অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে মূলহোতা আবদুল করিম পালিয়ে যান। পরে পুলিশ করিমের স্ত্রী আয়েশা বেগমকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ আরও জানায়, কয়েকমাস ধরে ফেনী শহরের পশ্চিম মাস্টারপাড়া এলাকায় সালেহ আহাম্মদ ম্যানশনের চতুর্থ তলার একটি ইউনিট ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন এ দম্পতি।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন জানান, সালেহ আহাম্মদ ম্যানশনের চতুর্থ তলার ওই ভাড়াটিয়া দম্পতি দীর্ঘদিন ধরে মাদক কারবার চালিয়ে আসছিলেন। তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় চ্যাম্পিয়নশিপের রেজিস্ট্রেশন শুরু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ আবারও হাজির হচ্ছে নতুন আসর নিয়ে।

প্রতিযোগিতার তৃতীয় আসর শুরুর পরিকল্পনা নিয়ে আয়োজক, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও সংশ্লিষ্ট ফেডারেশনের প্রতিনিধিবৃন্দ, পৃষ্ঠপোষক ও পরিচালনাকারী এবং দেশের বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মঙ্গলবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ভবনে অবস্থিত শহীদ শেখ কামাল মিলনায়তনে একটি মিডিয়া লঞ্চিং ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপের সাংগঠনিক কমিটির চেয়ারম্যান মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন।

গত আসরগুলোর ধারাবাহিকতা রক্ষার প্রত্যাশা জানিয়ে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেন, ‘বিগত বছরগুলোর আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া বহু সংখ্যক নারী ক্রীড়াবিদ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে তাদের অসাধারণ নৈপুণ্য দেখিয়েছে। দ্বিতীয় আসরে আমরা অংশগ্রহণকারী মোট বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যার শততম মাইলফলক স্পর্শ করেছিলাম। এ বছর আমাদের লক্ষ্য ও প্রত্যাশা সারাদেশের সক্রিয় প্রত্যেকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা।’

তরুণসমাজকে খেলাধুলার পাশাপাশি অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ইত্যাদি কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারাই জাতির কর্ণধার। আপনাদের হাত ধরেই গড়ে উঠবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সমৃদ্ধ সোনার বাংলা, এটিই আমাদের প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যয়। আর এই প্রত্যয়কে বাস্তব রূপ দিতে আপনাদের প্রতিজ্ঞা করতে হবে, নিজেদের গড়ে তুলতে হবে সোনার মানুষ হিসেবে।’

বিগত আসরের ন্যায় এবারও ফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল, বাস্কেটবল, হ্যান্ডবল, ব্যাডমিন্টন, টেবিল টেনিস, সাঁতার, সাইক্লিং, অ্যাথলেটিকস, দাবা ও জাতীয় খেলা কাবাডি ইভেন্টের সমন্বয়ে নারী ও পুরুষ উভয় বিভাগে প্রতিযোগিতা আয়োজিত হবে বলে আয়োজকরা জানান।

মিডিয়া লঞ্চিং অনুষ্ঠানে প্রতিযোগিতার তৃতীয় আসরের প্রতিপাদ্য ছাড়াও থিম সং উপস্থাপন করা হয় এবং রেজিস্ট্রেশন উন্মুক্ত করা হয়। আগামী ৭ জুলাই পর্যন্ত দেশের সকল নিবন্ধিত প্রাইভেট ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিযোগিতার নির্ধারিত ওয়েবসাইটে https://www.biusc.org গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

‘বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশ, তারুণ্যের বাংলাদেশ’কে প্রতিপাদ্য হিসেবে ধারণ করে আয়োজিত হতে যাওয়া প্রতিযোগিতার তৃতীয় আসর উপলক্ষে পরিচালনাকারী সংস্থা স্পেলবাউন্ড লিও বার্নেট-এর পক্ষে এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রতিযোগিতার সাংগঠনিক কমিটির সদস্য মোহাম্মদ সাদেকুল আরেফীন চলতি আসরের অধীনে আয়োজিতব্য বিভিন্ন কার্যক্রমের একটি সামগ্রিক পরিকল্পনা উপস্থাপন করেন।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ এর সচিব পরিমল সিংহ, বিকেএসপির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে মাজহারুল হকসহ আরও অনেকে।


আরও খবর



দ্বিতীয় শতকে ঢাবি ইন্ডাস্ট্রির চাহিদা পূরণে সক্ষম হবে: উপাচার্য

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ইতিহাসে দ্বিতীয় শতকে পদার্পন করে জাতি ও ইন্ডাস্ট্রির চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড মো. আখতারুজ্জামান।

শুক্রবার (১ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, এবারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর প্রতিপাদ্য ‘গবেষণা ও উদ্ভাবন: ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া সহযোগিতা’। এই প্রতিপাদ্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেয়। এটির মধ্য দিয়ে এই বিশ্ববিদ্যালয়কে আমরা দ্বিতীয় শতকে উপযুক্ত হিসেবে গড়ে তোলা ও বিশেষ করে আগামী এক শতকে এই বিশ্ববিদ্যালয়কে নির্মাণের প্রাথমিক যে ধাপ রয়েছে, সেই ধাপ সূচনা করার জন্য আমরা অঙ্গিকার ব্যক্ত করি।

তিনি বলেন, ইন্ডাস্ট্রির চাহিদা অনুযায়ী জাতির উন্নয়নের সহায়ক এমন ধরনের উদ্ভাবন ও গবেষণা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালিত হবে এবং এর মধ্য দিয়ে উপমহাদেশে খ্যাতিমান এই বিশ্ববিদ্যালয়টি যে অবদান রেখে আসছে সেই ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ণ থাকবে।

আখতারুজ্জামান বলেন, আগামী অক্টোবরের ২২ ও ২৩ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হবে গবেষণা প্রকাশনা মেলা। জাতি এবং ইন্ডাস্ট্রির চাহিদা পূরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সক্ষমতা তৈরি হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রবীর কুমার সরকারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, আবাসিক হলগুলোর শিক্ষার্থী, অ্যালামনাই সদস্যরা, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর শোভাযাত্রা, জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও হলসমূহের পতাকা উত্তোলন, পায়রা উড়ানো, বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ১০২ পাউন্ডের কেক কাটা ও সংগীত বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে থিম সং পরিবেশিত হয়।

এরপর উপাচার্যের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ থেকে টিএসসি পর্যন্ত বর্ণাঢ্য র্যালি অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বেলা ১১টায় টিএসসি অডিটোরিয়ামে পল্লী-সহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমেদ ‘গবেষণা ও উদ্ভাবন: ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া সহযোগিতা’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।


আরও খবর



সরকারের এমন ভাব যেন সবাই পদ্মা সেতুর শত্রু: মান্না

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি ও ডাকসুর সাবেক ভিপি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, সরকার এমন ভাব করছে, যেন আমরা সবাই পদ্মা সেতুর শত্রু। আমরা শুধু বলছি, যে সেতু ১২ হাজার কোটি টাকা দিয়ে বানানো যাবে বলেছিলেন, সেখানে এরই মধ্যে ৪০ হাজার কোটি টাকা খরচ হয়েছে। এত টাকা কীভাবে খরচ হলো সেই হিসাব দেন।

নাগরিক ঐক্যের দশম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রোববার (৬ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক পদযাত্রা শেষে এক বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, পুরো মিরপুর দুইদিন ধরে বন্ধ। গার্মেন্টসের হাজার হাজার কর্মীরা রাস্তায় নেমেছে। তাদের দাবি, হয় জিনিসের দাম কমাও না হলে বেতন বাড়াও। সরকার কোনোটাই করতে পারছে না। বরং পদ্মা সেতু উদ্বোধনের নামে দেশব্যাপী কোটি কোটি টাকা খরচ করে উৎসবের প্রস্তুতি নিচ্ছে। অন্যদিকে, চট্টগ্রামে কী হৃদয়বিদারক একটা ঘটনা ঘটেছে। অথচ অন্য কোনো দিকে সরকারের লক্ষ্য নেই।

নিত্যপণ্যের দাম ঊর্ধ্বগতিসহ নানা দুর্যোগের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এত বড় দুর্যোগের মধ্যে সরকার ঘোষণা দিয়েছে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে ১০ লাখ লোকের সমাগম করবে, কেন? দেখাবেন যে, আমাদের অনেক শক্তি আছে। আরে আপনাদের তো শক্তি আছেই, আছে বলেই তো ভোট ডাকাতি করেন।

এসময় নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় ও অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



হিলিতে কমেছে সবধরনের সবজির দাম

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

সরবরাহ বৃদ্ধি পাওয়ায় দিনাজপুরের হিলিতে সবধরনের সবজির দাম কমেছে। সপ্তাহের ব্যবধানে প্রকারভেদে কেজি প্রতি সবজির দাম কমেছে ১৫ থেকে ২০ টাকা। সবজির দাম কমায় কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে। আবহাওয়া ভালো ও বাজারে সবজির পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকায় দাম কমেছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

সরেজমিন হিলি বাজারের খুচরা দোকানগুলো ঘুরে দেখা গেছে, সপ্তাহখানেক আগেও ঢেঁড়শ বিক্রি হচ্ছিল ৪০ টাকা কেজি। এখন দাম কমে বিক্রি হচ্ছে ১০ টাকা। এছাড়া ২৫ টাকার পটোল ১৫ টাকা, ৪০ টাকা কেজির করলা ২৫ টাকা, ৬০ টাকার কাঁচামরিচ ৩০ টাকা, ৪০ টাকার বেগুন ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আগে এক হালি লেবু ২০ টাকায় বিক্রি হলেও এখন দাম কমে হয়েছে ৬ টাকা।

jagonews24

আসলাম হোসেন নামের এক ক্রেতা জাগো নিউজকে বলেন, ‘গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে সবজির দাম অনেকটা কম। এভাবে দাম কম থাকলে আমাদের সংসারে অনটন হয় না। আমরা গরিব মানুষ দিন আনি দিন খাই। দাম যত কম হবে ততই আমাদের জন্য ভালো।’

সবজিবিক্রেতা আলম জাগো নিউজকে বলেন, ‘বাজারে সবধরনের সবজির সরবরাহ বেড়েছে। এতে দামে খুব একটা প্রভাব পড়েছে না। দাম কম হলেও বেচাবিক্রি আগের চেয়ে বেশি হচ্ছে।’

jagonews24

আবু রায়হান নামের আরেক ব্যবসায়ী বলেন, আমাদের এ এলাকায় গতবারের তুলনায় এবার সবজির ফলন ভালো হয়েছে। বাজারে সবজির সরবরাহ অনেক বেশি হওয়ায় দাম অনেকটা কমে গেছে।


আরও খবর