Logo
শিরোনাম

শিশুর সঠিক বিকাশ মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৪৮জন দেখেছেন
Image

সুষ্ঠু শারীরিক, বুদ্ধিবৃত্তিক, সামাজিক ও আবেগীয় বিকাশের জন্য শিশুদের জীবনের প্রথম আট বছর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে জানিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

তিনি বলেন, এই সময়ে শিশুর শিক্ষা ও বিকাশের ভিত্তি রচিত হয়। শিশুর সঠিক প্রারম্ভিক বিকাশ মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে গুরুত্বপূর্ণ। একটি মেধাসম্পন্ন জাতি গড়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শিশুবান্ধব সরকার শিশুর খাদ্য, পুষ্টি, স্বাস্থ্য-সেবা, সুরক্ষা ও শিক্ষা নিশ্চিত করছে।

শনিবার (১৪ মে) বাংলাদেশ শিশু একাডেমি মিলনায়তন থেকে ভার্চুয়াল পাল্টফর্মে আয়োজিত জাতীয় ইসিডি সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। ‘বাংলাদেশ আরলি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট নেটয়ার্ক’ (বেন) অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গর্ভাবস্থা থেকেই মা ও শিশুর পুষ্টি নিশ্চিত করতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় মা ও শিশু সহায়তা কর্মসূচি চালু করেছে। সমাজভিত্তিক সমন্বিত শিশু যত্ন কেন্দ্রের মাধ্যমে পাঁচ লাখ ৬০ হাজার শিশুর প্রারম্ভিক বিকাশ, সুরক্ষা ও সাঁতার সুবিধা প্রদান করা হবে।

তিনি বলেন, জাতির পিতা সংবিধানে শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও ১৯৭৪ সালে শিশু আইন প্রণয়ন করেন। দেশ স্বাধীনের পর পরই শিশুদের জন্য অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষার ব্যবস্থা করেন। শিশু মৃত্যু ও মাতৃ মৃত্যু রোধ এবং প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ ও কার্যক্রম বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হচ্ছে।

ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা আরও বলেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে সাত লাখ ৭০ হাজার দরিদ্র মায়ের জন্য মাতৃত্বকালীন ভাতা ও দুই লাখ ৭৫ হাজার কর্মজীবী মায়ের জন্য ল্যাক্টেটিং মা ভাতা কর্মসূচি পরিচালিত হচ্ছে। সরকারের ১৫টি মন্ত্রণালয় শিশুকেন্দ্রিক বাজেট বাস্তবায়ন করছে। এ সময় প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা শিশুদের উন্নয়নে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ইসিডি নেটয়ার্কের সভাপতি ড. মঞ্জুর আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার ও ইউনিসেফ বাংলাদেশের কান্ট্রিরিপ্রেজেনটেটিভ মি. শেলডন ইয়েট। কি-নোট উপস্থাপন করেন ইন্টারন্যাশনাল এক্সপার্ট অন চাইল্ড ডেভেলপমেন্ট ড. জোয়ান লোম্বার্ডি।

অনুষ্ঠানের সভাপতি ড. মঞ্জুর আহমেদ বিশেষ অতিথি ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়ার শুভেচ্ছা বক্তব্য পাঠ করে শোনান। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে সরকার গর্ভাবস্থা থেকে মা ও শিশুর পুষ্টি ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে ভাতা প্রদান করছে। তিনি শিশুর উন্নয়ন ও সুরক্ষায় সরকারি ও উন্নয়ন সংস্থাকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

এবারের ইসিডি সম্মেলনে শিশুর পুষ্টি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও সুরক্ষা বিষয়ে ভিন্ন ভিন্ন ছয়টি প্লেনারি সেশন অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে সরকারি, জাতিসংঘ, দেশি-বিদেশি উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিরাঅংশ নেবেন। এ সম্মেলনে দেশ-বিদেশের দেড় শতাধিক ইসিডি প্রাকটিশনার ও প্রতিনিধি যোগদান করছেন। এবারের সম্মেলনে প্রতিপাদ্য বিষয় ‘আরলি ইনভেস্টমেন্ট ম্যাটারস’। অনুষ্ঠান চলাকালে বাংলাদেশ শিশু একাডেমির সম্মেলন কক্ষে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত সচিব মো. মুহিবুজ্জামান ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মহাপরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম।


আরও খবর



সুনামগঞ্জে আরও একটি বর্ডারহাট চালু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে আরও একটি বর্ডারহাট উদ্বোধন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ মে) দুপুরে উপজেলার বোগলা ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকায় হাটটি উদ্বোধন করেন সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক ও ভারতের সহকারী হাই-কমিশনার নীরজ কুমার জয় সোয়াল।

সরেজমিনে দেখা যায়, জেলা শহর থেকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরে বাগানবাড়ি-রিংকু বর্ডারহাট নামের নতুন হাটটি চালু হয়েছে। হাটে বাংলাদেশের ২৬টি ও ভারতের ২৪ টি দোকান বসবে। প্রথমদিন হাটে  দুদেশের মানুষের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। দোকানিরা হাটে বাঁশজাত দ্রব্য, পান-সুপারি, সবজি, ফল, নানা জাতের মসলা, কাপড়, জুতা, প্রসাধন সামগ্রীসহ স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত পণ্য বিক্রি হচ্ছে।

jagonews24

করিম মিয়া নামের স্থানীয় বাসিন্দা জাগো নিউজকে বলেন, বর্ডারহাট চালু হয়েছে তাতে আমরা খুশি। কিন্তু প্রশাসনের কাছে অনুরোধ যাতে এখানে নজরদারি বাড়ানো হয়।

অলি মিয়া নামের আরেকজন বলেন, নতুন হাট চালু হওয়ায় কর্মহীন অনেকের কাজে সুযোগ হয়েছে। দুই দেশের মানুষ এখানে কেনাকাটা করছে। পুরো বাজার দুই দেশের মানুষের আগমনে মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে।

উদ্বোধনের সময় সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, বর্ডারহাট চালু হওয়ায় বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক আরও জোরদার হবে। এখানে যোগাযোগ ব্যবস্থার যে সমস্যা রয়েছে সেটির জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

jagonews24

জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, সীমান্ত এলাকায় নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। কেউ অবৈধ কাজ করলে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

এর আগে ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল সুনামগঞ্জের জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের ডলুরা বর্ডারহাট চালু হয়।


আরও খবর



‘অশনি’র বাংলাদেশে আঘাত হানার আশঙ্কা নেই: প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র বাংলাদেশে আঘাত হানার আশঙ্কা এখন পর্যন্ত নেই বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান।

রোববার (৮ মে) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি।

আন্দামান সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি রোববার সকালে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১৭৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। যে দিকে যাচ্ছে এটি যদি সেদিকে ধাবিত হয় তাহলে ভারতের বিশাখাপত্নম, উড়িষ্যা, পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হেনে বাংলাদেশের সাতক্ষীরা অঞ্চলে আঘাত হানতে পারে।

তিনি বলেন, আবহাওয়াবিদ এবং আন্তর্জাতিক আবহাওয়া অফিস ধারণা করছে, ঘূর্ণিঝড়টি ১২ মে সকালে বিশাখাপত্নম, ভুবনেশ্বর, পশ্চিমবঙ্গ স্পর্শ করে দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হবে। বাংলাদেশে আঘাত হানার সম্ভাবনা এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

‘অশনি’র প্রভাবে বাংলাদেশে ঝড়-বৃষ্টি হবে। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় বা জলোচ্ছ্বাস হবে না বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

এনামুর রহমান বলেন, ঘূর্ণিঝড় যে কোনো সময় যে কোনো দিকে মোড় নিতে পারে। এখন এটি উত্তর-পশ্চিম দিকে ধাবিত হচ্ছে। এটি যদি মোড় নিয়ে উত্তর দিকে ধাবিত হয়, তাহলে আমাদের দেশের সাতক্ষীরা, খুলনা, বরিশাল ও পটুয়াখালীতে আঘাত হানতে পারে।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা সবাইকে নিয়ে সভা করেছি, তাদের সচেতন করে দেওয়া হয়েছে। মাঠে মেনেছে সিপিপি স্বেচ্ছাসেবকরা। তারা ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কবার্তা প্রচার করছে। আমরা আশ্রয় কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত করার নির্দেশনা দিয়েছি। সেগুলোর প্রস্তুতি প্রায় শেষ। সেখানে রান্না করা খাবার দেওয়ার জন্য চাল ও অর্থ দিয়েছি। মোটামুটি প্রস্তুতি আছে। করোনার কারণে আশ্রয় কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মানুষকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছি।

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও কাছাকাছি এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি রোববার সকালের দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’তে রূপ নেয়। ফলে দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।


আরও খবর



নিজ বন্দুকের গুলিতে ফরেস্ট গার্ড নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ঈদগাঁও রেঞ্জের ভোমরিয়াঘোনা ফরেস্ট অফিস এলাকায় অসাবধানতাবশত নিজ গুলিতে এক ফরেস্ট গার্ড (এফজি) নিহত হয়েছেন। বুধবার (১৮ মে) দুপুরে ভাদিতলার পূর্ব পাশের বনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আখতারুজ্জামান (৪০) যশোরের কোতোয়ালি থানা ইছালী গ্রামের বাসিন্দা রফি উদ্দিন বিশ্বাসের ছেলে। তিনি ঈদগাঁও রেঞ্জের ভোমরিয়া ঘোনা বিটে বনরক্ষী হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন।

কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. আনোয়ার হোসেন সরকার জানান, আকতারুজ্জামান প্রতিদিনের মতো ডিউটি করছিলেন। শুনেছি তার বন্দুকটি কাজ করছিল না, তা ঠিক করার সময় অসাবধানতাবশত গুলি বের হয়ে আহত হন আখতারুজ্জামান। তাকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

ভোমরিয়া ঘোনা বিটের হেডম্যান বাদশা মিয়া জানান, নিহত আখতারুজ্জামান আরেকজন সহকারীকে নিয়ে বনে নিয়মিত টহলে গিয়েছিলেন। সেখানে তার নামে বরাদ্দ থাকা বন্দুকটিতে ত্রুটি দেখা দিলে তা নিজেই মেরামতের চেষ্টা চালান আখতার। একপর্যায়ে বন্দুক থেকে এক রাউন্ড গুলি বের হয়ে তার গলার এক পাশে বিদ্ধ হয়ে অন্য পাশ দিয়ে বেরিয়ে যায়।

ঈদগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল হালিম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে আহত বনকর্মীকে উদ্ধার করা হয়। বন বিভাগের পক্ষ থেকে অভিযোগ বা মামলা হলে তদন্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঈদগাঁও রেঞ্জের কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, পুলিশ সুরতহাল প্রতিবেদন করে মরদেহটি কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের পর আইনি প্রক্রিয়া শেষে আখতারুজ্জামানের মরদেহ তার গ্রামের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে।


আরও খবর



ছুটি কাটাতে চায়ের রাজধানীতে পর্যটকদের ভিড়

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

ঈদের ছুটি কাটাতে মৌলভীবাজারের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে মানুষের ভিড় জমেছে। নানা প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করেই রাত পর্যন্ত ঘোরাঘুরি করছেন ভ্রমণপ্রিয় মানুষ। তবে সড়কের অবস্থা খারাপ থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পর্যটকরা।

ঈদের ছুটিতে হাজার হাজার মানুষের পদচারণায় মুখর শ্রীমঙ্গলের বধ্যভূমি ৭১, ফাইভ স্টার হোটেল গ্র্যান্ড সুলতান, জাতীয় উদ্যান লাউয়াছড়াসহ জেলার কমলগঞ্জ, কুলাউড়া, বড়লেখা উপজেলার বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রের আশপাশের এলাকা।

jagonews24

পর্যটন স্পটগুলো ঘুরে দেখা যায়, মানুষজন ভিড় করেছেন। ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পিংকী জাগো নিউজকে বলেন, আবদ্ধ জীবনের জাল ছিন্ন করে বেড়াতে পেরে আনন্দ লাগছে। দুদিন আগেই চলে আসি। এখানেই ঈদ উদযাপন করেছি।

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ভেতরের কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়ক আর মাধবপুর চা-বাগান লেকসহ বিভিন্ন চা-বাগানে উপচেপড়া ভিড় রয়েছে পর্যটকদের। একই অবস্থা ধলই চা-বাগান, বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান স্মৃতিসৌধ এলাকা, শমসেরনগর চা-বাগানের লেক, শমসেরনগর চা-বাগান গলফ মাঠ, ফুলবাড়ি চা-বাগানসহ বিভিন্ন চা-বাগানের পাহাড়ি উঁচু-নিচু এলাকায়।

jagonews24

হবিগঞ্জ থেকে আসা শুভ চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, ঈদের ছুটিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে শ্রীমঙ্গলে বেড়াতে এসেছি। এখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভালো তবে সড়কের বেহাল অবস্থার কারণে বেশ ভুগতে হয়েছে।

ঢাকা থেকে আসা নারী উদ্যোক্তা শাহিন আক্তার জাগো নিউজকে বলেন, এখানে চুরি-ডাকাতি নেই, সমস্যা রাস্তাঘাট। ভঙ্গুর রাস্তার কারণে এখানে আসতে অনেক কষ্ট হয়েছে।

jagonews24

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের বিট কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ জাগো নিউজকে জানান, ঈদের ছুটিতে পর্যটকদের ভিড় রয়েছে।


আরও খবর



চাঁদপুরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। রোববার (৮ মে) সন্ধ্যায় পৌর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য সাইফুল ইসলাম রিপন, মশিউর রহমান মিঠু, ছাত্রলীগ কর্মী রুবেল ও মুছার নাম পাওয়া গেলেও বাকিদের পরিচয় জানা যায়নি। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে চেষ্টা করে।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানায়, সম্প্রতি ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের দুটি কমিটি দেওয়া হয়েছে। একটি কমিটি অনুমোদন দেয় জেলা ছাত্রলীগ অপরটির মৌখিক অনুমোদন দেয় স্থানীয় এমপি মুহাম্মদ সফিকুর রহমান। রোববার বিকেল ৩টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ঈদ পুনর্মিলনীর আয়োজন করে পৌর ছাত্রলীগ। এমপির একটি গ্রুপও সেখানে ঈদ পুনর্মিলনীর আয়োজন করে। এ সময় পুলিশ সমাবেশ বন্ধ করে দেয়। এরপর পর ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ শুরু হয়।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) প্রদীপ জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তবে কতজন আহত হয়েছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না।


আরও খবর