Logo
শিরোনাম

স্কুলছাত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কিশোরের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে স্কুলছাত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আরমান (১৭) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৪ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার পানিশ্বর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আরমান ওই এলাকার এলাই মিয়ার ছেলে। সে পানিশ্বর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল।

অন্যদিকে আহত শিক্ষার্থী আঁখিকে (১৪) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে একই বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, বাজারের একটি ভবনে পানিশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক রাশেদুল ইসলাম প্রাইভেট পড়ান। বেলা ১১টার দিকে একটি ব্যাচ পড়াচ্ছিলেন তিনি। সাড়ে ১১টার দিকে পরের ব্যাচের শিক্ষার্থীরা আসতে থাকে। কয়েকজন শিক্ষার্থী ভবনের ছাদ খোলা দেখে সেখানে যান। এসময় ছাদের ওপরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী আঁখি অচেতন হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে নিচতলা থেকে অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাদে যায় আরমান। আঁখিকে উদ্ধার করতে গিয়ে সে নিজেও বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ঘটনাস্থলে মারা যান।

স্কুলছাত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কিশোরের মৃত্যু

এ বিষয়ে শিক্ষক রাশেদুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, আমার বাড়ি উপজেলার কালিকচ্ছে। সম্প্রতি পানিশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান করি। অবসর সময়ে এ ভবনে প্রাইভেট পড়াই। ভবনের ছাদে আমি কোনো দিন যাইনি। শিক্ষার্থীরা নিজেরাই ছাদে যায়।

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসাইন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মরদেহ হাসপাতাল মর্গে রাখা আছে।


আরও খবর



‘রেললাইনে দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়’

প্রকাশিত:সোমবার ০১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ আগস্ট ২০২২ | ১১জন দেখেছেন
Image

রেল লাইনে এসে কেউ দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয় বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। তিনি জানান, ট্রেন কাউকে ধাক্কা দেয় না, বরং বাইরে থেকে এসে ট্রেনকে ধাক্কা দেওয়া হয়।

সোমবার (১ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর উদ্বোধনের সময় তিনি এসব কথা বলেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি গোপালগঞ্জের রেল স্টেশনে হয়।

এসময় রেলমন্ত্রী বলেন, আমরা আড়াই থেকে তিন হাজার কিলোমিটার রেল লাইন তৈরি করছি। যেখানে রাস্তা আছে সেখানেই ব্রিজ করা আছে। রেলে যে আমরা বেরিয়ার দেই, গেট দেই, এ গেটটা দেওয়া হয় যাতে রেলের কোনো ক্ষতি না হয়। রেল ঠিকভাবে চলতে পারে, বাইরে থেকে কোকো কিছু যেন রেলের ক্ষতি করতে না পারে। কিন্তু কেউ যদি এসে রেলগেটে কিংবা রেল লাইনে দুর্ঘটনার শিকার হন তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়।

‘রেললাইনে দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়’

তিনি আরও বলেন, যখন রেল চলাচল করে তখন ১৪৪ ধারা জারি থাকে। কারো রেললাইনে আসা-যাওয়ার সুযোগ নাই। আরেকজন এসে আমার সঙ্গে ধাক্কা খাবে তার দায়িত্ব রেলের ওপর দেবেন এটা যুক্তিসঙ্গত নয়। আমি তো কাউকে ধাক্কা দিচ্ছি না। আরেকজন এসে আমাকে ধাক্কা দিয়ে রেল যোগাযোগে ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। যে ধাক্কা দিচ্ছে তার দোষ নাই, যেহেতু বড় গাড়ি আমার তাই সব দোষ আমার। এটা হলো আমাদের জেনারেল পারসেপশন, কিন্তু যুক্তি দিয়ে যদি বিবেচনা করেন তাহলে আপনারা সঠিক উত্তরটি পেয়ে যাবেন।

রেল তার নিজস্ব লাইনে চলে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমি কাউকে ধাক্কা দিতে পারি না। অন্য যানবাহন এসে আমাকে ধাক্কা দেয়। আরেকজন এসে তার ক্ষতি করবে, আর তার দায়িত্ব আমাকে নিতে হবে। এই জায়গাটাতে আমাদের একটু সচেতনতা প্রয়োজন রয়েছে।

‘রেললাইনে দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়’

কোনো দুর্ঘটনা ও মৃত্যু কারো কাম্য নয় উল্লেখ করে তিরি বলেন, কিন্তু এই ঘটনাগুলো রেলের দুর্ঘটনা নয়। রেলের দুর্ঘটনা সেটাই রেল যদি লাইনচ্যুত হয়। রেল যদি নিজের পথ ছেড়ে কারো বাড়িতে ঢুকে যায় সেটা হলো রেলের দুর্ঘটনা। এই বিষয়গুলো আমাদের বিবেচনায় নিতে হবে।

রেলের গেট পাহারার দায়িত্বের বিষয়ে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, রেলের গেট পাহারা দেওয়ার দায়িত্ব তাদের যারা রাস্তা করেছে। আপনার পৌরসভার রাস্তা আমার রেললাইনকে ক্রস করতেছে, আপনার লোকজন সেই রাস্তা দিয়ে পারাপার হবে এর দায়িত্ব আপনার আমার নয়।


আরও খবর



জবানবন্দি দিতে আদালতে ভুক্তভোগী নারী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ | ১৪জন দেখেছেন
Image

টাঙ্গাইলের মধুপুরে বাস ডাকাতি ও ধর্ষণের শিকার নারীর জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আদালতে নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিকেলে টাঙ্গাইল জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রুমি খাতুনের আদালতে তার জবানবন্দি গ্রহণ করা হচ্ছে।

আদালত পুলিশের পরিদর্শক তানভীর আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সকালে গ্রেফতার বাস ডাকাতি ও ধর্ষণ মামলার মূলহোতা রাজা মিয়ার রিমান্ড আবেদনের জন্য আদালতে নেওয়া হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার কুষ্টিয়ার বড়াইগ্রাম থেকে ঈগল পরিবহনের বাসটি ৩০-৩৫ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে। রাত সাড়ে ৩টার দিকে যাত্রীবেশে কুষ্টিয়া থেকে ওই ডাকাত দল উঠে প্রথমে গাড়ির নিয়ন্ত্রণ নেন। পরে যাত্রীদের হাত-পা-চোখ বেঁধে মারধর করে সম্পদ লুট করে। পরে এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে পথ পরিবর্তন করে গাড়িটি টাঙ্গাইলের মধুপুরের রাস্তার পাশের বালির ডিবিতে উঠিয়ে পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইল শহরের নতুন বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে মামলার মূলহোতা রাজা মিয়াকে গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।


আরও খবর



বর্ষায় ভারতের যে ৭ স্থানে ঘুরতে যাওয়া বিপজ্জনক!

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ আগস্ট ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

বর্ষায় বৃষ্টি উপভোগ করতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। এ সময় হাওর, ঝরনা কিংবা সমুদ্র ভ্রমণে যান কমবেশি সবাই। আবার বর্ষায় ভারতের বিভিন্ন স্থানের সৌন্দর্য উপভোগে অনেকেই সে দেশে ঘুরতে যান।

তবে বর্ষায় যেখানেই আপনি ভ্রমণে যান না কেন, অবশ্যই আগে থেকে সেখানকার পরস্থিতি জেনে তবেই ভ্রমণে যাওয়া উচিত। আপনি যদি বর্ষায় ভারত ভ্রমণে যান তাহলে বেশ কয়েকটি স্থান এড়িয়ে চলুন। জেনে নিন কোন স্থানগুলো-

কিন্নর

কিন্নর উপত্যকা সারাবছরই সুন্দর। তবে বর্ষা মৌসুমে এই স্থানে ভ্রমণ হতে পারে বিপজ্জনক। কারণ এ সময়ে আবহাওয়া বেশ খারাপ থাকে। অবিরাম বৃষ্টির কারণে কিন্নরে প্রায়ই ভূমিধস ও বজ্রপাত ঘটে। তাই জুলাই-সেপ্টেম্বর মাসে এই স্থানটি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

উত্তরাখণ্ড

বর্ষাকালে উত্তরাখণ্ডের আবহাওয়া বেশ ভয়ংকর হয়ে ওঠে। দিল্লি-এনসিআরের কাছাকাছি হওয়ার কারণে, স্থানটিতে প্রায় সারা বছরই ভিড় থাকে।

তবে মনে রাখবেন, বর্ষাকালে উত্তরাখণ্ডের উপরের অংশে ভারী বৃষ্টিপাত হয়। ফলে ভূমিধস, বন্যা ও বজ্রপাত ঘটে। আবহাওয়াবিদরাও আবহাওয়ার সতর্কতা জারি করে যাতে পর্যটকরা ট্রেকিং ও ওই স্থান এড়িয়ে চলেন।

আসাম

বর্ষা মৌসুমে আসামের বিভিন্ন অংশ থেকে প্রায় প্রতি বছরই ভূমিধসের খবর পাওয়া যায়। যদিও বৃষ্টির সময় আসামের সৌন্দর্য দ্বিগুণ বেড়ে যায়, তবে এ সময় আসাম পরিদর্শন এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। এ বছরও আসামের বন্যা বিধ্বংসী হয়েছে, বিভিন্ন স্থানে ভূমিধসের কারণে রাস্তাঘাট বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

বিহার

বিহার ভ্রমণের সেরা সময় হলো বর্ষার পরে অর্থাৎ অক্টোবর-মার্চ মাস পর্যন্ত। এই স্থানটিও বন্যাপ্রবণ। বর্ষায় বুরহি, কোসি, গন্ডক ও বাগমতির মতো প্রধান নদীগুলো হিমালয় থেকে উৎপন্ন হয়ে উত্তর বিহারে প্রবাহিত হওয়ার কারণে, তারা প্রায়শই বড় আকারের ধ্বংসযজ্ঞের কারণ হয়ে ওঠে।

মেঘালয়

মেঘালয়ে এবার ১-২২ জুনের মধ্যে বিগত বছরের তুলনায় ১৬১ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। সেখানকার ৫০৩.১ মিলি মিটার স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের বিপরীতে এবার ১৩১৪.৪ মিলি মিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এর ফলে ভূমিধস ও মহাসড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় যাতায়াত ব্যাহত হয়। শুধু সড়ক নয়, মোবাইল নেটওয়ার্ক সংযোগও বিঘ্নিত হয়েছে। তাই বর্ষা মৌসুমে মেঘালয় এড়িয়ে চলুন। এর পরিবর্তে নভেম্বর-ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে মেঘালয় ভ্রমণ করুন।

দার্জিলিং

দার্জিলিংও বর্ষার সময় নিস্তেজ হয়ে যায়। সেখানেও দিনের বেশিরভাগ সময় অবিরাম ধারায় বর্ষণ হয়। সেখানকার মানুষ সারাদিন রেইনকোট পরে থাকেন। এ সময় চা বাগানের আশপাশে চলাচল আরও কষ্টকর হয়ে ওঠে, কারণ তখন রাস্তাগুলো পিচ্ছিল হয়ে যায়। দার্জিলিং ভ্রমণে যাওয়ার সেরা সময় হলো গ্রীষ্মকাল।

মুম্বাই

বর্ষাকালে মুম্বাইয়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখার মতো। তবে এ সময় মানুষের ভোগান্তিও থাকে বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় বেশি। বর্ষায় সেখানে লোকাল ট্রেন পরিসেবাগুলো অবিরাম বৃষ্টির কারণে বন্ধ হয়ে যায়। তখন জলাবদ্ধতার কারণে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়াত করা খুব কঠিন হয়ে পড়ে।


আরও খবর



এসএসসি পাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ১৩জন দেখেছেন
Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) পরিকল্পনা ও উন্নয়ন অফিসে ০২টি পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ২৫ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

পদের বিবরণ
jagonews24

চাকরির ধরন: স্থায়ী
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের ঠিকানা: পরিচালক, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা-১০০০।

আবেদন ফি: পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে ৩০০ টাকা পাঠাতে হবে।

আবেদনের শেষ সময়: ২৫ আগস্ট ২০২২

সূত্র: যুগান্তর, ২৯ জুলাই ২০২২


আরও খবর



এক্সিকিউটিভ নেবে এনআরবি ব্যাংক সিকিউরিটিজ

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

এনআরবি ব্যাংক সিকিউরিটিজ পিএলসি ‘অ্যাকাউন্টস এক্সিকিউটিভ’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৬ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: এনআরবি ব্যাংক সিকিউরিটিজ পিএলসি

পদের নাম: অ্যাকাউন্টস এক্সিকিউটিভ
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর
অভিজ্ঞতা: ০৫ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: ৩৫ বছর
কর্মস্থল: যে কোনো স্থান

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১৬ আগস্ট ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর