Logo
শিরোনাম

ভারতে ‘নিজেকেই ‌বিয়ে’ করছেন এক তরুণী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ জুন 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ২৬৪জন দেখেছেন
Image

 

সোলোগামি বা স্ব-বিবাহ পশ্চিমা দেশগুলোতে প্রচলিত হলেও ভারতীয় উপমহাদেশে খুব একটা পরিচিত নয়। কিন্তু সেই ধারা ভাঙার উদ্যোগ নিয়েছেন ভারতের এক তরুণী। আগামী ১১ জুন হিন্দুরীতি মেনে ‘নিজেকেই বিয়ে’ করতে চলেছেন তিনি। কেশামা বিন্দু নামে ২৪ বছর বয়সী ওই তরুণীর দাবি, এটাই হতে চলেছে ভারতে প্রথম স্ব-বিবাহের ঘটনা। খবর পিটিআইয়ের।

নিজের অভিপ্রায় সম্পর্কে বলতে গিয়ে গুজরাটের ভাদোদারা শহরের ওই তরুণী জানান, তিনি বিয়ের গৎবাঁধা রীতি ভেঙে ‘সত্যিকারে ভালোবাসা খুঁজে না পাওয়া’ মানুষদের প্রেরণা জোগাতে চান।

নিজেকে উভকামী পরিচয় দেওয়া বিন্দু সাংবাদিকদের বলেন, জীবনের একপর্যায়ে আমি বুঝতে পারি, আমার কোনো রাজকুমারের প্রয়োজন নেই। কারণ, আমি নিজেই নিজের রানি। আমি বিয়ের দিন চাই, কিন্তু পরের দিন নয়। তাই আগামী ১১ জুন নিজেকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সেদিন আমি কনের সাজে সাজবো, আচার-অনুষ্ঠানে অংশ নেবো, বন্ধুরা আমার বিয়েতে যোগ দেবে এবং তারপর আমি বরের সঙ্গে না গিয়ে নিজের বাড়িতেই ফিরে আসবো।

jagonews24

ভারতীয় এ তরুণী জানিয়েছেন, ‘বর-বিহীন’ এই বিয়েতে সম্মতি দিয়েছেন তার মা। বিন্দু বলেন, আমি বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য একজন পণ্ডিত (পুরোহিত) ঠিক করেছি। আমি লক্ষ্য করেছি, পশ্চিমা দেশগুলোর মতো ভারতে স্ব-বিবাহ জনপ্রিয় নয়। তাই, আমি এই ধারা শুরু এবং অন্যদের অনুপ্রাণিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

বিন্দুর কথায়, মানুষ আমার চিন্তা-ভাবনা পছন্দ না-ও করতে পারে। কিন্তু আমি আত্মবিশ্বাসী যে, ঠিক কাজটাই করছি। সহজ প্রচারণার জন্য এমনটি করছেন কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তরুণী বলেন, তিনি এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ইনফ্লুয়েন্সার হিসেবে বেশ জনপ্রিয়।

বিন্দুর ভাষ্যমতে, আমি শুধু গৎবাঁধা রীতিগুলো ভাঙতে এবং অন্যদের নিজেকে ভালোবাসতে অনুপ্রাণিত করতে চাই। এমন অনেক মানুষ রয়েছে, যারা ভালোবাসা খুঁজে পেতে কিংবা একাধিকবার বিয়েবিচ্ছেদ করতে করতে ক্লান্ত। একজন উভকামী হওয়ায় আমি আগে এক পুরুষ ও এক নারীর প্রেমে পড়েছিলাম। কিন্তু এখন আমি নিজেকেই সবটুকু ভালোবাসা দিতে চাই।

jagonews24

তরুণীর দাবি, তার বিয়েই হতে চলেছে ভারতে প্রথম স্ব-বিবাহের ঘটনা। তবে ভারতীয় আইনে এটি বৈধ হবে না বলে জানিয়েছেন আইন বিশেষজ্ঞরা।

ভারতীয় হাইকোর্টের জ্যেষ্ঠ অ্যাডভোকেট কৃষ্ণকান্ত ভাখারিয়া বলেন, ভারতীয় আইন অনুযায়ী আপনি নিজেকে বিয়ে করতে পারবেন না। একটি বিয়েতে দুজন থাকতে হবে। এখানে সোলোগামি বৈধ নয়।

চন্দ্রকান্ত গুপ্ত নামে আরেক প্রবীণ আইনজীবী বলেন, হিন্দু বিবাহ আইনে ‘পতি-পত্নীর যেকোনো একজন’ পরিভাষা ব্যবহার করা হয়েছে, যার অর্থ- বিয়ে করার জন্য অবশ্যই দুজন থাকতে হবে। সোলোগামি কখনোই আইনি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবে না।


আরও খবর



বিক্রি করলেন বাবা, আব্দুল্লাহকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬১জন দেখেছেন
Image

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশের তৎপরতায় মায়ের কোলে ফিরে গেলো অবুঝ এক শিশু। মাদকাসক্ত বাবা নেশার টাকা জোগাড় করতে না পেরে দেড় বছরের শিশু আব্দুল্লাহকে বিক্রি করে দেন এক নিঃসন্তান দম্পতির কাছে। পরে শিশুর মা বিষয়টি মতলব দক্ষিণ থানায় অবগত করলে তাৎক্ষণিক শিশুটিকে উদ্ধারে পদক্ষেপ গ্রহণ করে থানা পুলিশ।

সোমবার (৬ জুন) দিবাগত রাতে শিশুটিকে উদ্ধার করে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয় পুলিশ।

জানা যায়, পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের বাবুরপাড়া গ্রামের প্রধানীয়া বাড়ির বাসিন্দা ইমরান হোসেন। গত ৪ জুন স্ত্রীর কাছ থেকে শিশুটিকে নিয়ে বের হয়ে যান। পরে দেড় বছরের আব্দুল্লাহকে মাত্র ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের চরলক্ষ্মীপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের মেয়ে রুমা আক্তারের কাছে।

এদিকে সন্তান না পেয়ে শিশুটির মা লামিয়া বেগম মতলব দক্ষিণ থানায় এসে পুলিশকে জানান। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন মিয়ার নির্দেশে এসআই রুহুল আমিন ও সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে মতলব উত্তর উপজেলার চর লক্ষ্মীপুর গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেন।

বিক্রি করলেন বাবা, আব্দুল্লাহকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ

জানা যায়, শিশুটির বাবা মাদকাসক্ত। তিনি তার নেশার টাকা জোগাড় করতে না পেরে অবুঝ শিশুটিকে বিক্রি করে দেন। যদিও এই ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক। এছাড়াও স্ত্রী-সন্তানের তেমন খোঁজ খবর রাখেন না। তাই লামিয়া বেগম ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালান বলে জানা গেছে।

মতলব দক্ষিণ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমিন বলেন, মাদকসেবী ইমরান হোসেন মাদকের টাকা জোগাড় করতে তার ছেলে আব্দুল্লাহকে ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন নিঃসন্তান ওই দম্পতির কাছে।

এ বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া জানান, লামিয়া বেগম থানায় এসে আমাদেরকে বিষয়টি জানান এবং সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ তার সন্তানকে খুঁজতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। পরে মতলব উত্তর উপজেলার চরলক্ষ্মীপুর থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।


আরও খবর



চট্টগ্রাম ওয়াসার পানির মান পরীক্ষায় চার সদস্যের কমিটি

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম ওয়াসার পানির গুনগত মান পরীক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করে চার সদস্যের কমিটি গঠনের আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। কমিটি গঠনের পর পানি পরীক্ষা করে এক মাসের মধ্যে প্রতিবেদনও দিতে বলা হয়েছিল।

ওই আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে চার সদস্যের কমিটি গঠনে প্রতিনিধি নির্বাচন করা হয়েছে। আর সেই তথ্য জানানো হয়েছে আদালতকে। তবে পানি পরীক্ষার বিষয়ে আদালতে কোনো প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়নি। এরপর এ বিষয়ে ২৫ জুলাই পরবর্তী শুনানির জন্য দিন ঠিক করেন হাইকোর্ট। কমিটি গঠনের পর ওইদিন পানি পরীক্ষার অগ্রগতি জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

রোববার (৫ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারী আইনজীবী তানভীর আহমেদ শুনানি করেন। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়। চট্টগ্রাম ওয়াসার পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. সাইফুর রহমান রাহী।

শুনানির আগে স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সাঈদুর রহমান সাইদ স্বাক্ষরিত একটি প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করা হয়।

চট্টগ্রাম ওয়াসার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. সাইফুর রহমান রাহী জাগো নিউজকে বলেন, ৬ মার্চ হাইকোর্ট যে আদেশ দিয়েছিলেন, সেটি তারা হাতে পেয়েছেন অনেক পরে। তাই পানি পরীক্ষা করতে পারেননি।

হাইকোর্টের আদেশের দিন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায় জানিয়েছিলেন, ৩০ দিনের মধ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিবকে চট্টগ্রাম ওয়াসার পানি পরীক্ষা জন্য চার সদস্যের কমিটি গঠন করতে বলা হয়েছিল। পাশাপাশি পানির ২৪ পয়েন্ট থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়।

কমিটিতে থাকবেন— চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের একজন শিক্ষক, চট্টগ্রাম বিসিএসআইআর ল্যাবরেটরির একজন প্রতিনিধি ও চট্টগ্রাম বিভাগ পরিবেশ ল্যাবরেটরির একজন প্রতিনিধি।

এর আগে ২০১৮ সালের ৬ নভেম্বর একইভাবে ঢাকা ওয়াসার পানি পরীক্ষার জন্য কমিটি গঠন আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। পরে ২০১৯ সালের ১৮ এপ্রিল স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিবকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের কমিটি গঠন করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

এই কমিটির সদস্যরা ছিলেন- আইসিডিডিআর,বির জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী মনিরুল আলম, বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক এ বি এম বদরুজ্জামান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান সাবিতা রিজওয়ানা রহমান।

এরপর ২০১৯ সালের ৭ জুলাই ঢাকা ওয়াসার পানি পরীক্ষা প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করা হয়। সেই প্রতিবেদনে ঢাকা ওয়াসার ১০টি বিতরণ জোনের ৩৪টি নমুনার মধ্যে আটটি পানির নমুনায় ব্যাকটেরিয়াজনিত দূষণ রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

তখন ঢাকা ওয়াসার আইনজীবী ব্যারিস্টার এএম মাসুম বলেছিলেন, সমন্বিত প্রতিবেদন আসার পর সেখানে জোন-১ ও জোন-৪ একটি মিরপুর অপরটি পাতলা খান লেনে পাওয়া ব্যাকটেরিয়া মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর বলে উল্লেখ কর হয়। সেই ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া হলো ফেকেল ও ই-কোলাই। ওই প্রতিবেদনের সুপারিশ অনুসারে আমরা ওয়ান বাই ওয়ান কারেক্টিফিকেশনে গেছি।


আরও খবর



হিমাচলে স্কুল বাস খাদে পড়ে শিক্ষার্থীসহ নিহত ৯

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ জুলাই ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

ভারতের হিমাচল প্রদেশে স্কুল বাস খাদে পড়ে শিক্ষার্থীসহ ৯ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কুলুর ডিসি আশুতোষ গর্গ জানিয়েছেন, সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে জাংলা গ্রামের কাছে বাসটি খাদে পড়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় উদ্ধারকারী দল। আহত আরও অনেককে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বাসটিতে কমপক্ষে ৪০ জন শিক্ষার্থী ছিল। সংবাদ সংস্থা এএনআই বলছে, নিওলি-সামশের সড়ক হয়ে কুলু থেকে সায়ঞ্জের দিকে যাচ্ছিল বাসটি। সে সময় ঘটে ভয়াবহ এ দুর্ঘটনা।

সূত্র: এনডিটিভি, এএনআই


আরও খবর



নগর ভবন ধনী-গরিব সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে: হাতপাখা প্রার্থী

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী (হাতপাখা) মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী তার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন। তার ইশতেহারে নগর ভবন ধনী-গরিব সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে বলেও জানান তিনি।

শুক্রবার (১০ জুন) বেলা ১১টায় কুমিল্লা নগরীর সদর দক্ষিণে তার নির্বাচনী কার্যালয়ে এ ইশতেহার ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত ইশতেহারে মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী কুমিল্লা নগরীকে যানজট, জলাবদ্ধতা, দুর্নীতি মুক্ত, শিক্ষাব্যবস্থার অধিকতর উন্নয়ন, হিজড়া সম্প্রদায়ের পুনর্বাসন এবং জাকাত বোর্ড গঠনসহ মোট ১৩টি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরেন।

এ সময় আরও কয়েকটি বিষয়ে প্রস্তাবনা পেশ করেন তিনি। সিটি মেয়র হিসেবে তিনি নির্বাচিত হতে পারলে ইশতেহারের শতভাগ পুরণ করবেন বলেও ঘোষণা দেন

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব প্রকৌশলী আশরাফুল আলম, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক কামরুল হাসান খোকন, জেলা সেক্রটারি মাওলানা নুর হুসাইন, নগর সেক্রেটারি এনামুল হক, নগর ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি খালেদ সাইফুল্লাহ ও সেক্রেটারি রবিউল ইসলাম সবুজসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা।

এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীসহ মোট পাঁচ মেয়র প্রার্থী অংশ নিলেও শুক্রবার পর্যন্ত ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী একমাত্র নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন। বাকি চার প্রার্থীর কেউ এখনো পর্যন্ত তাদের ইশতেহার ঘোষণা করেননি।

আগামী ১৫ জুন সিটি করপোরেশনের ১০৫ কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এবার মেয়র পদে পাঁচজন, কাউন্সিলর পদে ১০৮ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৩৬ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।


আরও খবর



সরকারি-বেসরকারি সব কাঁচাবাজার নিয়ন্ত্রণের ঘোষণা ডিএসসিসির

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

সরকারি-বেসরকারি সব কাঁচাবাজার সমন্বিতভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ফরিদ আহাম্মদ।

মঙ্গলবার (৭ জুন) দুপুরে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান কার্যালয় নগরভবনের বুড়িগঙ্গা হলে ডিএসসিসি এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) যৌথ আয়োজনে ‘সিটি-লেভেল সেমিনার-ঢাকা সাউথ সিটি করপোরেশনস প্রায়োরিটিজ অ্যান্ড কনট্রিবিউশন্স ফর দ্য ঢাকা ফুড এজেন্ডা ২০৪১’ শীর্ষক সেমিনারে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি।

ফরিদ আহাম্মদ বলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় দুই শতাধিক কাঁচাবাজার রয়েছে। যত্রতত্র সেসব কাঁচাবাজার গড়ে উঠেছে। স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন, ২০০৯ অনুযায়ী কাঁচাবাজারগুলো নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব সিটি করপোরেশনেরই। সেজন্য আইনের আলোকে প্রবিধান করার বাধ্যবাধকতাও রয়েছে। কিন্তু ইতোপূর্বে সেই প্রবিধান কখনোই করা হয়নি। বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের নেতৃত্বে আমরা সেই প্রবিধানমালা প্রণয়ন করেছি। প্রবিধানটি দুই সপ্তাহ আগে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। আমরা আশা করছি আগামী জুলাইয়ের মধ্যে সেটার অনুমোদন পাবো। অনুমোদনের প্রাপ্তির পর প্রবিধানের আলোকে আমরা সমন্বিতভাবে সরকারি-বেসরকারি সব কাঁচাবাজার নিয়ন্ত্রণ করবো এবং সেগুলোকে শৃঙ্খলায় নিয়ে আসা হবে।

সেমিনারে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার ঢাকা ফুড সিস্টেম প্রকল্পের চিফ টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার জন টেলর বলেন, আমাদের লক্ষ্য হলো ঢাকার খাদ্য ব্যবস্থাকে আরও অন্তর্ভুক্তিমূলক, স্থিতিস্থাপক ও টেকসই করে ‘ঢাকা ফুড এজেন্ডা ২০৪১’ তৈরিতে বাংলাদেশ সরকারকে সহায়তা করা। এটি সরকার ও অন্যান্য সংস্থার পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাগুলোকেও নির্দেশনা দিতে পারবে। এ প্রতিষ্ঠানগুলো ন্যায়সঙ্গত, সহজলভ্য ও স্থিতিস্থাপক খাদ্য ব্যবস্থায় অবদান রাখতে পারে। আমরা এটাও বিশ্বাস করি যে, শুধু ঢাকা না বরং সারাদেশের অনেক শহর একই ধরনের কৌশল তৈরি করতে পারে এবং তা করা উচিত।

নেদারল্যান্ডস সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনসহ ঢাকা উত্তর, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন এলাকার জন্য ‘ঢাকা ফুড সিস্টেম ২০৪১’ প্রকল্পটি গ্রহণ করেছে। শহরের বাসিন্দাদের জন্য ২০৪১ সালে সাশ্রয়ী মূল্যে, উন্নতমানের খাবার সরবরাহের ব্যবস্থাপনা সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারকে সহযোগিতা করার লক্ষ্যে প্রকল্পটি নেওয়া হয়। প্রকল্পটি নেদারল্যান্ডসের ওয়াগেনিনজেনইউনিভার্সিটি অ্যান্ড রিসার্চের প্রযুক্তিগত সহায়তায় সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে একটি প্রমাণভিত্তিক এবং সহযোগিতামূলক পদ্ধতিতে ‘ঢাকা ফুড এজেন্ডা ২০৪১’ তৈরি করতে বাংলাদেশ সরকারকে সহায়তা করছে। এটি জাতিসংঘের খাদ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত শীর্ষ সম্মেলনের পরিকল্পনাগুলোকে বাস্তবায়নে সহায়তা করবে।

ঢাকা ফুড এজেন্ডা-২০৪১ প্রণয়নের প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে এ বছর এপ্রিল মাসে জাতীয় খাদ্য ব্যবস্থার অগ্রাধিকার ও ‘ঢাকা খাদ্য এজেন্ডা ২০৪১’ শীর্ষক একটি জাতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারেই প্রস্তাব করা হয়, এর গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে এবং সিটি-লেভেলের স্টেকহোল্ডারদের সম্পৃক্ত করতে জাতীয় সেমিনারটির পরই পর্যায়ক্রমে চার সিটি করপোরেশনে চারটি শহর-পর্যায়ের সেমিনার আয়োজন করতে হবে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে প্রথম সেমিনারটি আয়োজন করা হয়।

সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বাজারমূল্য পর্যবেক্ষণ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. শহিদ উল্লাহ মিনু, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব ও ঢাকা ফুড সিস্টেম প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমান, করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ফজলে শামসুল কবির বক্তব্য রাখেন।


আরও খবর